একক গ্রাহক ঋণসীমা থেকে ছাড় পাচ্ছে আইসিবি

শুক্রবার, ১৩ জুলাই ২০১৮

কাগজ প্রতিবেদক : পুঁজিবাজারে রাষ্ট্রায়ত্ত ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশনের (আইসিবি) বিনিয়োগ সক্ষমতা বাড়াতে ব্যাংকের একক গ্রাহক ঋণসীমায় (সিঙ্গেল পার্টি এক্সপোজার) ছাড় দেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। গত ১৮ জুন এক চিঠিতে অর্থমন্ত্রী শেয়ারবাজারে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগ গণনা সহজ ও শেয়ারবাজারবান্ধব করতে গৃহীত পাঁচটি সিদ্ধান্ত এবং সংকটকালীন রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বিনিয়োগ সংস্থা আইসিবি যাতে বিনিয়োগ বাড়িয়ে পরিস্থিতি সামাল দিতে পারে, তার জন্য এর সক্ষমতা বাড়াতে ‘একক গ্রাহক ঋণসীমা’ সংক্রান্ত বিধি থেকে অব্যাহতি দেয়ার সিদ্ধান্ত কার্যকরের জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংক গভর্নরকে অনুরোধ জানিয়েছেন।

এর পরিপ্রেক্ষিতে জুন মাসের শেষদিকে গভর্নর ফজলে কবীর অর্থমন্ত্রীর কাছে দেয়া এক চিঠিতে জানিয়েছেন, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ সক্ষমতা বাড়াতে আইসিবিকে ব্যাংকের একক গ্রাহক ঋণসীমা থেকে অব্যাহতি দেয়া হবে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা জানান, তবে ব্যাংকের স্বার্থে অন্য ৫ সুপারিশ এখনই মানা সম্ভব হবে না। ব্যাংক কোম্পানি আইন ১৯৯১ অনুযায়ী, একটি ব্যাংক তার পরিশোধিত মূলধনের সর্বোচ্চ ১৫ শতাংশ কোনো একক গ্রাহককে ঋণ দিতে পারবে। কিন্তু আইসিবিকে ঋণ দেয়ার ক্ষেত্রে বেশকিছু ব্যাংক এ সীমা লঙ্ঘন করেছে। তাই কেন্দ্রীয় ব্যাংক এ বছরের জুনের মধ্যে অতিরিক্ত ঋণ সমন্বয়ের জন্য নির্দেশ দিয়েছিল।

উল্লেখ্য, চিঠিতে অর্থমন্ত্রী উল্লেখ করেন, এ কারণে গত পাঁচ থেকে ছয় মাস শেয়ারবাজারের সূচক ও লেনদেন ক্রমাগত কমছে। সূচক কমেছে প্রায় এক হাজার পয়েন্ট। শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি নানা সংস্কারমূলক পদক্ষেপ নিলেও দরপতন থামছে না।

এতে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন, হারাচ্ছেন মূলধন। এ অবস্থায় অর্থ মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক, বিএসইসি, আইসিবিসহ সংশ্লিষ্ট শীর্ষ কর্মকর্তাদের নিয়ে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ও ১৩ মার্চের সিদ্ধান্তগুলো দ্রুত বাস্তবায়নের তাগিদ দিয়ে চিঠিতে গভর্নর ফজলে কবিরের ব্যক্তিগত হস্তক্ষেপ কামনা করেছেনওকে

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj