রূপালী ব্যাংকে গ্রাহকসেবায় শিথিল অবস্থা

শুক্রবার, ১৫ জুন ২০১৮

কাগজ প্রতিবেদক : রূপালী ব্যাংক উত্তরা মডেল টাউন করপোরেট শাখায় সম্প্রতি সেবা শৈথিল্যের জন্য গ্রাহক ও ক্যাশিয়ারের মধ্যে এক অপ্রীতিকর অবস্থার সৃষ্টি হয়। গত ১২ জুন শাখায় জনৈক গ্রাহকের জমাকৃত টাকার পরিমাণ নিয়ে গ্রাহক ও ক্যাশিয়ারের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়। গ্রাহকের অভিযোগ করেন, তিনি ভাউচারসহ এক লাখ বিশ হাজার টাকা ক্যাশ কাউন্টারে জমা দেন। টাকা গণনা করে ক্যাশিয়ার দশ হাজার টাকা কম আছে এবং আরো দশ হাজার টাকা জমা দিতে হবে বলে জানান। এ ব্যাপারে উত্তরা মডেল টাউন করপোরেট শাখার ক্যাশিয়ার বলেন, ওই গ্রাহক কয়েক বান্ডিলে ভাগ করে টাকা জমা দেন। আমি গণনা করে এক লাখ দশ হাজার টাকা বুঝে পাই এবং ক্যাশ বাক্সের অন্যান্য টাকার সঙ্গে মিলিয়ে ফেলি। আমি গ্রাহককে বোঝানোর চেষ্টা করি আমার ভুল হতে পারে তবে লেনদেন শেষ হওয়ার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে।

শাখার ব্যবস্থাপক মো. আমিনুল ইসলামকে জিজ্ঞাসা করা হলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে তিনি বলেন, টাকা জমা দেয়া নিয়ে গ্রাহকের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। বিষয়টি আমার নজরে এলে তাৎক্ষণিক সুরাহা করার চেষ্টা করি। এরপরও গ্রাহক ঘটনাটি মোবাইলে ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করে দেয়।

বিষয়টি ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে এলে ঘটনার পরের দিনই ব্যাংকের এমডি ও জিএম কর্তৃক শাখা পরিদর্শন করা হয়। গ্রাহকের অভিযোগ আমলে নিয়ে গ্রাহকের স্বার্থকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে শাখার ব্যবস্থাপককে (ডিজিএম) সাময়িক বরখাস্ত করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

এ ধরনের ঘটনা শুধু রূপালী ব্যাংকেই প্রথম নয়। উন্নত ও মানসম্মত সেবা প্রদানের লক্ষ্যে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তাদের কর্মে দক্ষ হওয়া খুবই জরুরি। এ ক্ষেত্রে রূপালী ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের উদ্যোগ প্রশংসনীয়।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj