বৈদেশ

রবিবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ওজন কমিয়েছেন সেলেনা গোমেজ

অতিরিক্ত মেদের কারণে প্রায়ই কটু কথা শুনতে হতো মার্কিন সঙ্গীতশিল্পী ও অভিনেত্রী সেলেনা গোমেজকে। ২০১৫ সালে মেক্সিকোতে ছুটি কাটাতে গিয়ে বিকিনি পরা কিছু ছবি তিনি শেয়ার করেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এরপরই শুরু হয় তুমুল সমালোচনা। তখনই সিদ্ধান্ত নেন সেলেনা, যেভাবেই হোক অতিরিক্ত মেদ ঝরাতেই হবে। দেশে ফিরেই সাহায্য নেন হেলথ ও লাইফস্টাইল এক্সপার্ট এমি রোসফ ডেভিসের। তিনিই ঠিক করে দেন সেলেনা কী খাবেন, কখন শরীরচর্চা করবেন। এরপর সেলেনা প্রায় একবছর একটানা অনুসরণ করেন ডায়েট চার্ট। ধীরে ধীরে কমতে শুরু করে মেদ। দেখে নিন কীভাবে তিনি কমিয়েছেন অতিরিক্ত ওজন।

ডায়েট চার্টে ছিল যেসব খাবার : প্রচুর পরিমাণে সবজি ছিল সেলেনার ডায়েট চার্টে। পালং, ব্রকলি, বাঁধাকপি, মটরশুঁটি, ফুলকপি, করলা, লাউ, মিষ্টি কুমড়া, আদা, রসুন, গাজর, বিটরুট, বেগুন টমেটোসহ বিভিন্ন সবজি খেতেন প্রায় প্রতিদিনই। এছাড়া তাজা ফল খেতেন নিয়মিত। আপেল, তরজুম, লেবু, কমলা, আম, আনারস, স্ট্রবেরি, ব্লু্যাকবেরি, কলা, চেরিসহ নানা ধরনের ফল খেতেন সারাদিন। স্ন্যাকস হিসেবে খেতেন বিভিন্ন ধরনের বাদাম। ভারি খাবারের মধ্যে ওটমিল, বাদামি চালের ভাত, ময়দার রুটি ছিল। প্রোটিনের চাহিদা পূরণের জন্য মুরগির মাংস, মাশরুম, টুনা মাছ, ডাল, ছোলা, দই, দুধ, পনির খেতেন সেলেনা। প্রতিদিন প্রচুর পরিমাণে পানি রাখতেন খাবার তালিকায়। পাশাপাশি সবজি ও ফলের রস এবং নারকেলের পানি।

যেসব খাবার খেতেন না ভুলেও : চকলেট, চিপস, সল্টেড বাদাম, অতিরিক্ত অ্যালকোহল, পেস্ট্রি, পিৎজা, এনার্জি ড্রিংক, সোডা, বিস্কুট, সস, বোতলের জুস, প্যাকেট স্যুপ, ফ্রোজেন ফুড, চকলেট মিল্ক থেকে দূরে থাকতেন সবসময়।

শরীরচর্চা : প্রতিদিন শরীরচর্চা করতেই হবে, তবে সেটা যেন বিরক্তিকর না হয়ে যায় এমন পরামর্শ দিয়েছিলেন এমি রোসফ ডেভিস। একারণে প্রতিদিনই নতুন নতুন ব্যায়াম করার চেষ্টা করতেন সেলেনা। ইয়োগা, মেডিটেশন, জগিং, জাম্পিং করতেন সপ্তাহে ছয়দিন।

কারিনা কাপুর খান বাই ল্যাকমে অ্যাবসোলিউট

সম্প্রতি অভিনেত্রী তার নতুন মেকআপ লাইন লঞ্চ করলেন, যার নাম ‘কারিনা কাপুর খান বাই ল্যাকমে অ্যাবসোলিউট’। বলিউডে কারিনা কাপুর খান নিজেই একটি ব্র্যান্ড। সেখানে নতুন করে নিজের মেকআপ ব্র্যান্ড আনলেন জনপ্রিয় এই নায়িকা। এবারের ল্যাকমে ফ্যাশন উইকে র‌্যাম্পে হাঁটলেন কারিনা। সেসময় তার পরনে ছিল মনীষা জয়সিংয়ের ডিজাইন করা নতুন পোশাক। এ ছাড়াও স¤প্রতি অভিনেত্রী

তার নতুন মেকআপ লাইন লঞ্চ করলেন, যার নাম ‘কারিনা কাপুর খান বাই ল্যাকমে অ্যাবসোলিউট’। নিজের মেকআপ লাইন লঞ্চ করার জন্য কারিনা ল্যাকমে ফ্যাশন উইককেই বেছে নিয়েছেন।

তিনি তার ব্র্যান্ডের ঘোষণা দিয়ে বলেন, ‘আমি ল্যাকমের একজন বিশেষ ব্যক্তিত্ব হিসেবে কাজ করে আসছি দীর্ঘদিন ধরে। এটি আমার এবং ভক্তদের জন্য খুবই স্পেশাল। আর সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ব্যাপার হচ্ছে, একজন নারীর সবচেয়ে ভালো বন্ধু তার মেকআপ।

ফ্যাশন মঞ্চে মা-মেয়ে

ড্রিম গার্ল হেমা মালিনী কন্যা এশা দেওলকে নিয়ে মাতিয়েছেন ফ্যাশন মঞ্চ। ল্যাকমে ফ্যাশন উইকের মঞ্চে ডিজাইনার সংযুক্তা দত্তের নকশা করা পোশাকে র‌্যাম্পে হাঁটেন হেমা মা ও মেয়ে। সিল্কের শাড়ি পরেছিলেন হেমা মালিনী। মাল্টি রংয়ের প্রিন্টে সাজানো শাড়িটি আসামের ঐতিহ্য তুলে ধরছিল। গয়নাতেও ছিল ঐতিহ্যের ছোঁয়া। বিছা, বালা, টিকলি, দুল ও নেকলেসে সেজেছিলেন এই ড্রিম গার্ল। বাঙালি সাজ পূর্ণ করেছিলেন লাল টিপে। এশা কোয়ার্টার হাতার গোলাপি ব্লুাউজ ও রূপালি স্কার্ট পরেছিলেন। পোশাকে ছিল প্রিন্টের বর্ডার। গুজরাটি স্টাইলে ওড়না নিয়েছিলেন উপরে। ওড়না আটকে রেখেছিলেন ভারি বিছায়। মায়ের তুলনায় কম গয়নাই পরেছিলেন এই অভিনেত্রী। টিকলি ও ব্রেসলেট পরেছিলেন এশা। কপালে ছিল লাল টিপ ও চুলে গাঁজরা।

সেলাই প্রশিক্ষণ নিয়েছেন আনুশকা

কাপড়ে এমব্রয়ডারির নকশা করার জন্য দুই মাস ধরে প্রশিক্ষণও নিয়েছেন আনুশকা। সেলাই শিখেছেন বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা। নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে সুঁই সুতা দিয়ে সেলাই করছেন এমন একটি ছবি পোস্ট দিয়ে বিষয়টি ভক্ত ও বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করেন আনুশকা। কাপড়ে এমব্রয়ডারির নকশা করার জন্য দুই মাস ধরে প্রশিক্ষণও নিয়েছেন এ অভিনেত্রী। ডেকান ক্রনিকলের প্রতিবেদনে জানানো হয়, আনুশকার এই সেলাই শেখার কারণ হচ্ছে, তার আগামী ছবি ‘সুঁই ধাগা’। এ ছবিতে তিনি একজন সেলাই কর্মীর চরিত্রে অভিনয় করছেন। যেখানে তার নাম মমতা। ছবিটিতে মমতার (আনুশকা) স্বামীর চরিত্রে অভিনয় করছেন বরুণ ধাওয়ান। এই প্রথম বরুণের সঙ্গে কোনো ছবিতে অভিনয় করছেন তিনি। ছবিটির গল্পে ফুটে উঠবে পোশাক শ্রমিকদের জীবন। তাই তার অভিনয়ে একজন দক্ষ পেশাদার সেলাই কর্মীর চরিত্রে ফুটিয়ে তোলার জন্যই এভাবে সেলাইয়ের চর্চা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj