ফাইনালে মালদ্বীপ

বৃহস্পতিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

খেলা প্রতিবেদক : ভাগ্য সহায় থাকলে কি না হয়! টস ভাগ্যে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে সেমিফাইনালে ওঠা মালদ্বীপ এখন সাফ (সাউথ এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশন) চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে। গতকাল দিনের প্রথম সেমিফাইনালে ‘এ’ গ্রুপের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থেকে শেষ চারের টিকেট পাওয়া নেপালকে ৩-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছে মালদ্বীপ। ম্যাচটিতে মালদ্বীপের হয়ে জোড়া গোল করেছেন মিডফিল্ডার ইব্রাহীম ওয়াহিদ হাসান ও অন্য গোলটি করেছেন মিডফিল্ডার আকরাম আবদুল গণি। নেপালের বিপক্ষে এ জয়ের মধ্য দিয়ে পঞ্চমবারের মতো দক্ষিণ এশিয়ার বিশ^কাপ হিসেবে খ্যাত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলার সুযোগ পেল কোচ পিটার সেগ্রটের শিষ্যরা। এর আগে চারবার টুর্নামেন্টটির ফাইনালে অংশ নিয়ে কেবল একবার শিরোপা জিততে পেরেছে তারা। ২০০৮ সালে ফাইনালে ভারতকে ১-০ গোলে হারিয়ে প্রথমবারের মতো সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতেছিল মালদ্বীপ। এবার আবারো শিরোপা জয়ের হাতছানি তাদের সামনে।

মালদ্বীপ গতকাল সেমিফাইনালে নেপালের চেয়ে ফেভারিট ছিল। কেননা নেপালের অবস্থান যেখানে ১৬১ সেখানে মালদ্বীপের অবস্থান র‌্যাঙ্কিংয়ের ১৫০ নম্বরে। দুদলের মুখোমুখি লড়াইয়েও এগিয়ে ছিল মালদ্বীপ। কেননা গতকালের ম্যাচের আগে মুখোমুখি লড়াইয়ে নেপালের ৪টি জয়ের বিপরীতে মালদ্বীপের জয় ছিল ৭টি। এর প্রভাব দেখা গেছে গতকাল সেমিফাইনালেও। ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে এদিন ম্যাচের শুরু থেকেই নেপালের ওপর আধিপত্য বিস্তার করে খেলতে থাকে মালদ্বীপ। এদিন ম্যাচের নবম মিনিটে মিডফিল্ডার আকরাম আবদুল গণির গোলে এগিয়ে যায় তারা। ম্যাচের ৮৪ মিনিটে মালদ্বীপের হয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মিডফিল্ডার ইব্রাহীম ওয়াহিদ হাসান। এর ২ মিনিট পর ইব্রাহীম আরো ১টি গোল করলে জয় নিশ্চিত হয় ২০০৮ সালের চ্যাম্পিয়নদের। এরপর ম্যাচের অবশিষ্ট সময়ে আর কোনো গোল না হলে শেষ পর্যন্ত ৩-০ গোলের দুর্দান্ত এক জয় পায় মালদ্বীপ। সেই সঙ্গে ২০০৯ সালের পর আবারো সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলার সুযোগ পেল তারা।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj