সোমবার, ১৩ আগস্ট ২০১৮

সুমি খান

সূর্যবার্তা নিউজ ডট কম সম্পাদক সুমি খান লেখালেখি শুরু করেন ১৯৮৫ সাল থেকে। সুমি খান নারী অধিকার, মানবাধিকার নিয়ে লেখালেখি করেছেন চট্টগ্রামের স্থানীয় দৈনিক আজাদী, পূর্বকোণে। লিখেছেন বর্ণবাদবিরোধী অনেক লেখাও। কাজ করেছেন দৈনিক যুগান্তর, সমকাল, ভোরের কাগজ, আমাদের সময়, সাপ্তাহিক ২০০০, বিডি নিউজ, একুশে টেলিভিশন, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন এবং সাপ্তাহিক সবুজবার্তা ও খবর বাংলা ডটকমের এডিটর হিসেবে। সাংবাদিকতার দীর্ঘ সময়ে তিনি নারী নির্যাতন নিয়ে একের পর এক রিপোর্ট করেন। লিখেন রাজনৈতিক বিভিন্ন ঘটনা নিয়েও। ২০০৫ সালে তিনি তিনটি আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করেন। সৎ সাংবাদিকতা ও প্রেস ফ্রিডমের জন্য এ পুরস্কারগুলো পান তিনি। সেগুলো হলো, ইনডেক্স গার্ডিয়ান হুগো ইয়ং অ্যাওয়ার্ড, ইন্টারন্যাশনাল উইমেন মিডিয়া ফাউন্ডেশনের আই ডব্লিউ এম এফ ক্যারেজ অ্যাওয়ার্ড ও কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্ট সিপিজে অ্যাওয়ার্ড। এ ছাড়া পেয়েছেন আরো অসংখ্য পুরস্কার।

সুমি জানান, কর্মক্ষেত্রে তিনি লিঙ্গ বৈষম্যর শিকার হয়েছিলেন। তিনি বলেন, এখন পরিস্থিতি অনেক বদলে গেছে। দেশে সংবাদ স্বাধীনতা তো বটেই, সাংবাদিকদের নিরাপত্তার নিশ্চয়তাও আগের তুলনায় বেশি সুরক্ষিত হয়েছে এবং অনুক‚ল এ পরিবেশে পরস্পর সহযোগিতায় কাজ করতে পারলে সাফল্য নিশ্চয়ই আসবে। অনলাইন পত্রিকা সম্পাদনা করতে গিয়ে বারবার হ্যাকিং, আর্থিক সংকটসহ বিভিন্ন প্রতিকূলতার মুখোমুখি হয়েছি। সাংবাদিকতায় পেশাদারিত্ব প্রতিষ্ঠা বর্তমান সময়ে দুরূহ কাজ। তবু আমাদের ছোট্ট টিম পেশাদারিত্ব নিয়েই কাজ করে যাচ্ছে।

আইরীন নিয়াজী মান্না

দেশের প্রথম নারীবিষয়ক সংবাদভিত্তিক অনলাইন কাগজ উইমেননিউজ২৪ডটকমের সম্পাদক আইরীন নিয়াজী মান্না। ২০১১ সালের ২২ ডিসেম্বর থেকে এই অনলাইন পত্রিকার পথচলা শুরু। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজ বিজ্ঞানের স্নাতকোত্তর এই সাংবাদিক বাংলাদেশ বার্ডওয়াচার সোসাইটির আহ্বায়ক, দেশের জনপ্রিয় শিশুতোষ পত্রিকা ‘কিশোর লেখা’র সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যনির্বাহী কমিটির ‘নারী বিষয়ক সম্পাদক’ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। দেশের বিভিন্ন প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান থেকে তার ১৩টি বই প্রকাশিত হয়েছে। সাংবাদিক পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য উইমেন জার্নালিস্ট এওয়ার্ড, দুইবার ইউনেস্কো বাংলাদেশ জার্নালিস্ট এওয়ার্ড, এসিড সার্ভাইবার ফাউন্ডেশন (এএসএফ) বেস্ট মিডিয়া এওয়ার্ড, মীনা এওয়ার্ডসহ প্রায় দশটি পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।

মান্না সাংবাদিকতা শুরু করেন ১৯৯৮ সালে। দৈনিক মানবজমিন, মাতৃভূমি, ভোরের কাগজ, সমকাল এবং চীন আন্তর্জাতিক বেতারের বাংলা বিভাগে ‘ফরেন এক্সপার্ট হিসেবে বেইজিংয়েও কাজ করেছেন। দীর্ঘদিন বেইজিংয়ে সাংবাদিকতা করে দেশে ফিরে বর্তমানে তিনি ‘উইমেননিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম’ এর সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।

মান্না বলেন, দীর্ঘ এ পথপরিক্রমায় আমরা অনেককে সঙ্গে পেয়েছি। অনেকের সহযোগিতা পেয়েছি। অনেকের পাশে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দাঁড়াতে পেরেছি। আমাদের একটিই ¯েøাগান ‘ঊয়ঁধষরঃু ভড়ৎ ধষষ’। উইমেননিউজকে দেশের নারীসমাজের একটি ছাতা হিসেবে দাঁড় করাতে চাই আমরা। একই ছাতার নিচে থেকে আমরা সবাই এক সঙ্গে কাজ করব- এই আমাদের প্রত্যাশা। এই পত্রিকার মাধ্যমে দেশ-বিদেশে ছড়িয়ে থাকা নারীদের সুখ-দুঃখ, হাসি-কান্না, সফলতা-ব্যর্থতার গল্পগুলো আমরা ছড়িয়ে দিতে চাই সব পাঠকের সামনে। উচ্চবিত্ত নারী থেকে শুরু করে একজন গার্মেন্ট শ্রমিক কিংবা পথে খেটে খাওয়া মেয়েটিকেও আমরা গুরুত্ব দেই একইভাবে। নারীর অধিকার ও উন্নয়নের জায়গাগুলো আমরা দেখিয়ে দিতে চাই সমাজ উন্নয়নের কারিগরদের। কারো বিরুদ্ধে গিয়ে নয়, বরং সবাইকে এক সঙ্গে নিয়ে সামনের পথে সফলতার সঙ্গে এগিয়ে যেতে চাই। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে উইমেননিউজকে নিয়ে যেতে চাই শীর্ষপর্যায়ে। ভবিষ্যতে উইমেননিউজকে নারীদের একটি প্লাটফর্মে পরিণত করতে চাই।

সাকিলা পারভীন রুমা

সংসদ ভিত্তিক অনলাইন পত্রিকা ‘পার্লামেন্টনিউজবিডিডটকম’ সম্পাদক সাকিলা পারভীন রুমা। সালটা ১৯৯৮-৯৯। ¯œাতক (সম্মান) শ্রেণিতে পড়ার সময় রুমার সঙ্গে পরচিয় হয় বিবিসি ও দৈনিক সংবাদের তৎকালীন খুলনা প্রতিনিধি নির্ভীক সাংবাদিক মানিক চন্দ্র সাহার সঙ্গে। তার সহচার্যেই বিভিন্ন পত্রিকায় ফিচার লিখতে শুরু করেন রুমা। আনুষ্ঠানিক সাংবাদিকতা শুরু করেন ২০০০ সালে খুলনা থেকে প্রকাশিত দৈনিক বঙ্গবাণী পত্রিকায় স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে। এরপর আঞ্চলিক বিভিন্ন পত্রিকায় কাজ করার পাশাপাশি তিনি মানিক সাহার সহকারী হিসেবে দৈনিক সংবাদের খুলনা অফিসেও কাজ করেন। একইসঙ্গে প্রথম আলো, ভোরের কাগজসহ বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকের ফিচার পাতায় নিয়মিত লেখালেখিও চালিয়ে যান। মানিক সাহার নৃশংস হত্যাকাণ্ডের পর জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় থাকা অনেক সাংবাদিকের মতো তিনিও খুলনা ছাড়তে বাধ্য হন। ২০০৫ সাল থেকে জাতীয় সাপ্তাহিক ‘একতা’ পত্রিকায় কাজ শুরু করেন। পাশাপাশি চলে ফ্রিল্যান্স সাংবাদিকতা। বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকায়ও কাজ করেন। ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। গত বছর দেশে অনুষ্ঠিত কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি এসোসিয়েশনে (সিপিএ) সম্মেলনে কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর আইন প্রণেতাসহ সম্মেলনে আগত প্রতিনিধিদের কাছে বাংলাদেশ ও জাতীয় সংসদকে তুলে ধরার ক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা রেখেছে ‘পার্লামেন্টনিউজবিডি ডটকম’।

নিজের অনলাইন সম্পর্কে রুমা বলেন, দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতি, রাজনীতি সব কিছুর কেন্দ্রবিন্দু জাতীয় সংসদ। গত বছর অনুষ্ঠিত ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের (আইপিইউ) সম্মেলন থেকে একটি বিশেষায়িত গণমাধ্যমের তাগিদ অনুভব করি। এরপর স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর অনুপ্রেরণা ও সংসদ বিষয়ক রিপোর্টিংয়ে দায়িত্ব পালনরত কয়েকজন সহকর্মীর সহযোগিতায় ‘পার্লামেন্টনিউজবিডি ডটকম’ প্রকাশ করি। যেখানে সংসদ বিষয়ক সব সংবাদ থাকছে। এখন আর পত্রিকার জন্য অপেক্ষা নয়। বিশ্বের যে কোনো স্থান থেকে চাইলে যে কেউ নিজের মোবাইলের স্কিনে সংসদ বিষয়ক সব সংবাদ দেখে নিতে পারেন। তিনি আরো বলেন, বর্তমানে বাংলা সংস্করণ চালু রয়েছে। ইংরেজি সংস্করণের কাজ চলছে। আর অনিয়মিত প্রিন্ট সংস্করণ প্রতি সপ্তাহে করার পরিকল্পনা রয়েছে। পৃষ্ঠপোষকতা পেলে দ্রুতই সেই লক্ষ্য অর্জন সম্ভব হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

অন্যপক্ষ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj