১৫ বছর পর

শনিবার, ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

মেলা ডেস্ক : দীর্ঘ বিরতি ভেঙে পরিচালনায় ফিরছেন বলিউড প্রযোজক-পরিচালক মহেশ ভাট। ২৭ বছর আগে তার পরিচালিত ‘সাদাক’ ছবির রিমেক নিয়ে ফিরবেন তিনি। সিক্যুয়ালের নাম রাখা হয়েছে ‘সাদাক-২’। এটি হতে যাচ্ছে তারকাসমৃদ্ধ ছবি। প্রথম কিস্তি ‘সাদাক’ ছবির মাধ্যমে সঞ্জয় দত্ত বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে সফল নায়কদের তালিকাভুক্ত হন। প্রথম কিস্তির সফলতার ধারাবাহিকতায় দ্বিতীয় কিস্তিতেও থাকছেন বলিউডের এই পাওয়ার স্টেশন। শুধু তাই নয়, এই ছবির মাধ্যমে ১৫ বছর পর আবার বড় পর্দায় ফিরছেন ভাটকন্যা পূজা ভাট। অভিনেতা রাহুল বোস পরিচালিত ‘এভরিবডি সেইস আই অ্যাম ফাইন’ সিনেমায় শেষবার ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছিলেন পূজা ভাট। এরপর থেকে তিনি অভিনেত্রী থেকে প্রযোজক বনে যান। তবে এই ছবির সব থেকে বড় আকর্ষণ হতে যাচ্ছেন আলিয়া ভাট। মহেশ ভাটের ছোট মেয়ে এরই মধ্যে বলিউডে রোশনাই ছড়িয়েছেন। মাহেশ ভাট চেয়েছিলেন পরিচালনায় কামব্যাক করা সিনেমায় আলিয়া ভাটকে রাখতে। তার সে ইচ্ছা পূরণ হতে চলেছে। আলিয়া ভাট বাবার পরিচালনায় কাজ করতে রাজি হয়েছেন। এ ছাড়া এই ছবিতে আরো থাকছেন আদিত্য রায় কাপুর। তবে সঞ্জয় দত্ত ও আলিয়া ভাট এই ছবির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করবেন। শোনা গেছে সঞ্জয় দত্তের মেয়ের ভূমিকায় অভিনয় করবেন আলিয়া। চমকের এখানেই শেষ নয়। গসিপ ম্যাগাজিনটি আরো জানিয়েছে, চলতি মাসে ছবির দৃশ্যধারণের কাজ শুরু হবে। এটি ২০১৯ সালের ১৫ নভেম্বর মুক্তি দেয়ার প্রাথমিক তারিখ নির্ধারণ করা হয়ছে। এই ছবির মাধ্যমে পূজা ভাট ও আলিয়া ভাট প্রথমবারের মতো একসঙ্গে পর্দায় হাজির হবেন। ‘সাদাক’ ছবিতে পূজা ভাট একজন যৌনকর্মীর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। যে কিনা সঞ্জয় দত্তর প্রেমে পড়েছিলেন। পরবর্তী সময়ে তারা দুজন মিলে সমাজের বিভিন্ন নেতিবাচক বিষয়ের বিরুদ্ধে লড়াই করেন। সম্প্রতি ছবিটি নিয়ে মাহেশ ভাট ভারতীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, ‘প্রথম ছবিটিতে সঞ্জয়ের বয়স ছিল ৩২। এখন সে ৫৪। আমরা দুটি সময়ের মধ্যে সমন্বয়ের চেষ্টা করব। পুরনো ছবিটার সঙ্গে নতুন ছবিটার অনুভূতিগত মিল থাকবে। তবে বর্তমান ছবিটি করা হবে এই সময়কে মাথায় রেখে।’

মেলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj