ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথ

বুধবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

খেলা প্রতিবেদক : ভারত-পাকিস্তান মানেই টান টান উত্তেজনা। সেটা যে কোনো খেলায় হোক না কেন! তবে ক্রিকেট কিংবা হকিতে নয়, সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ ফুটবল টুর্নামেন্টে আজ মুখোমুখি হবে চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী এ দুদল। বঙ্গবন্ধু জাতীয় ফুটবল স্টেডিয়ামে দিনের দ্বিতীয় সেমিফাইনাল ম্যাচে সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিটে ভারত-পাকিস্তান মাঠে নামবে। ম্যাচটি বিটিভি এবং চ্যানেল নাইনে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।

দক্ষিণ এশিয়ান ফুটবলের সবচেয়ে বড় আসর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ টুর্নামেন্ট তৃতীয়বারের মতো এবার বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ইতোমধ্যেই গ্রুপ পর্বও শেষ হয়েছে। সেরা চারের লড়াইয়ে হাইভোল্টেজ ম্যাচে আজ মুখোমুখি হচ্ছে ভারত- পাকিস্তান। ক্রিকেট কিংবা হকিতে দুদলের ম্যাচ মানেই তো বারুদে উত্তাপ। তবে ফুটবলে সেই উত্তাপটা তেমন নেই বললেই চলে। যে কোনো আসরের সাফল্য বিচারে পাকিস্তানের চেয়ে ভারত যোজন যোজন এগিয়ে। কিন্তু তারপরও সব কথা শেষে ম্যাচটা ভারত-পাকিস্তানের। প্রতিবেশী দুই দেশের রাজনৈতিক বৈরিতা থেকে শুরু করে খেলার বাইরের অনেক কিছুই ঢুকে যায় সেখানে। আর এ কারণেই সাফে দুদলের লড়াইটিও আকর্ষণ ছড়াচ্ছে। তিন বছর আন্তর্জাতিক ফুটবলে ছিল না পাকিস্তান জাতীয় দল। সেই নিষেধাজ্ঞা শেষে দেশটি প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে এই সাফেই। নিজেদের প্রত্যাবর্তনের ম্যাচে নেপালকে তারা ২-১ গোলে হারিয়ে শুরু করে টুর্নামেন্ট। তবে বাংলাদেশের কাছে ১-০ গোলে হেরে যায় দ্বিতীয় ম্যাচে। এরপর ভুটানকে হারিয়ে দলটি জায়গা করে নেয় সেমিফাইনালে। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে এখনো চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেনি সাদ্দাম হোসেনরা। সেখানে সর্বোচ্চ সাতবার শিরোপা জিতেছে ভারত। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নেয়া দেশগুলোর মধ্যে একশর ভেতরে থাকা একমাত্র দল ভারত। স্টিফেন কন্সট্যান্টাইনের শিষ্যরা রয়েছে ৯৬তম স্থানে। আর সেখানে পাকিস্তানের অবস্থান ২০১ নম্বরে। ফুটবলে এ পর্যন্ত দুদল মোট ২৩বার পরস্পরের মোকাবেলা করেছে। মাত্র ৩টি ম্যাচ জিতেছে পাকিস্তান। আর ভারত জিতেছে ১০টি ম্যাচে। অবশিষ্ট ১০টি ম্যাচ ড্র হয়েছে। আর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ইতিহাসে ভারতের বিপক্ষে সাদ্দাম হোসেনদের সাফল্য আরো কম। সাতটি মোকাবেলায় মাত্র একটি ম্যাচ জিতেছে পাকিস্তানিরা। একটি ড্র করেছে। আর অবশিষ্ট ৫টি ম্যাচ হেরেছে। তবে ইতিহাসে কী হয়েছে আর কী হয়নি তা নিয়ে মাথা ঘামালে কোনো লাভ হবে না। আজ যে দল জিতবে তারাই শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে অংশ নেয়ার যোগ্যতা অর্জন করবে।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj