সারিতা চৌধুরী : অবহেলা

শুক্রবার, ১৫ জুন ২০১৮

তুমি এত পরিমাণ অবহেলা করেছো, যে এখন অবহেলার সাথে আমার প্রেম হয়ে গেছে।

ভালোবাসায় মান-অভিমান থাকে সেটা পূরণ হয়ে যায়, সমাধান করে ফেলা যায় ভালোবাসা দিয়ে।

কিন্তু অবহেলা আর অবিশ্বাসকে সমাধান করা সম্ভব না।

আমি ভেবেছি আমার যতই আত্মসম্মান বোধ থাকুক,

কিন্তু তোমার থেকে তা আমার জীবন এ বড় নয়।

তাই আত্মসম্মানকে পায়ে পিষে তোমার ভুল ভাঙাতে আমি ছুটছি পাগলের মতো।

আমি ক্লান্ত, শান্ত, নিঃশেষ প্রায়।

কিন্তু তোমার চোখের সেই অবিশ্বাসের লেলিহান শিখা,

আমার জীবনের কোনো আনন্দকে পুরো আনন্দিত হতে দেয় না।

কারণ আমি তোমার চোখে দেখেছি আমার ভালোবাসার দুনিয়া,

যেখানে সব থাকবে শুধু থাকবে না অবহেলা, আর অবিশ্বাসের অভিশাপ।

কিন্তু বারবার তোমার কাছ থেকে তিক্ততা পেয়ে বুঝতে পারছি না আমি কি করব?

কি করা উচিত আমার?

তোমাকে ভুলে যাব?

তা যে অসম্ভব!

তাহলে নিজেকে বিন্দু বিন্দু করে শেষ করে দিব?

তা আমার করা সম্ভব।

যদি তাতে তোমার তিক্ততা কমে, তাহলে তাই মেনে নিলাম আমি।

চাই না এমন জীবন, যেখানে তুমি হীন আমি শূন্যতার ভার এ জীবিত থাকব।

আমি চাই সমাপ্তি, অসমাপ্ত জীবনের সমাপ্তি।

প্রতিবার আমি ফিরেছি, তোমার অভিমান ভেঙেছি, এবারও ফিরেছিলাম।

তুমি আমার ফেরা আসলে চাওনি। তুমি তোমার দুনিয়া নিয়ে আনন্দ কর, ভালো থাক

আমি হীনা, তুমি থাকতে পারবে জানি। কিন্তু তুমি হীনা আমি শূন্য।

জয় হবে তোমার চাওয়ার, আমার জীবনের সমাপ্তির সাথে।

সবাই উল্লাস করুক না করুক তুমি যদি তাতে এক ফোটা শান্তি পাও,

সেটাই আমার ভালোবাসার প্রাপ্তি।

আরও সংবাদ...'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj