মনোচিত্র তৈরি করল ক্রেমলিন : ট্রাম্প ঝুঁকি নিতে পছন্দ করেন

বুধবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

কাগজ ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের নতুন নেতা স্বভাবগত কারণেই ঝুঁকি নিতে পছন্দ করেন। তবে কখনো কখনো তিনি গেঁয়ো আচরণও করে বসতে পারেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মানসিক গঠন বিষয়ে বিস্তারিত আলোকপাত করে রাশিয়ার তৈরি এক নথিতে বলা হয়েছে এসব কথা। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের জন্য ব্যাপক গবেষণার মাধ্যমে ট্রাম্পের মনোচিত্র নিয়ে বিশেষ নথিটি তৈরি করেছেন ক্রেমলিনের শীর্ষ কর্মকর্তারা।

শিগগিরই ট্রাম্পের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে মিলিত হতে যাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। তবে তার আগে ট্রাম্পের মন-মানসিকতা ভালোভাবে বুঝে নেয়ার লক্ষ্যে অধীনস্থদের ওই নথি প্রস্তুতের নির্দেশ দেন পুতিন। শীর্ষ পর্যায়ের ওই সফরের তারিখ এখনো ঘোষণা হয়নি। এদিকে রাশিয়ার সাবেক উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্দ্রে ফেদোরভ ট্রাম্পের মনোগবেষণার ব্যাপারে এনবিসিকে জানান, পুতিন যে কী ধরনের কঠিন চরিত্র তা বোঝার সামর্থ্য নেই ট্রাম্পের। ট্রাম্পের মনোগঠন সম্পর্কে এসব নথিপত্র তৈরি করা হয়েছে পুতিনের প্রশাসনিক কর্মকর্তা এবং চাকরি থেকে অবসর নেয়া ক‚টনীতিকদের অভিমত ও মতামতের ভিত্তিতে।

২০০০ সাল থেকে ট্রাম্পের গতিবিধির ওপর লক্ষ্য রেখে আসা ফেদোরভ জানান, ট্রাম্পের মানসিক গঠন কী ধরনের তার বিস্তারিত বিবরণী নিয়ে সাত পৃষ্ঠার একটি দলিলসহ ব্যাপক প্রস্তুতিমূলক কার্যক্রম চলছে ক্রেমলিনে। বিশেষত ট্রাম্পের গত ২-৩ মাসের কর্মকাণ্ডের ওপর ভিত্তি করে প্রণীত এসব নথি নিয়মিত হালনাগাদ করা হচ্ছে। তিনি আরো জানান, ক্রেমলিনের অনেকেই এ রকমও ভাবেন যে, ট্রাম্পের বিবেচনায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করাটা ¯্রফে আরো এক ধরনের ব্যবসায়িক সম্ভাবনা মাত্র।

ফেদোরভ বলেন, চার দেয়ালের মধ্যে নিজেকে আটকে রাখেননি ট্রাম্প। জনতার মাঝেই রয়েছেন তিনি। এ কারণে যে কোনো সমস্যায় তার উচিত আশপাশের লোকদের কাছে পরামর্শ নেয়া।

ক‚টনৈতিক বিশ্বে দরকষাকষির আগে অপরপক্ষ সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নেয়া একজন শীর্ষনেতার পক্ষে অতি স্বাভাবিক ঘটনা। কিন্তু কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্টের মানসিকতা ও প্রবৃত্তি বিষয়ে জানার লক্ষ্যে পূর্ব-আয়োজন সহযোগে বিস্তারিত নথি তৈরির ঘটনা এর আগে ঘটেনি কখনো।

ওয়াশিংটনে ট্রাম্পকে বিভিন্নমুখী যেসব লড়াই চালাতে হচ্ছে সে ব্যাপারে ক্রমশ বেড়েই চলেছে রাশিয়ার উদ্বেগ। তাদের আশঙ্কা, এ লড়াই অব্যাহত থাকলে রাশিয়ার ওপর থেকে অবরোধ প্রত্যাহার এবং তার সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নের উদ্যোগ বাস্তবায়নে ব্যর্থ হবেন ট্রাম্প। এর আগে মাত্র গত সপ্তাহেই রাশিয়ার রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে টেলিফোন আলাপনের বিষয়বস্তু সম্পর্কে বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রদানের জের ধরে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার পদ থেকে সরে গেছেন ট্রাম্পের পছন্দের মানুষ মাইকেল ফ্লিন। যদিও ট্রাম্পের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের কোনো ধরনের সরকারি কিংবা ক‚টনৈতিক দায়িত্ব পালনের পূর্ব-অভিজ্ঞতা না থাকলেও মস্কো এবং পুতিনের সঙ্গে তার গভীর সম্পর্ক রয়েছে বলে বরাবর দাবি করে এসেছেন তিনি।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj