দ্বৈত : অধরা জ্যোতি

সোমবার, ৪ জুলাই ২০১৬

গতরাতে ঈশ্বর নেমেছিলো ধলপহরে।

নারকেলের চিরল-চিরল পাতা

সমকোণী ব্যালকনির যে অংশে

শ্যাওলা ছায়া ফেলে ঠিক সেথায়!

তীব্র চিনচিনে ব্যথা মোচড় দিলো পাঁজরে,

আলো আঁধারি-

জামগাছে ঝুলন্ত বাদুড় ডানা ঝাপটায়-

ভয়াল চোখের হলুদ আলো

জানান দেয় অশুভ আত্মার!

কায়াটি তখন হিমঘরে কাঁপছে থরথর!

আমি আর ঈশ্বর মুখোমুখি;

এক জ্যোতির্ময় আলো জানালো

আষাঢ়স্য প্রথম দিনে-

সিরিঞ্জ দিয়ে বের করা ভ্রƒণটি

ছিলো না কোনো নাপাক রক্ত।

অবাক বিস্ময়ে দেখি-

পঁয়তাল্লিশ দিনে ধ্বংস করা

সেই রক্তপিন্ডটি-

শুভ্র মেঘ হয়ে ছুঁয়ে আছে ঈশ্বরের স্মিত মুখ।

তবে কি-

দ্বিতীয়বার মেরি মাতার আগমন বার্তা ছিলো!

ঈদ আয়োজন ২০১৬'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj