বৈদেশ

রবিবার, ২৬ আগস্ট ২০১৮

দেশি লুকে…

সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে প্রিয়াঙ্কা-নিকের আনুষ্ঠানিক পথচলা শুরুর ঘোষণাটি চলেই এলো। গত ১৮ আগস্ট মুম্বাইয়ের একটি পাঁচতারকা হোটেলে দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠজন ও বন্ধুদের উপস্থিতিতে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও নিক জোনাসের ‘রোকা’ অনুষ্ঠিত হয়। আশীর্বাদ ও বাগদানের এই অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়েই এই বলিউড অভিনেত্রী ও মার্কিন গায়ক তাদের শুভ পরিণয়ের প্রথম ধাপটি পার করলেন। অনুষ্ঠানে একেবারেই দেশি লুকে ছিলেন ‘দেশি গার্ল’ খ্যাত প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

লেমন-ইয়োলো রঙের আনারকলি পরেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। রূপালি পাড়ের চমৎকার পোশাকটি নকশা করেছেন আবু জানি স›দ্বীপ খোসলা। পোশাকটির আগাগোড়া ছিল ঝলমলে ভারি কারুকাজে মোড়ানো। পায়ে রূপালি চটি পরেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। মেকআপেও একদম ছিমছাম ছিলেন এই অভিনেত্রী। ন্যুড মেকআপ ও চোখের হালকা স্মোকি সাজেই স্বাচ্ছন্দ্য ছিলেন পুরো অনুষ্ঠানে। গয়নার আধিক্যও ছিল না একদম।

মাঝখানে সিঁথি করে চুলগুলো ছেড়ে রেখেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। প্রিয়াঙ্কার পুরো স্টাইলিং করে দিয়েছেন অমি প্যাটেল। নিকও ঐতিহ্যবাহী দেশি সাজেই ছিলেন অনুষ্ঠানে। সিল্কের সাদা পায়জামা পাঞ্জাবি পরেছিলেন এই হবু বর।

পোশাক যখন সুরক্ষাকবচ

অনেক সময় রাসায়নিক ডাই করা পোশাক পরলে ত্বকের নানান সমস্যা হয়। তার কারণ রাসায়নিক ডাইয়ে যে টক্সিন রয়েছে তা পরিবেশের তো বটেই, আমাদের ত্বকেরও ক্ষতি করতে পারে। কিন্তু প্রাকৃতিক ডাইয়ে এ ধরনের কোনো টক্সিন থাকার ভয় নেই। উল্টো তা ত্বককে সুরক্ষা যোগায়। এভাবেই মঞ্জিষ্ঠা, অশোক, আমলকি, হরিতকিসহ আরো কতো জানা-অজানা গাছ-গাছড়া থেকে রং বের করে ফ্যাব্রিককে রঙিন করার পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। এমনকি ফ্যাব্রিককে হলুদ, নিম ও চন্দনের মতো অ্যান্টিসেপটিক ওষধি দিয়েও ডাই করা হচ্ছে। সেই পোশাক পরলে ত্বকের সমস্যা, বিশেষ করে ত্বকের জ্বালা ধরা ইত্যাদি থেকে রেহাই পাওয়া সম্ভব হয়। তবে চাইলেই যেকোনো রঙের ফ্যাব্রিক পাবেন না। পোশাকের রঙগুলো হালকা পিচ রঙের হয়।

হঠাৎ মাহিরা

মাহিরা খান সবসময়ই প্রশংসিত হয়েছেন তার চমৎকার ফ্যাশন সেন্সের কারণে। পাকিস্তানি এই অভিনেত্রীকে হঠাৎ দেখা গেল নিউইয়র্কের রোদ ঝলমলে রাস্তায়। রংধনুর সবগুলো রংই যেন ঘিরে রেখেছিল তাকে। চোখ ধাঁধানো ফিউশন আউটফিটটি দেখে হঠাৎ শাড়ি মনে হলেও শাড়ির সঙ্গে পুরোপুরি মেলানো যাবে না। ঐতিহ্যবাহী পোশাকের আধুনিক সংস্করণ বলা যেতে পারে পোশাকটিকে, শাড়ি থেকে ইন্সপায়ার্ড হয়ে পোশাকটির নকশা করেছেন পাকিস্তানের স্বনামধন্য ডিজাইনার সানা সাফিনাজ। লাল, গোলাপি, কালো, সবুজ, নীলসহ বিভিন্ন রঙের প্রিন্ট রয়েছে পোশাক জুড়ে। ফুলেল নকশাও চোখে পড়েছে। রংগুলোর সঙ্গে কন্ট্রাস্ট সাদা-কালো স্ট্রাইপ পোশাকে নিয়ে এসেছে ভিন্নতা। টিউব-টপ ব্লুাউজে ছিল অ্যাপ্লিকের কারুকাজ। ব্লুাউজের নীল রঙের এলোমেলো ফিতাও সাজে নিয়ে এসেছে বৈচিত্র্য। অনুসঙ্গ হিসেবে ছিল নীল ফিতার জুতা ও নীল দুল। মেকআপের আধিক্য না থাকলেও সাজে জমকালো ভাব নিয়ে এসেছে সানগøাস ও খোলা চুল।

ফটোশুটে ভিন্ন ঐশ্বরিয়া

ঐশ্বরিয়ার নতুন ছবি ‘ফ্যানে খান’ মুক্তি পেয়েছে। ধীর গতিতে এগুচ্ছে ছবির ব্যবসা। তবে তাতে ঐশ্বরিয়ার ক্যারিয়ারে তেমন আঁচড় লাগছে না। স¤প্রতি ‘ব্রাইডস টুডে’ নামের ব্রাইডাল এক ম্যাগাজিনের আগস্ট সংখ্যায় বর্ণিল ফটোশুটে দেখা গেল এই বিশ্বসুন্দরীকে। রালফ অ্যান্ড রুশো, জুহেইর মুরাদ, এলি সাব, এশি স্টুডিও, জর্জিও আরমানির মতো নামী সব ডিজাইনারদের ড্রেস পরেছেন তিনি ফটোশুটে। জর্জিও আরমানির গোলাপি গাউন পরেছলেন ঐশ্বরিয়া। নেটের গাউনটির সামনের অংশ ফুলেল আদলে তৈরি। এশি স্টুডিওর ডিজাইন করা সাদা গাউনে সাদা প্রজাপতির মতোই ক্যামেরায় ধরা পরেছেন ঐশ্বরিয়া। গলায় ছিলো ভারী নেকলেস।

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj