নেইমারের দিনকাল : নূরুজ্জামান শুভ

মঙ্গলবার, ১০ এপ্রিল ২০১৮

নেইমারের বছরটা শুরু হয়েছিল তো সেই আগস্টের শুরুতেই। তীব্র গুঞ্জনের মুখে স্বপ্নকে সারথি করে নতুন আশাকে বুকে নিয়ে বার্সালোনা ছেড়ে পার্ক ডেস প্রিন্সেসের উদ্দেশে পা বাড়ান ব্রাজিলিয়ান এ সুপার স্টার। ন্যু ক্যাম্প ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভেঙে দেন আগের শ্রেষ্ঠ খেলোয়াড়দের যত সব রেকর্ড। ২২২ মিলিয়ন ইউরোর ফিতে মেসির ছায়া ছেড়ে লিগ ওয়ানের খেলায় মত্ত হন তিনি; যোগ দেন পেরিস সেন্ট জার্মেইনে (পিএসজি)। এরপর আরো কত কি!

এরপর? এরপর আগস্টের মাঝামাজিতে পিএসজির হয়ে অভিষেকেই গোল করেন, ওই ম্যাচে জয়ও পায় তার দল। পরের ম্যাচেই অভিষেকের এই একটা গোলকে দুইয়ে উন্নীত করেন, অবশ্য সে ম্যাচে কাভানির বদলে তিনি পেনাল্টি শটটা নিলে হয়তো হ্যাহট্রিকও হতে পারতো তার। জয় দিয়ে তার বছর শুরু করার সঙ্গে সঙ্গে একের পর এক পেতে থাকে ফরাসি এ ক্লাবটি।

শুরুতে একের পর এক চমক দেখালেও চলতি বছরটা যেন তার জন্য খারাপ ফলাফলই বয়ে এনেছে, আনছে। প্রথম মাসটা পেরুনোর পরই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শোডাউনে উনাই এমেরির শিষ্যদের হারতে হয়েছে স্প্যানিস জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে। প্রথম লেগে বার্নাব্যুতে জয়ের আশা নিয়ে গেলেও তা সফল হতে দেয়নি জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা। এদিন রোনালদো-মার্সেলোদের গোলে ৩-১ ব্যবধানে পরাজয়বরণ করতে হয়েছিল তাদের। আশা ছিল দ্বিতীয় লেগে নিজেদের মাঠে সফরকারীদের সুদে আসলে সব বুঝিয়ে দেবে নেইমার-কাভানিরা।

কপাল মন্দ হলে যা হয় আরকি। দ্বিতীয় লেগ আসতে না আসতে লিগ ওয়ানে মার্সেলির বিপক্ষে খেলায় পড়েন পায়ের ইনজুরিতে। যেই সেই ইনজুরি নয়! ইনজুরির কারণে প্রায় দুমাসের মতো সময় কাটিয়ে দিচ্ছেন মাঠের বাইরেই, হয়তো আরো অনেকটা সময় লাগবে এ ইনজুরি কাটিয়ে উঠতে। ডান পায়ের এ ইনজুরির কারণে নেইমারের আর খেলা হয়ে ওঠেনি রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে দ্বিতীয় লেগের খেলায়। ফলে টান টান উত্তেজনার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নেইমার ছাড়া আবারো হারে স্বাগতিকরা। ফলে ওয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠার দৌড়ে ছিটকে পড়তে হয় ফরাসি এ ক্লাবটিকে। যেন স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে তাদের! ইনজুরিতে থাকায় দ্বিতীয় লেগের খেলাটি আর মাঠে বসে দেখা হয়ে উঠেনি তার। ঘরে বসেই সতীর্থদের খেলা দেখেছিলেন তিনি। সঙ্গে পরাজয়ের কারণে সতীর্থদের প্রতি সববেদনা জানানোসহ উৎসাহিতও করেন।

এর আগেই নিজ দেশ ব্রাজিলে যান পায়ের অস্ত্রোপচার করানোর জন্য। রদ্রিগো লাসমারের অধীনে সফল অস্ত্রোপচারও করান তিনি। অবশ্য এ ডক্তারই ব্রাজিলিয়ান আরো বেশ কয়েক জন খেলোয়াড়ের অস্ত্রোপচার করেছিলেন, সফলও হয়েছিলেন তিনি।

আর এদিকে চলে আসছে ফুটবলের অন্যতম আসর বিশ্বকাপ ফুটবল। একুশতম এ আসরে ব্রাজিলের চমক দেখানের মূলে রয়েছেন নেইমার। তবে তিনি যে ইনজুরিতে! কবে ফিরবেন তারও কোনো সদুত্তর নেই। যদিও দিন কয়েক আগে ব্রাজিল জাতীয় দলের কোচ তিতে গণমাধ্যমে জানিয়েছেন যে, বিশ্বকাপ শুরুর সপ্তাহ দুয়েক আগেই মূল স্কোয়াডে অনুশীলনে ফিরবেন তিনি।

তবে এতসবের মাঝেও ইনজুরি নামক এ ছুটিটাকে যেন বেশ উপভোগ করেছেন তিনি। টানা চার বার নিজ দেশে পালন করেছেন আপন বোনের জন্মদিন। বেশ ধুমধামের মধ্য দিয়েই অনুষ্ঠানের কাজগুলো শেষ করেছেন। চারবার বোনের জন্মদিন পালনের পেছনেও রয়েছে তার ইনজুরির হাত। মৌসুমের এ সময়টাতে আগেও বার্সালোনাতে থাকাকালে চোটের মুখে পড়েছেন।

এরপর বান্ধবী ব্রুনা মারকুইজির বোনের জন্মদিনে ভাঙা পা নিয়ে নেচেছেন এ সুপার স্টার। এমন পরিস্থিতিতে তার নাচ দেখে ব্রাজিলিয় ফুটবল ভক্তদের অনেকেই সঙ্কায় ছিলেন। না জানি আবার কোনো চোটের মুখে পড়তে হবে! তবে না, তার পায়ে বিশেষ ধরনের বুট পরিহিত অবস্থায় নাচার কারণে তেমন কোনো সমস্যাই হয়নি, বরং আরো ভালো কিছু সময় অতিবাহিত হয়েছে তার।

এর মাঝে বিশ্বকাপ ফুটবলকে সামনে রেখে প্রস্তুতি পর্ব হিসেবে ইনরজুরিতে পড়ে থাকা নেইমারকে ছাড়াই বেশ কয়েকটি দেশের সঙ্গে খেলেছে কুটিনহো-জেসুসরা। অবশ্য এর মাধ্যমে নেইমার ছাড়া ব্রাজিল কেমন পারফম্যান্স করতে পারে তাও পরখ করেছেন কোচ তিতে। হ্যাঁ, নেইমার ছাড়া ভালো কিছু করতে পারে সেলেকাওরা তা ইতোমধ্য হয়তো দেখাও হয়ে গেছে তার। প্রস্তুতি হিসেবে যে দুটি ম্যাচ খেলেছে তার দুটিতেই জয় পেয়েছে পাঁচ বারের বিশ্বকাপজয়ীরা। প্রথম ম্যাচে আসন্ন বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ রাশিয়াকে ৩-০ ব্যবধানে উড়িয়ে দেয় কুটিনহোরা। দ্বিতীয় ম্যাচে বড় ব্যবধানে জয় না পেলেও নিরাশ হতে হয়নি জেসুসদের। এদিন জেসুসের হেড থেকে গোল পেয়ে শক্তিশালী জার্মানিকে পরাজিত করে। গত বিশ্বকাপে যাদের কাছে বিশাল ব্যবধানে হেরেছিল তাদের নেইমার ছাড়াই গুটিয়ে দেয় তিতের শিষ্যরা। জানান দেয় তাদের শক্তিমত্তাকে।

সম্প্রতি দ্রুত ইনজুরি কাটিয়ে ওঠার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন ব্রাজিলের প্রাণভোমরা। তার ওপরেই যে নির্ভর করছে আসন্ন রাশিয়ার বিশ্বকাপে ব্রাজিলের বাঁচা-মরা!

গ্যালারি'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj