সড়ক দুর্ঘটনা : চকরিয়ায় আ.লীগ নেতাসহ নিহত ৪, আহত ১০

বৃহস্পতিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

মিজবাউল হক, চকরিয়া (কক্সবাজার) থেকে : একদিনের ব্যবধানে কক্সবাজারের চকরিয়ার হারবাং ইনানী রিসোর্ট এলাকায় কাভার্ডভ্যান ও ইজিবাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষে এবার ৪ জন নিহত এবং মা-মেয়েসহ ১০ যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আগের দিন মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আধা কিলোমিটার দূরে বাস ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে ৭ জন নিহত হয়েছিল।

গতকালের দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন- চকরিয়া উপজেলার হারবাং এলাকার আবদুস সাত্তারের ছেলে মো. তাজউদ্দিন (২২), হারবাং জমিদার পাড়ার ছৈয়দ আহমদের ছেলে ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবু তাহের (৫০), পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের আবদুল খালেকের ছেলে ইউনুছ মিয়া (৩৫) ও বাঁশখালী উপজেলার প্রেমবাজার এলাকার মো. সেলিম উদ্দিনের স্ত্রী হাসিনা বেগম (৪৩)।

আহতরা হলেন- চকরিয়ার হারবাং গয়ালমারা এলাকার দলিলুর রহমানের ছেলে জালাল উদ্দিন (৪৮), আবুল হোছাইনের ছেলে নূর হোছাইন (৪২), চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার প্রেমবাজার এলাকার মো. সেলিমের স্ত্রী সেলিনা আক্তার (৩২), তার শিশুকন্যা তাছফি (৮) ও অজ্ঞাত এক নারী।

প্রত্যক্ষদর্শী ও হাইওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মহাসড়কের হারবাং ইনানী রিসোর্ট এলাকায় কক্সবাজারগামী আরএফএলের মালবাহী একটি কাভার্ডভ্যান বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ইজিবাইককে চাপা দিলে দুই যাত্রী ঘটনাস্থলে মারা যান। এতে ইজিবাইকটি দুুমড়ে মুচড়ে যায়। এ সময় ৭ যাত্রী গুরুতর আহত হন। স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ আহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা সরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে আরো দুজনের মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত ৫ জনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অপরদিকে চট্টগ্রাম থেকে প্রাইভেটকারযোগে চকরিয়ায় আসার পথে একই সময় দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন কালের কণ্ঠ চট্টগ্রাম ব্যুরো অফিসের স্টাফ রিপোর্টার আসিফ সিদ্দিকী (৪০), তার মা জওশন আরা বেগম (৬০) ও চালক মো. ইকবাল (৩২)। অলৌকিকভাবে বেঁচে গেলেও দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন তারা। তাদের চকরিয়া পৌর শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত সাংবাদিক আসিফ সিদ্দিকী জানান, সকালে তাদের বহনকারী প্রাইভেটকারটি মহাসড়কের লোহাগাড়ার চুনতি মিডওয়ে-ইন রেস্টুরেন্টের কাছে পৌঁছালে সামনে থাকা স্টার লাইন পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস সেখানে যাত্রা বিরতির জন্য কোনো সংকেত না দিয়ে সড়কের ডান পাশ দিয়ে ঢুকে পড়ে। এ অবস্থায় তাদের বহনকারী গাড়িটির চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে গাড়িটি মহাসড়ক থেকে ছিটকে গড়াগড়ি দিয়ে ধান ক্ষেতে গিয়ে পড়ে। এতে আহত হন তারা।

চকরিয়া থানার ওসি মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এক নারীসহ ৪ জন মারা যাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেন তিনি। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) খোন্দকার মো. ইখতিয়ার উদ্দিন আরফাত ঘটনাস্থল পরিদশন করেন। চকরিয়া থানার এসআই সুকান্ত চৌধুরী বলেন, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে চকরিয়া থানা-পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে পৌঁছে হতাহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে গুরুতর আহতের চমেক হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj