সাতকানিয়ায় আগুনে মা ও ছেলে ভস্ম

রবিবার, ১১ মার্চ ২০১৮

এম নাজিম মাহমুদ, সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম) থেকে : সাতকানিয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে মা ও ছেলে পুড়ে ভস্ম হয়ে গেছে। আগুনে দুটি বসতঘর সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়েছে। গত শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার নলুয়া ইউনিয়নের মরফলা ৭নং ওয়ার্ড শীলপাড়া এলাকায় এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আগুনে উজ্জ্বল শীল ও নান্টু শীলের বসতঘর সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়। অগ্নিকাণ্ডের সময় ঘর থেকে বের হতে না পেরে নান্টু শীলের স্ত্রী মঞ্জু শীল (৪০) ও ছেলে অমিত শীল (১৩) আগুনে পুড়ে মারা যান। অগ্নিদগ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন তাদের আরেক মেয়ে পূর্ণিমা শীল (১৬)। তিনি বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, রাত সাড়ে ১০টার দিকে নান্টু শীলের রান্নাঘরের চুলার আগুন থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়ে মুহূর্তের মধ্যে মাটির ঘরের ভেতরের বাঁশের বেড়ায় আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় মঞ্জু শীল তার ছোট মেয়ে প্রতিমা শীলকে (১২) জানালার ফাঁক দিয়ে বের করে দিতে পারলেও নিজে এবং ছেলে অমিত শীল বের হওয়ার সময় অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যান।

এ ঘটনায় অক্ষত অবস্থায় বেঁচে যাওয়া প্রতিমা শীল বলেন, অগ্নিকাণ্ডের সময় আমরা ঘুমিয়ে ছিলাম। আগুন লাগার বিষয়টি টের পেয়ে আমার মা আমাকে জানালা দিয়ে বের দেন। আমি বাইরে এসে চিৎকার করতে থাকি। চারদিক থেকে লোকজন এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা চালান। পরে বুঝতে পারি আমার মা ও ভাই বের হতে পারেননি। আগুন নিভে গেলে মা ও ভাইয়ের অগ্নিদগ্ধ লাশ পাওয়া যায়।

সাতকানিয়া ফায়ার সার্ভিসের ইন্সপেক্টর মাহবুবুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন যাতে আশপাশে ছড়িয়ে পড়তে না পারে তার চেষ্টা করি। তিনি আরো জানান, অগ্নিকাণ্ডে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ করা হয় ২ লাখ টাকা। সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোবারক হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যাওয়া পরিবারকে উপজেলা পরিষদ থেকে নগদ ২০ হাজার টাকা ও ক্ষতিগ্রস্ত অপর পরিবারকে ৫ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করা হয়েছে। বিষয়টি জেলা প্রশাসককে অবহিত করা হয়েছে যাতে পরবর্তী সময়ে ক্ষতিগ্রস্তদের আরো সাহায্য-সহযোগিতা করা যায়।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj