আইনশৃঙ্খলা সভায় অভিযোগ : সদরপুরে ঈদকে সামনে রেখে মাদকের ব্যাপক আমদানি

শুক্রবার, ১৫ জুন ২০১৮

সদরপুর (ফরিদপুর) প্রতিনিধি : ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ঈদকে সামনে রেখে মাদক ব্যবসায়ীরা লাখ লাখ টাকার মাদক আমদানি ও বিক্রির টার্গেট নিয়েছে বলে বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা গেছে। বিশেষ অভিযানে তালিকাভুক্ত কিছু মাদক ব্যবসায়ী গা ঢাকা দিলেও তাদের মনোনীত ব্যবসায়ীরা প্রকাশ্যে মাদক বিক্রি করে চলেছে বলে অভিযোগ রয়েছে। ঈদ মিশনে তাদের মাদক বিক্রির টাগের্ট লাখ লাখ টাকা বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, উপজেলার পদ্মা-আড়িয়াল খাঁ নদের চরাঞ্চলগুলো মাদক পাচারের প্রধান রুট হিসেবে বেছে নিয়েছে মাদক ব্যবসায়ীরা। ওই অঞ্চলের চরমানাইর, চরনাছিরপুর ও নারিকেলবাড়ীয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন রুটে ও নৌপথে অবাধে ইয়াবা, ফেনসিডিল, গাঁজার বড় বড় চালান আসছে উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজার ও গ্রাম-গঞ্জে। ওই সব মাদকদ্রব্য সহজলভ্য বিভিন্ন অঞ্চলের স্কুল-কলেজের ছাত্র ও যুব সমাজের হাতে পৌঁছে যাচ্ছে।

অভিযোগ উঠেছে, চরমানাইর ইউনিয়নের বোর্ডবাজার, চরগজারিয়া, চরআড়িয়াল খাঁ, ঝিটকারমোড়, চরচান্দ্রানতুন হাট, চরনাছিরপুর ইউনিয়নের শিমুলতলীবাজার, হাকিম মাতুব্বরেরকান্দি, কাড়ালকান্দি, চৌদুরীরহাট, নারিকেলবাড়ীয়া ইউনিয়নের দফাখালী, নুরুদ্দিন সরদারেরকান্দি, শয়তানখালীঘাট বর্তমানে মাদক পাচারের নিরাপদ রুট।

ওই সব রুট দিয়ে উপজেলার পিয়াজখালী, চন্দ্রপাড়া, চরবলাশিয়াঘাট, ঢেউখালীবাজার, মনিকোটা, চুকদারের বাজার, আকটহাট, চরচাঁদপুর, নতুনবাজার, হাটকৃষ্ণপুর, মজুমদারবাজার, সদরপুর এলাকা, সাড়ে সাঁতরশি বাজার, বাবুরচরবাজার এলাকায় পাচার হয়ে আসছে। হাত বদল হয়ে ওই সব স্থান থেকে উপজেলার প্রতিটি গ্রাম মহল্লায় পৌঁছে যাচ্ছে। রাজধানী ও জেলা শহরগুলোতে মাদকের বিরুদ্ধে ব্যাপক অভিযান চালায় মাদক ব্যবসায়ীরা বর্তমানে গ্রাম অঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা বেছে নিয়েছে।

অভিযোগ উঠছে, মাদক বন্ধের জন্য মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ বিভাগের অভিযান কোনো কাজেই আসছে না। ফলে প্রকৃত মাদক ব্যবসায়ীরা রয়ে যাচ্ছে ধরাছোঁয়ার বাইরে। স্থানীয় প্রশাসনের বিশেষ অভিযান তৎপর না থাকায় বর্তমানে মাদক ব্যবসায়ীরা সদরপুর অঞ্চল মাদক পাচার ও বিক্রির নিরাপদ রুট হিসেবে বেছে নিয়েছে। গত মঙ্গলবার উপজেলা আইনশৃঙ্খলা সভায় সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যানরা মাদক নিয়ন্ত্রণের জন্য জোরালো দাবি জানালেও প্রশাসনের মাদক নিয়ন্ত্রণে তেমন কোনো তৎপরতা লক্ষ করা যাচ্ছে না।

এ ব্যাপারে সদরপুর থানার ওসি তদন্ত সুব্রত গোলদারের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশ কঠোর অবস্থানে রয়েছে। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অভিযান চালানো হবে।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj