নবারুণা গাঙ্গুলী : ভাষান

সোমবার, ১০ অক্টোবর ২০১৬

ছেলেটা এবার পুজোয় বাড়ি ফিরবে,

যদি লড়তে না হয় আবার কোনো যুদ্ধে…

যদিও সীমান্ত উত্তাল; যুদ্ধ এই নাকি হয়,

মাতো আমি, বুক ধুকপুক, হচ্ছে ভীষণ ভয়।

মা দুগ্গাকে গতবারই, মুখে নাড়ু মিষ্টি দিয়ে…

চেয়েছিলাম, খোকা আমার ঘরে আসুক ফিরে।

এবারও কি মুখ তুমি তুলবেনাগো মা,

আমি কি আমার খোকাকে বুকে পাবো না?

মানত করছি মাগো, পান সুপারি দিয়ে,

খোকা ফিরলে, নতুন নথ দেবো তোমায় গরিয়ে।

সন্তান না ফিরলে ঘরে, মা কি থাকতে পারে?

দুর্গতিনাশিনী, দাও যুদ্ধের দুর্যোগ নাশ করে।

ষষ্ঠিতে খবর এলো প্রতিবেশীর ঘরে,

খোকা নাকি, ঘরে কালই আসছে ফিরে।

জয় মাগো, মুখ তুলেছো… পেন্নাম তুমি নিও,

সুখ শান্তি এভাবেই তুমি, ঘরে ঘরে দিও।

সপ্তমীতে খোকা এলো পতাকা গায়ে দিয়ে।

একি! এমন বীর খোকা আমার কেন আছে শুয়ে…?

মা বলে ডাকছে নাতো, হাসছে নাতো আর।

এভাবে ঘরে ফেরার কি ছিল দরকার!

দেশের জন্য দশের জন্য লড়তে চেয়েছিল; তাই

তার ভাগ্যে থাকবে, শুধু শহীদ হওয়াটাই!

তুমি তো কোনো মা নও, সত্যিই তুমি পাষান…

দুগ্গা, তোমায় মন থেকে আজ দিলাম আমি ভাষান।

শারদীয় আয়োজন ২০১৬'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj