ঠাকুরগাঁওয়ে প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে অনুষ্ঠিত হলো প্রবীণ মেলা

শুক্রবার, ১৫ জুন ২০১৮

মনসুর আলী, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি : আমাদের সবারই পরিবারে ও আত্মীয়-স্বজনের মধ্যে প্রবীণ কেউ না কেউ আছেন। পাড়া-প্রতিবেশীদের মধ্যে কিংবা রাস্তায় বেরুলেও আমরা অনেক প্রবীণ লোককে দেখতে পাই। চলাফেরায়, রাস্তা পেরুতে, যানবাহনে উঠতে তাদের অসুবিধাগুলো আমরা নিশ্চয় বুঝতে পারি। এই প্রবীণরা সব সময় প্রবীণ ছিলেন না। বয়স বা অসুখ-বিসুখের কারণে কাজ করার সামর্থ্য কমে এলেও, প্রবীণরা তাদের জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা দিয়ে আমাদের সাহায্য করতে পারেন। সেদিক তারা অন্য যে কোনো বয়সের মানুষের মতোই সমাজের সম্পদ। মূল্যবান মানবসম্পদ।

অন্যান্য নাগরিক অধিকারের পাশাপাশি সমাজে প্রবীণদের জন্য কিছু বিশেষ অধিকার থাকা দরকার। যেমন নারী, শিশু ও সমাজের অন্যান্য অংশের মানুষের জন্যও কিছু বিশেষ অধিকার থাকে। তবে সবার আগে প্রবীণদের প্রতি আমাদের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন ঘটাতে হবে। পরিবারে ও সমাজে তাদের অপ্রয়োজনীয় বা বোঝা হিসেবে গণ্য করার মানসিকতা বদলাতে হবে। তাদের সময় এবং সঙ্গ দিতে হবে। এমন একটি বিষয় মাথায় রেখে ঠাকুরগাঁওয়ে প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে ব্যতিক্রমী প্রবীণ মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত সোমবার সদর উপজেলার আউলিয়াপুর প্রবীণ সামাজিক কেন্দ্রে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। ইকো সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের (ইএসডিও) বাস্তবায়নে ও পল্লী কর্মসহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) সহযোগিতায় প্রবীণ মেলায় সদস্যদের অংশগ্রহণে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, স্বাস্থ্য ক্যাম্প, হা-ডু-ডু ও হাঁড়িভাঙা খেলা অনুষ্ঠিত হয়। পরে অংশগ্রহণকারীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। ইএসডিওর ফোকাল পার্সন শাহ মোঃ আমিনুল হকের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণী ও আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন প্রধান অতিথি আউলিয়াপুর ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান নজরুল, গেস্ট অব অনার সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের সভাপতি মনসুর আলী, ইএসডিও সমৃদ্ধি কর্মসূচির প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর মফিজুর রহমান মনি, শিক্ষা সুপারভাইজার তোহিদুল ইসলাম, প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন কেন্দ্রের সভাপতি বনী চরণ বর্মন, সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর মণ্ডল, সমাজ উন্নয়ন এসডিও কিমিয়াজ রহমান, স্বাস্থ্য সহকারী হুসনে আরা নাসরিন, ঝর্ণা রানী প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সমাজ সংগঠক লাল বাবু। অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন সদস্য গুণধর বর্মন, মঞ্জুর মণ্ডল, হাবিবা আক্তারসহ সদস্যরা। উল্লেখ্য, পিকেএসএফের সহযোগিতায় ও ইএসডিওর ব্যবস্থাপনায় প্রবীণ জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় সদর উপজেলার আউলিয়াপুরে প্রবীণ সামাজিক কেন্দ্রে ১ হাজার ৪৩৫ পুরুষ, ১ হাজার ৩৬৫ নারীসহ মোট ২ হাজার ৮শ সদস্য রয়েছে। এর মধ্যে ওই ইউনিয়নের ২টি কেন্দ্র ও ২২টি ওয়ার্ডে রয়েছে পৃথক কমিটি। কেন্দ্রের মাধ্যমে প্রবীণ দিবস উদযাপন, শ্রেষ্ঠ প্রবীণ সম্মাননা, ফিজিওথেরাপি সেবা, প্রবীণ-নবীনদের ফুটবল খেলা, মাসিক সভা, হুইল চেয়ার বিতরণ, বিশেষ ভাতা প্রদান, বিশেষ সহায়তা ভাতা প্রদান, বিভিন্ন সামাজিক সেবা, স্বাস্থ্য ক্যাম্প, আয় বর্ধকমূলক কাজের প্রশিক্ষণ, শীতবস্ত্র বিতরণসহ সামাজিক সচেতনতা বিষয়ক বিভিন্ন অনুষ্ঠান পরিচালনা করে আসছে।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj