শেষ মুহূর্তে জমজমাট ঈদবাজার

শুক্রবার, ১৫ জুন ২০১৮

কাগজ প্রতিবেদক : দোরগোড়ায় চলে এসেছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। এক মাস সিয়াম সাধনা শেষে নারী, পুরুষ, শিশু, বৃদ্ধ সবাই ঈদে নতুন পোশাক পরেন।

এ জন্য ঈদকে সামনে রেখে প্রথম রোজা থেকে শুরু হয় কেনাকাটা। যা চলে ঈদের আগের দিন অর্থাৎ চাঁদ রাত পর্যন্ত। ফুটপাত থেকে শুরু করে অভিজাত মার্কেটগুলোতে শেষ মুহূর্তে তিল ধারণের জায়গা থাকে না। যেমন ব্যস্ত থাকেন দোকানিরা, তেমনি ক্রেতারা।

গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত রাজধানীর গুলিস্তান, পল্টন, সদরঘাট, মতিঝিল, ফার্মগেট, বায়তুল মোকাররম এলাকা ঘুরে দেখা গেছে ফুটপাতের দোকানগুলোয় জমে উঠেছে কেনাকাটা।

বিক্রেতাদের হাঁকডাক আর ক্রেতাদের পদচারণায় মুখরিত এসব এলাকা। পছন্দের পণ্য বেছে নিতে ব্যস্ত ক্রেতারা। বিক্রেতাও খুব ব্যস্ত। কারন ঈদে বিক্রি করে সারা বছরের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে চায় তারা। যা নেবেন দুইশ, যা নেবেন তিনশ, শার্টের জোড়া পাঁচশ, দেইখা লন, বাইচ্ছা লন- এমন হাঁকডাক দিয়ে ক্রেতার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন বিক্রেতারা।

বিক্রেতারা জানান, ছেলেদের শার্ট, প্যান্ট, পাঞ্জাবি, শিশুদের পোশাক বেশি বিক্রি হচ্ছে। সালাউদ্দিন নামে এক ক্রেতা জানান, সময় স্বল্পতায় আগে কেনাকাটা সম্ভব হয়নি।

তাই বাড়ি যাওয়ার পথে গুলিস্তান থেকে কিনছি। বাবা, মা, ছেলে, মেয়ে সবার জন্যই কিনব। তবে দাম একটু বেশি বলে মনে হচ্ছে।

সোহেল নামে এক বিক্রেতা বলেন, রোজার শেষের দিকে বিক্রি বেড়ে যায় এবং ঈদের আগের দিন চাঁদ রাত পর্যন্ত অব্যাহত থাকে। তবে সমস্যা হলো বৃষ্টি শুরু হলে কোনো উপায় থাকে না। প্রায় প্রতিদিন বৃষ্টিতে ঝামেলা পোহাচ্ছি।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj