শিরোপা অক্ষুণœ রাখতে পারবে তো রিয়াল মাদ্রিদ?

মঙ্গলবার, ২২ মে ২০১৮

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সর্বশেষ দুই আসরের শিরোপা জিতেছে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের চলতি আসরের শিরোপা জয়ের দৌঁড়ে এখন বাকি রয়েছে আর মাত্র দুই দল। এ দুই দলের একটি লিভারপুল এবং অপরটি রিয়াল মাদ্রিদ। আগামী শনিবার শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে এ দুদল। দুদলের মধ্যকার এ লড়াইয়ে যারা জিতবে তাদের হাতেই ওঠবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ২০১৭-১৮ মৌসুমের শিরোপা। ইংলিশ ক্লাব লিভারপুল এবং বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদের মধ্যকার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ইউরোপের দেশ ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে।

কিয়েভের এনএসসি অলিম্পিয়াস্কি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া শনিবারের ফাইনালকে কেন্দ্র করে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে অনেক আগে থেকেই। এ আলোচনার মুখ্য বিষয় স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ কি পারবে ইংলিশ ক্লাব লিভারপুলকে হারিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো ইউরোপের ক্লাব ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট অর্জন করতে!

ফুটবলের চলতি মৌসুমের শুরুটা বেশ ভালোভাবে করলেও মাঝখানে এসে হঠাৎ করেই যেন ছন্দ হারায় রিয়াল মাদ্রিদ। সে ছন্দ পতনের বলয় থেকে এরা বেরিয়ে অসাতে পারেনি স্প্যানিশ লা লিগার শেষ দিকে এসেও। এক ম্যাচে বড় ব্যবধানে জিতলে পরের ম্যাচেই পরাজয়ের হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে কোচ জিনেদিন জিদানের শিষ্যদের। যে কারণে স্প্যানিশ লা লিগার চলতি মৌসুমের শিরোপা হাতছাড়া হয়েছে গত আসরের চ্যাম্পিয়নদের। লা লিগার পাশাপাশি রিয়াল মাদ্রিদ এ মৌসুমে ব্যর্থ হয়েছে স্পেনের অন্যতম মর্যাদাপূর্ণ টুর্নামেন্ট কোপা ডেল রে এর শিরোপাও। তবে ঘরোয়া লিগের এ ব্যর্থতার বিন্দুমাত্রও প্রভাব দেখা যায়নি জিদানের শিষ্যদের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের পারফরমেন্সে। এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপপর্বের একটি ম্যাচে ড্র এবং আরেকটি ম্যাচে টটেনহ্যামের কাছে হেরেছিল রোনালদোরা। এ ছাড়া পুরো আসর জুড়েই মাদ্রিদের ক্লাবটির খেলোয়াড়দের পারফরমেন্স ছিল ঈর্ষা করার মতো। একের পর এক শক্তিশালী দলকে হারিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয়ের দ্বারপ্রান্তে এসে পৌঁছেছে মাদ্রিদের ক্লাবটি।

গ্রুপ রানার আপ হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোতে ওঠা রিয়াল মাদ্রিদের সামনে কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার পথে প্রতিপক্ষ ছিল দুর্দান্ত একটি মৌসুম কাটানো ফরাসি জায়ান্ট পিএসজি। সবার ধারণা ছিল তারকাসমৃদ্ধ পিএসজির কাছে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায় নেবে রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু পিএসজিকে প্রথম লেগে ৩-১ গোলে এবং দ্বিতীয় লেগে ২-১ গোলে হারিয়ে উভয় লেগ মিলিয়ে ৫-২ গোলের বড় ব্যবধানের জয় নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের চলতি আসরের কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠে আসে কোচ জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা। কোয়ার্টার ফাইনালে আরো কঠিন প্রতিপক্ষ পায় রিয়াল মাদ্রিদ। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটের লড়াইয়ে স্প্যানিশ জায়ান্টদের প্রতিপক্ষ ছিল চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গত আসরের রানার আপ ইতালিয়ান ক্লাব জুভেন্টাস। জুভেন্টাসের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগটি রিয়াল মাদ্রিদ জিতে নেয় ৩-০ গোলে। পরের লেগটি জুভেন্টাস ৩-১ গোলে জিতলেও উভয় লেগ মিলিয়ে ৪-৩ গোলের জয় নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করে কোচ জিনেদিন জিদানের দল। এরপর সেমিফাইনালে আরো কঠিন প্রতিপক্ষ পায় রিয়াল মাদ্রিদ। সেমিফাইনালে রিয়ালের প্রতিপক্ষ ছিল জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখ। যে বায়ার্নকে কোয়ার্টার ফাইনালে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গত আসরের সেমিফাইনালে ওঠেছিল রোনালদো, গ্যারেথ বেলরা। গত আসরের কোয়ার্টার ফাইনালে পরাজয়ের প্রতিশোধ বায়ার্ন মিউনিখ এবার নেবে এমনটিই প্রত্যাশা ছিল সবার। তবে সে প্রত্যাশা বাস্তবে রূপ পায়নি। কারণ দলটি যে রিয়াল মাদ্রিদ। রিয়াল মাদ্রিদ মানেই যেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের রাজা। সেমিফাইনালের প্রথম লেগে বায়ার্নকে ২-১ গোলে হারায় রিয়াল। এরপর রোমাঞ্চ ছড়ানো দ্বিতীয় লেগটি ড্র হয় ২-২ গোলে। ফলে উভয় লেগ মিলিয়ে ৩-২ গোলের জয় নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের চলতি আসরের ফাইনালের টিকেট পায় স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ। ফাইনালে জিদানের প্রতিপক্ষ লিভারপুল। ফাইনালে লিভারপুলকে হারাতে পারলেই টানা তৃতীয়বারের মতো উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জেতার মাইলফলক স্পর্শ করবে রিয়াল মাদ্রিদ।

ইতোমধ্যে ইউরো সেরার আসরের হ্যাটিট্রিক শিরোপা জয়ের স্বপ্নে বিভোর রিয়াল মাদ্রিদের ফুটবলাররা। কোচ জিনেদিন জিদান, অধিনায়ক সার্জিও রামোস থেকে শুরু করে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, ইস্কো, গ্যারেথ বেল সবাই বলছেন টানা তৃতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয়ের কথা।

কয়েকদিন আগে গণমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে টানা তৃতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয়ের স্বপ্নের কথা জানিয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদ অধিনায়ক সার্জিও রামোস। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গত দুই আসরের ফাইনালে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ ও জুভেন্টাসকে হারিয়ে শিরোপা জেতা রিয়াল মাদ্রিদ অধিনায়ক আবারো উৎসব করতে চান চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিতে। ২৭ মে ইউক্রেনের কিয়েভে অনুষ্ঠিত ফাইনালে লিভারপুল বাধা পার হয়ে হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়ন হতে মরিয়া তিনি। এ বিষয়ে তিনি বলেছেন, আবারো ইউরোপের রাজা হওয়ার হাতছানি আমাদের সামনে, এটা ইতিবাচক। আমরা আরেকটি ফাইনাল উপভোগ করতে যাচ্ছি এবং চেষ্টা করব সুখের রেশটা ধরে রাখতে। টানা তৃতীয় বছর এই শিরোপা হাতে নেয়া হবে একটা স্বপ্নের মতো ব্যাপার। আমি আশা করি, আমরা টানা তৃতীয়বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিতে সে স্বপ্নের বাস্তবায়ন ঘটাতে পারব।

তবে শিরোপা জয়ের স্বপ্ন দেখলেও এ পথটা মোটেই সহজ নয় বলে বিশ^াস রিয়াল মাদ্রিদ মিডফিল্ডার ইস্কোর। আসন্ন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনাল নিয়ে গত শনিবার গণমাধ্যমে কথা বলেছেন স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদের এ মিডফিল্ডার। ফাইনালে লিভারপুলের বিপক্ষে তাদের কঠিন পরীক্ষার সম্মুখীন হতে হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এ বিষয়ে রিয়াল মাদ্রিদ মিডফিল্ডার বলেন, এটা দারুণ এক ফাইনাল হবে। এটা ক্লাব পর্যায়ে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রতিযোগিতা। আর রিয়াল মাদ্রিদ ইউরোপের রাজা। এ মৌসুমে লিগে ও কাপে ভালো করতে না পারার পরও এই শিরোপা আবারো জেতার সুযোগটা আমাদের আছে। আর মৌসুম শেষ করার জন্য চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জেতাটা হবে ভালো একটা উপলক্ষ। এ সময় রিয়াল মাদ্রিদ মিডফিল্ডার আরো বলেন, আমরা আরো একবার ফাইনালে। বড় টুর্নামেন্টগুলোতে এভাবে খেলা চালিয়ে যাওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সমর্থক ও খেলোয়াড়রা খুবই রোমাঞ্চিত। এ সময় প্রতিপক্ষ লিভারপুল প্রসঙ্গে ২৬ বছর বয়সী স্প্যানিশ খেলোয়াড় ইস্কো বলেন, এটা সত্যি যে, শুরুতে তারা ফেভারিটদের তালিকায় ছিল না। তবে লিভারপুল দেখিয়েছে তারা ফাইনালের যোগ্য। তাদের অসাধারণ একজন কোচ আছে। আছে দক্ষ সব খেলোয়াড় যারা আক্রমণে পার্থক্য গড়ে দিতে পারে। তাই আমার মনে হয়, শিরোপা জিততে হলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে দারুণ পরীক্ষা দিতে হবে আমাদের। তবে শিরোপা জয়ের ব্যাপারে আমাবাদী আমি।

রামোস এবং ইস্কোর মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের চলতি আসরের শিরোপা জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদান। কয়েকদিন আগে সাংবাদিকদের তিনি জানিয়েছেন, আমার শিষ্যরা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালের জন্য প্রস্তুত।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের চলতি আসরের কোয়ার্টার ফাইনালে নিজ দেশের ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটিকে হারিয়ে সেমিফাইনালে ওঠে লিভারপুল। এরপর সেমিফাইনালে ইতালিয়ান ক্লাব রোমাকে হারিয়ে ফাইনালের টিকেট পায় তারা। এখন পর্যন্ত ৫ বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিতেছে লিভারপুল। ইংলিশ ক্লাবটি সর্বশেষ চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিতেছিল ২০০৫ সালে। এরপর ২০০৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে উঠলেও শিরোপা জিততে পারেনি তারা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ওই আসরের ফাইনালে ইতালিয়ান ক্লাব এসি মিলানের কাছে হেরেছিল লিভারপুল। এবার রিয়ালকে হারিয়ে দীর্ঘ ১৩ বছরের শিরোপা খরা কাটাতে চায় ইংলিশ ক্লাবটি। সে জন্যই রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে ফাইনালের আগে জোর প্রস্তুতিও শুরু করেছে তারা। এ ছাড়া রিয়ালকে হারানোর ব্যাপারে আত্মবিশ^াসের কথা ফুটে ওঠেছে লিভারপুল কোচ জার্গেন ক্লপের কথাতেও। কয়েকদিন আগে গণমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, রিয়াল মাদ্রিদ নিঃসন্দেহে ফেভারিট। কেননা, তারা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সর্বশেষ দুই আসরের চ্যাম্পিয়ন। তবে আমরা আন্ডারডগ নয়। আমার দলের বিশেষ করে আক্রমণভাগের খেলোয়াড়রা বেশ ছন্দে রয়েছে। এরপর তিনি লিভারপুলের সর্বশেষ ২০০৫ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয়ের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ওই আসরে আমরা ফেভারিট ছিলাম না। এরপরও এসি মিলানকে হারিয়ে আমরা শিরোপা জিতেছি। এবারো শিরোপা জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ^াসী আমি।

ফুটবলের চলতি মৌসুমে স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপা হাতছাড়া হয়েছে রিয়াল মাদ্রিদের। এ ছাড়া জিদানের দল জিততে পারেনি স্প্যানিশ কোপা ডেল রে এর শিরোপাও। তাই ক্লাব ফুটবলের ইতিহাসের সবচেয়ে সফলতম ক্লাবটির সমর্থকদের দৃষ্টি এখন উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপার দিকে। শনিবারের ফাইনালে লিভারপুলকে হারাতে পারলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয়ের তৃপ্তি নিয়েই ফুটবলের চলতি মৌসুম শেষ করতে পারবে রোনালদোরা। এ ছাড়া স্পর্শ করবে প্রথম দল হিসেবে টানা তিনবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয়ের মাইলফলক। এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশিবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের রেকর্ডটা অবশ্য অনেক আগেই নিজেদের করে নিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। এখন পর্যন্ত সর্বাধিক ১২ বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিতেছে তারা। এখন সবারই কৌতূহল রিয়াল কি পারবে টানা তিনবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিতে সংখ্যাটিকে ১৩ তে নিয়ে যেতে।

এস এম সায়েম

গ্যালারি'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj