খাতুনগঞ্জে রসুনের দরপতন

বুধবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

কাগজ প্রতিবেদক : নিজস্ব উৎপাদনের পাশাপাশি আমদানির মাধ্যমে দেশে রসুনের অভ্যন্তরীণ চাহিদা পূরণ করা হয়। চলতি বছর আন্তর্জাতিক বাজার থেকে প্রয়োজনের তুলনায় বাড়তি রসুন আমদানি করা হয়েছে। ফলে দেশে ভোগ্যপণ্যেও সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে পণ্যটির সরবরাহ আগের তুলনায় বেড়েছে।

বাড়তি আমদানি ও সরবরাহের জের ধরে স্থানীয় বাজারে দাম পড়ে গেছে পণ্যটির। সাম্প্রতিক সময়ে পাইকারি বাজারে প্রতি কেজি আমদানি করা রসুনের দাম ৩০ টাকার নিচে নেমেছে। এতে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন খাতুনগঞ্জের রসুন আমদানিকারকরা।

খাতুনগঞ্জ বাজারের পাইকারি আড়তগুলো ঘুরে আমদানি করা প্রতি কেজি রসুন মানভেদে ২৫-২৬ টাকায় বিক্রি হয়েছে। কোরবানি ঈদের আগে এসব রসুন মানভেদে প্রতি কেজি ৪০-৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছিল। সেই হিসাবে ২০ দিনেরও কম সময়ের ব্যবধানে স্থানীয় বাজারে আমদানি করা প্রতি কেজি রসুনের দাম সর্বোচ্চ ২৪ টাকা কমেছে।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj