স্মার্টহোম ডিভাইস

রবিবার, ১২ আগস্ট ২০১৮

চলতি বছর স্মার্টহোম ডিভাইস সরবরাহ ৫৪ কোটি ৯৫ লাখ ইউনিটে পৌঁছাবে, যা গত বছরের চেয়ে ২৬ দশমিক

৮ শতাংশ বেশি। বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ডাটা করপোরেশন (আইডিসি) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এমনটাই পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে। খবর বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড।

বৈশ্বিক স্মার্টহোম ডিভাইস বাজারে স্মার্ট স্পিকার, ডিজিটাল মিডিয়া অ্যাডাপ্টার, স্মার্ট লাইটিং, থার্মোস্ট্যাটসহ বেশকিছু প্রযুক্তিপণ্যের চাহিদা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। চলতি বছর মোট যতসংখ্যক স্মার্টহোম ডিভাইস সরবরাহ হবে, তার মধ্যে ৭১ শতাংশই থাকবে স্মার্ট স্পিকার এবং ভিডিও এন্টারটেইনমেন্ট পণ্য।

২০১৮-২২ সাল পর্যন্ত এ দুই ধরনের স্মার্টহোম ডিভাইস বিক্রিতে বার্ষিক ১২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি আসবে।

আইডিসির জ্যেষ্ঠ গবেষণা বিশ্লেষক জিতেশ উবরানি বলেন, ২০২২ সাল নাগাদ ভিডিও এন্টারটেইনমেন্ট ক্যাটাগরিতে স্মার্ট টিভি ও ডিজিটাল মিডিয়া অ্যাডাপ্টার স্মার্টহোম ডিভাইস বাজারের বৃহৎ অংশ দখলে নেবে। কারণ এ ধরনের ডিভাইসের চাহিদা দ্রুত বাড়ছে।

বাসাবাড়ির শৌখিন আসবাব হিসেবে স্মার্ট টিভি বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে। ডিভাইস এবং সংশ্লিষ্ট সেবা প্লাটফর্ম নির্মাতারাও গ্রাহক টানতে বহুমুখী কার্যক্রম চালাচ্ছে। ক্রমবর্ধমান চাহিদার কথা বিবেচনা করে স্মার্ট টিভির

মতো হোম ডিভাইসে ভার্চুয়াল সহকারী বা স্মার্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট যুক্ত করতে কাজ করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, বৈশ্বিক স্মার্টহোম ডিভাইস বাজারে ভার্চুয়াল সহকারী বা স্মার্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রযুক্তি-সংবলিত ডিভাইস গ্রাহক পছন্দের শীর্ষে রয়েছে। বর্তমানে স্মার্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রযুক্তি খাতে নেতৃত্ব দিচ্ছে মার্কিন ই-কমার্স জায়ান্ট অ্যামাজন নির্মিত অ্যালেক্সা। তবে খাতটিতে ভবিষ্যতে গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট আধিপত্য বিস্তার করবে বলে আশা করা হচ্ছে। গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যান্ড্রয়েডচালিত স্মার্টফোন ও স্মার্ট স্পিকার ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের প্রযুক্তিপণ্যে ব্যবহারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। অ্যান্ড্রয়েড ফোন নির্মাতাদের গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রযুক্তি সরবরাহ করবে গুগল। স্মার্টফোনের পর স্মার্ট টিভিতে গুগল অ্যাসিস্ট্যান্টের চাহিদা বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

বিশ্লেষকদের তথ্যমতে, ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট-সংবলিত স্মার্ট টিভি এবং ডিজিটাল মিডিয়া অ্যাডাপ্টারের সরবরাহ তুলনামূলকভাবে এখনো অনেক কম হচ্ছে। তবে স্মার্ট স্পিকার সরবরাহ এরই মধ্যে ইতিবাচক পর্যায়ে পৌঁছেছে। কোন কোম্পানির উন্নয়নকৃত স্মার্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রথম বাসাবাড়িতে ব্যবহৃত ইন্টারনেট সংযুক্ত পণ্যে সবচেয়ে বেশি ব্যবহার হবে, তা নিয়ে এক ধরনের প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। এ প্রবণতা ভবিষ্যতে আরো বেশিসংখ্যক কোম্পানিকে স্মার্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রযুক্তি সমর্থিত এন্টারটেইনমেন্ট ডিভাইস তৈরিতে অনুপ্রাণিত করবে। অ্যামাজন এরই মধ্যে তাদের অ্যালেক্সা সমর্থিত ফায়ার টিভি কিউব উন্মোচন করেছে। দক্ষিণ কোরিয়াভিত্তিক এলজি চলতি বছর গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট সমর্থিত ওএলইডি ও সুপার ইউএইচডি এলসিডি টিভি বাজারে আনবে।

আইডিসির কনজিউমার আইওটি প্রোগ্রামের জ্যেষ্ঠ গবেষণা বিশ্লেষক অ্যাডাম রাইট বলেন, বৈশ্বিক স্মার্ট স্পিকার বাজারে আধিপত্য বিস্তারের প্রতিযোগিতা তীব্র আকার ধারণ করেছে। স্মার্ট স্পিকার ডিভাইসকে ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়ানোর প্রাথমিক অনুষঙ্গ মনে করা হচ্ছে। অ্যামাজন, গুগল এবং প্রযুক্তি কোম্পানি অ্যাপল সে অনুযায়ী বিপণন কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

বৈশ্বিক স্মার্ট স্পিকার বাজারের সিংহভাগ দখলে রেখেছে অ্যালেক্সা সমর্থিত ডিভাইস। গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট বাজার দখলে দ্রুত অ্যালেক্সার সঙ্গে দূরত্ব কমিয়ে আনছে। অন্যদিকে ভার্চুয়াল সহকারী প্রযুক্তি সমর্থিত হোমপড বিক্রি এবং সরবরাহে খুব একটা ভালো অবস্থানে নেই অ্যাপল। সিরি সমর্থিত হোমপড চড়া মূল্যের কারণে অ্যালেক্সা ও গুগল অ্যাসিস্ট্যান্টের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়ছে বলে মনে করা হচ্ছে। আইডিসির তথ্যমতে, স্মার্ট স্পিকার ও ভিডিও এন্টারটেইনমেন্ট-সংশ্লিষ্ট স্মার্টহোম ডিভাইস ছাড়াও ভবিষ্যতে বাসাবাড়িতে নজরদারি করার স্মার্ট ডিভাইসের চাহিদা বাড়বে। ইন্টারনেট সংযুক্ত প্রযুক্তিপণ্যের মাধ্যমে বাসাবাড়িতে নজরদারির ডিভাইস আনতে স¤প্রতি রিং নামে একটি প্রতিষ্ঠান অধিগ্রহণ করেছে অ্যামাজন।

২০২২ সাল নাগাদ ইন্টারনেট সংযুক্ত থার্মোস্ট্যাট, স্মার্ট লাইটিং এবং অন্যান্য স্মার্টহোম পণ্যের ক্ষেত্রে ২৫ দশমিক ৩ শতাংশ বিক্রি প্রবৃদ্ধির আশা করা হচ্ছে। সূত্র : ইন্টারনেট

:: ডটনেট ডেস্ক

ডট নেট'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj