একটু হাসো

বুধবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

১.

একদিন পাগলা গারদের এক ডাক্তার তিন পাগলের উন্নতি দেখার জন্য পরীক্ষা নিচ্ছিলেন। পরীক্ষায় পাস করতে পারলে মুক্তি, আর না করলে আরো দুই বছরের জন্য আটকানো হবে। ডাক্তার তিনজনকে সঙ্গে নিয়ে একটা পানিশূন্য সুইমিং পুলের সামনে গিয়ে ঝাঁপ দিতে বললেন। প্রথম পাগল সঙ্গে সঙ্গেই ঝাঁপ দিয়ে পা ভেঙে ফেলল। দ্বিতীয় পাগলটিও ডাক্তারের কথামতো ঝাঁপ দিয়ে হাত ভেঙে ফেলল। কিন্তু তৃতীয় পাগলটি কোনোমতেই ঝাঁপ দিতে রাজি হলো না। ডাক্তার আনন্দে চিৎকার করে উঠে বললেন, আরে, তুমি তো পুরোপুরি সুস্থ। তোমাকে মুক্ত করে দেব আজই। আচ্ছা বলো তো তুমি কেন ঝাঁপ দিলে না?

জবাবে সে বলল, ‘আমি তো সাঁতার জানি না’।

২.

স্যার ক্লাসে সবাইকে ক্রিকেট ম্যাচ নিয়ে রচনা লিখতে দিয়েছেন। সবাই মন দিয়ে লিখে চলছে। ৩-৪ মিনিট পরেই স্যার হঠাৎ দেখেন রন্টি জানালা দিয়ে উদাস চোখে বাইরের মাঠের দিকে তাকিয়ে আছে।

স্যার রন্টিকে ঝাড়ি দিয়ে জানতে চাইলেন, ‘এই তুমি লিখছো না কেন?’

রন্টি : স্যার আমার লেখা হয়ে গেছে!

স্যার : মানে? কই তোমার খাতা দেখি?

রন্টি স্যারকে খাতা এগিয়ে দিল। স্যার দেখলেন খাতায় লেখা রয়েছে ‘বৃষ্টির কারণে ম্যাচ পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হলো।’

৩.

বাবা : খোকা, পরীক্ষা কেমন দিলি?

ছেলে : শুধু একটা উত্তর ভুল হয়েছে।

বাবা : বাহ্! বাকিগুলো সঠিক হয়েছে?

ছেলে : না, বাকিগুলো তো লিখতেই পারিনি।

৪.

স্যার ছাত্রকে প্রশ্ন করছে।

স্যার : মিঠু, বল তো গরু আমাদের কি দেয়?

মিঠু : গরু? গরু আমাদের গুঁতো দেয় স্যার!

ইষ্টিকুটুম'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj