বিশ্বকাপের ৯ জাঁদরেল কোচ

শুক্রবার, ১৫ জুন ২০১৮

নূরুজ্জামান শুভ : বাইশজন খেলোয়াড় মাঠের ভেতর একটি বল নিয়ে দৌড়াদৌড়ি করে। এ দৌড়ের পেছনে কলকাঠি নাড়েন যিনি তার নাম প্রশিক্ষক। ডাগআউটের যারা থাকেন তারাই মূলত ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন তাদের মস্তিষ্কের উর্বর ক্ষমতাবলে। রাশিয়া বিশ্বকাপের জাঁদরেল নয় কোচের কথা না বললে নয়। চলুন শোনা যাক তাদের কথা।

তিতে : রাশিয়া বিশ^কাপে নেইমারদের কোচের দায়িত্ব পালন করবেন তিতে। তিতের জন্ম ১৯৬১ সালের ২৫ মে ব্রাজিলের ক্যাক্সিয়াসে। ২০১৪ সালের বিশ^কাপে কার্লোস ডুঙ্গার অধীনে ব্রাজিলিয়ানদের ব্যর্থতা এবং বিশ^কাপ পরবর্তী সময়েও ডুঙ্গার অধীনে তেমন কোনো সাফল্য না পাওয়ায় ২০১৬ সালের ২০ জুন তিতের ওপর ব্রাজিল জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব দেয় ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশন। তিতের অধীনে বাছাইপর্বে দারুণ খেলেছে ব্রাজিল। সবার আগে জায়গা করে নিয়েছে বিশ^কাপের মূল পর্বে। তিতের অধীনে এখন পর্যন্ত ২০টি ম্যাচ খেলে ১৬টিতেই জয় পেয়েছে ব্রাজিল। এ ছাড়া ড্র করেছে ৩টি এবং হেরেছে মাত্র ১টি ম্যাচ। ব্রাজিল জাতীয় দল ছাড়াও ক্যারিয়ারে বহু ক্লাবের কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

জর্জ সাম্পাওলি : জর্জ সাম্পাওলির অধীনেই তৃতীয় শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে রাশিয়া বিশ^কাপে খেলতে যাচ্ছে মেসিরা। জর্জ সাম্পাওলির জন্ম ১৯৬০ সালের ১৩ মার্চ আর্জেন্টিনার ক্যাসিলডা নামক এলাকায়। ২০১৭ সালের ১ জুন আর্জেন্টিনার কোচের দায়িত্ব নেন তিনি। এখন পর্যন্ত তার অধীনে ১১টি ম্যাচ খেলেছে মেসিরা। যেখানে জিতেছে ৬টি ম্যাচ। এ ছাড়া ড্র করেছে ৩টি ম্যাচ এবং হেরেছে বাকি ২টি ম্যাচ। আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব নেয়ার আগে ২০১২ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত চিলির জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন সাম্পাওলি। এ ছাড়া স্প্যানিশ ক্লাব সেভিয়াসহ আরো বেশ কয়েকটি ক্লাবের কোচ হিসেবে বেশ সফল এ আর্জেন্টাইন কোচ।

অস্কার তাবারেজ : উরুগুয়ের কোচ অস্কার তাবারেজের জন্ম ১৯৪৭ সালের ৩ মার্চ উরুগুয়ের মন্টেভিডিওতে। ২০০৬ সাল থেকে উরুগুয়ের কোচের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। অবশ্য এর আগে ১৯৮৮ সাল থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত উরুগুয়ের কোচের দায়িত্বে ছিলেন তাবারেজ। তার অধীনে বিশ^কাপের বাছাইপর্বে বেশ ভালো খেলেছে সুয়ারেজরা। দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইপর্বে দ্বিতীয় স্থানে থেকে রাশিয়ার টিকেট পেয়েছে তারা। ২০০৬ সালে দ্বিতীয় মেয়াদে উরুগুয়ের কোচের দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত অস্কার তাবারেজের অধীনে ১৫১টি ম্যাচ খেলেছে দলটি। যেখানে জিতেছে ৭৩টি ম্যাচে। এ ছাড়া হেরেছে ৩৯টি ম্যাচে এবং ড্র করেছে বাকি ৩৯টি ম্যাচ। অস্কার তাবারেজের অধীনেই ২০১০ বিশ^কাপের সেমিফাইনালে খেলেছে উরুগুয়ে।

হোসে পেকারম্যান : কলম্বিয়ার কোচ হোসে পেকারম্যানের জন্ম ১৯৪৯ সালের ৩ সেপ্টেম্বর আর্জেন্টিনার ভিয়া ডোমিনগুইজে। ২০১২ সাল থেকে কলম্বিয়া জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। তার অধীনে ২০১৪ সালের ব্রাজিল বিশ^কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছে কলম্বিয়া। এখন পর্যন্ত হোসে পেকারম্যানের অধীনে কলম্বিয়া ৭৩টি ম্যাচ খেলেছে। যেখানে জয় পেয়েছে ৪০টি ম্যাচে এবং হেরেছে ১৪টি ম্যাচে। এ ছাড়া ড্র করেছে বাকি ১৯টি ম্যাচ। কলম্বিয়ার কোচের দায়িত্ব নেয়ার আগে ২০০৪ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

রিকার্ডো গারেকা : পেরুর কোচ রিকার্ডো গারেকার জন্ম ১৯৫৮ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি আর্জেন্টিনার টাপিয়ালেসে। ২০১৫ সালে পেরুর জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব নেন তিনি। দায়িত্ব নেয়ার পর পেরুর ফুটবলকে যেন ক্রমেই বদলে দিতে শুরু করেন রিকার্ডো গারেকা। দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইপর্বের কঠিন বাধা পার হয়ে পেরুর বিশ^কাপের মূল পর্বে উঠে আসার পেছনে মূল অবদান নিঃসন্দেহে রিকার্ডো গারেকার। পেরু সর্বশেষ বিশ^কাপে খেলেছে ১৯৮২ সালে। বাছাইপর্বের ধারাবাহিকতা ধরে রেখে বিশ^কাপের মূল পর্বে চমক দেখাতে চান এ আর্জেন্টাইন কোচ।

জোয়াকিম লো : শিরোপা ধরে রাখা এবং পঞ্চম শিরোপা জয়ের লক্ষ্য নিয়ে জোয়াকিম লোর অধীনে রাশিয়া বিশ^কাপে অংশ নিতে যাচ্ছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জার্মানি। জোয়াকিম লোর জন্ম ১৯৬০ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি পশ্চিম জার্মানির শোহোনোতে। কোচ হিসেবে ক্যারিয়ারের শুরুতে বেশ কয়েকটি ক্লাবের কোচের দায়িত্ব পালন করেছে তিনি। জোয়াকিম লো জার্মান জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব নেন ২০০৬ সালের ১২ জুলাই। জার্মানির ফুটবল ইতিহাসের সফলতম কোচ হিসেবে নির্দ্বিধায় তার নাম উচ্চারণ করেন অনেক ফুটবল বিশ্লেষক। কেননা তার অধীনে ২০১০ সালের বিশ^কাপের সেমিফাইনালে খেলেছে জার্মানি। এ ছাড়া জিতেছে ২০১৪ সালের ব্রাজিল বিশ^কাপের শিরোপা। তাছাড়া তার অধীনে আরো অনেক বড় টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেছে জার্মানি। এখন পর্যন্ত জোয়াকিম লোর অধীনে ১৬১টি ম্যাচ খেলে ১০৬টিতেই জিতেছে জার্মানি। এ ছাড়া হেরেছে ২৫টি ম্যাচে এবং ড্র করেছে ৩০টি ম্যাচ।

রবার্টো মার্টিনেজ : বেলজিয়ামের কোচ রবার্টো মার্টিনেজের জন্ম ১৯৭৩ সালের ১৩ জুলাই স্পেনের বালাগুয়েরেতে। ক্যারিয়ারের শুরুতে ইংলিশ ক্লাব সোয়েন্সি সিটি এবং এভারটেেনর মতো ক্লাবের কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। রবার্টো মার্টিনেজ বেলজিয়ামের কোচের দায়িত্ব নেন ২০১৬ সালের ৩ আগস্ট। তার অধীনে ইউরোপের মতো কঠিন অঞ্চলের বাছাইপর্বের বাধা পার হয়ে রাশিয়া বিশ^কাপের টিকেট পেয়েছে বেলজিয়াম। রবার্টো মার্টিনেজের অধীনে এখন পর্যন্ত ১৮টি ম্যাচ খেলে ১২টিতেই জিতেছে এডেন হ্যাজার্ডরা। এ ছাড়া ড্র করেছে ৫টি এবং হেরেছে ১টি ম্যাচ।

জøাতকো ড্যালিক : ক্রোয়েশিয়ার কোচ জøাতকো ড্যালিকের জন্ম ১৯৬৬ সালের ২৬ অক্টোবর যুগো¯øাভিয়াতে। ক্যারিয়ারের শুরুতে বেশ কয়েকটি ক্লাবের কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। ক্লাবের কোচ হিসেবে তার সাফল্য বিবেচনা করে ২০১৭ সালের ৭ অক্টোবর জøাতকো ড্যালিককে ক্রোয়েশিয়ার কোচের দায়িত্ব দেয় দেশটির ফুটবল ফেডারেশন। দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত তার অধীনে মাত্র ৬টি ম্যাচ খেলেছে ক্রোয়েশিয়া। যেখানে জয় পেয়েছে ৩টিতে। এ ছাড়া হেরেছে ২টি ম্যাচ এবং ড্র করেছে বাকি ১টি ম্যাচ।

আগে হারেইদে : ডেনমার্কের কোচ আগে হারেইদের জন্ম ১৯৫৩ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর নরওয়েতে। ক্যারিয়ারের শুরুতে স্থানীয় বেশ কয়েকটি ক্লাবের কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। ক্লাব পর্যায়ে তার সাফল্য বিবেচনা করে ২০০৩ সালে তাকে নরওয়ের জাতীয় দলের কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয় দেশটির ফুটবল ফেডারেশন। ৫ বছর নরওয়ের কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। আগে হারেইদে ডেনমার্কের কোচ হিসেবে নিয়োগ পান ২০১৬ সালের মার্চের ১ তারিখ।

আরও সংবাদ...'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj