বিদ্যুৎ বিভ্রাটে স্থগিত সংসদ কার্যক্রম

বুধবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

কাগজ প্রতিবেদক : বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে কিছুক্ষণ চলার পর স্থগিত করা হয় জাতীয় সংসদের ২২তম অধিবেশনের তৃতীয় দিনের কার্যক্রম। গতকাল মঙ্গলবার বিকালে সংসদ সচিবালয়ে এ ঘটনা ঘটে। যা জাতীয় সংসদের ইতিহাসে ঘটনার বিরল। অতীতে এ রকম হয়েছে কিনা তাও জানা নেই সংসদ সচিবালয়ের।

গতকাল বিকেল ৫টা ১২ মিনিটে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে দিনের কার্যসূচি শুরু হয়। শুরুতেই চলছিল মন্ত্রীদের প্রশ্নোত্তর পর্ব। বিকেল পৌনে ৬টার দিকে স্পিকার অধিবেশন কক্ষ ত্যাগ করার পর তার আসনে বসেন ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া।

ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফের প্রশ্নোত্তর চলাকালেই ডেপুটি স্পিকার ঘোষণা দেন অনিবার্য কারণ বশত সংসদের আজকের কার্যক্রম স্থগিত করা হলো। পরে ডেপুটি স্পিকার তার দপ্তরে সাংবাদিকদের বলেন, বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে দিনের বাকি কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। আমরা যতটুকু জানতে পেরেছি, মেঘনা জাতীয় গ্রিডে ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ দিয়ে সংসদ এলাকায় কার্যক্রম পরিচালিত হয়। শুনেছি, সেখানে জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ ফল্ট করেছে। তাই সমস্যাটি দেখা দিয়েছে। দীর্ঘক্ষণ সংসদে বিদ্যুৎ ছিল না, এতক্ষণ জেনারেটর দিয়ে চলছিল, জেনারেটর দিয়ে বেশীক্ষণ চালানো সম্ভব না। তাই স্থগিত করা হয়েছে।

দিনের কার্যসূচিতে প্রশ্নোত্তর ছাড়াও ছিল ৭১ বিধিতে জরুরি জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়, তথ্য কমিশনের বার্ষিক প্রতিবেদন উত্থাপন। স্থায়ী কমিটির বিল সম্পর্কিত রিপোর্ট উত্থাপনের মধ্যে ছিল জাতীয় পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমি বিল, সার (ব্যবস্থাপনা) (সংশোধন) বিল। এ ছাড়া হাউজিং এন্ড বিল্ডিং রিসার্চ ইনস্টিটিউট বিল, বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন বিল। এ ছাড়া সংসদে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটের সাক্ষাৎ করার কথা ছিল, সেই কার্যক্রমও প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন, গণভবনে নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj