পৃথক স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৬

শুক্রবার, ১৩ জুলাই ২০১৮

সারা দেশ ডেস্ক : বিভিন্ন স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। ভোরের কাগজ প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ :

দুর্গাপুর (রাজশাহী) : দুর্গাপুর গোপালপুর গ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় রিপন নামে (১১) এক স্কুলপড়–য়া শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সে উপজেলার গোপালপুর জোয়াদ্দার পাড়া গ্রামের মহিদুল ইসলামের ছেলে। নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার সকালে রিপন বাইসাইকেলযোগে স্কুলে যাচ্ছিল। পথে জোয়াদ্দার পাড়া ফকিরের মাজার সংলগ্ন রাস্তায় একটি ভটভটি তাকে চাপা দিয়ে চলে যায়। এ সময় শিশুটি ঘটনাস্থলেই মারা যায়। রিপন গোপালপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

এ বিষয়ে দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি আব্দুল মোতালেব জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় একটি শিশু মারা যাওয়ার কথা শুনেছি। তবে কেউ থানায় কোনো অভিযোগ নিয়ে আসেনি। তবে তারা স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করেছে বলে জানান ওসি।

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) : পিকআপের সঙ্গে ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছেন। গত বুধবার সকালে উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের আধুরিয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। জেলার নড়িয়া থানার আব্দুর রহমানের ছেলে আবিদ হাসান।

কাঁচপুর হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক সামসুল আলম জানান, বুধবার সকালে উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের আধুরিয়া এলাকায় একটি ট্রাকের সঙ্গে মিনি পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় ঘটনাস্থলেই পিকআপ ভ্যানটির মালিক মিজানুর ও চালক আবিদ হাসানের মৃত্যু হয়। ট্রাকটিকে আটক করা হলেও চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়।

কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাইয়ুম আলী সরদার জানান, পিকআপ ভ্যানটির মালিক নিহত মিজান হাওলাদার পটুয়াখালী জেলার দুমকি থানার উত্তর মুরাদিয়া এলাকার সাইজদ্দিন হাওলাদারের ছেলে ও আবিদ হাসান চালক শরিয়তপুর জেলার নড়িয়া থানার আনাখন্দ এলাকার আব্দুর রহমানের ছেলে।

এ দিকে বুধবার সকালে একই উপজেলার কুশাবো এলাকায় এশিয়ান হাইওয়ে সড়কে দুটি কাভার্ড ভ্যান ও একটি ট্রাকের মধ্যে ত্রিমুখী সংঘর্ষে ৪ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান রূপগঞ্জ থানার ওসি মনিরুজ্জামান।

চকরিয়া (কক্সবাজার) : কক্সবাজারের চকরিয়ায় যাত্রীবাহী বাস ও নোহা গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে ২ জন নিহত হয়েছেন। এ সময় উভয় গাড়ির অন্তত ১০ জন যাত্রী আহত হন। বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়া উপজেলার খুটাখালীর ফুলছড়ি দরগা গেট রাস্তার মাথা নামক এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার খুটাখালীর ফুলছড়ি দরগা গেট নামক এলাকায় চট্টগ্রামমুখী স্টার লাইন বাসের সঙ্গে কক্সবাজারমুখী পোনা মাছবাহী গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে চালক ও সহকারী নিহত হন। নিহতরা হলেন- যশোর জেলার চাঁচড়া ইউনিয়নের লিটন (২৮) ও একই এলাকার মতিয়ারের ছেলে সাইদুর রহমান (৩০)। এ সময় উভয়গাড়ির কমপক্ষে ১০ জন যাত্রী আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে চকরিয়ার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করেছে। মুমূর্ষু অবস্থায় বাবু নামের একজনকে মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রিস্টান হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশের এসআই জসিম উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে দুর্ঘটনাস্থল থেকে গাড়ি ২টি জব্ধ করা হয়েছে। নিহতের লাশ হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়িতে আনা হয়েছে। পরে হাইওয়ে পুলিশ নিহতের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে লাশ জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

শ্রীপুর শহর (গাজীপুর) : শ্রীপুরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুজনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার সকাল ৯টায় উপজেলার গোসিংগা ইউনিয়নের কর্ণপুর ও দুপুর ২টায় শ্রীপুর পৌরসভার মাওনায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- গোসিংগা ইউনিয়নের গুচ্ছগ্রামের মৃত রমিজ উদ্দিনের স্ত্রী হাজেরা খাতুন এবং বরিশাল সদর উপজেলার চানপাড়া গ্রামের মাহবুব হোসেনের ছেলে রাজিব সিকদার মোহন (২৮)।

শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক কায়সার আহমেদ জানান, শ্রীপুর- গোসিংগা সড়কের কর্ণপুর বড়দিঘি এলাকায় সড়ক পারাপারের সময় একটি অটোরিকশা চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই হাজেরা খাতুন মারা যান। কোনো অভিযোগ না থাকায় আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

অপরদিকে, মাওনা হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হুমায়ুন কবির জানান, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের মাওনা উড়াল সেতুর প্রবেশমুখে মহাসড়ক পার হওয়ার সময় রাজিব পরিবহনের একটি বাস রাজিব শিকদার মোহনকে চাপা দিলে গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মাওনা চৌরাস্তার আলহেরা হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান। পুলিশ গাড়িটি আটক করতে পারলেও চালক পালিয়ে যায়।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj