ভোলায় আওয়ামী লীগের জেলা সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী : খালেদা জিয়ার ষড়যন্ত্র এখনো বন্ধ হয়নি

মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

এ জেড এম মনিরুল ইসলাম, ভোলা থেকে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, খালেদা জিয়ার ষড়যন্ত্র এখনো বন্ধ হয়নি। বিএনপি-জামায়াতও ষড়যন্ত্র করছে। আগামী ২০১৯ সালে নির্বাচন হবে। তার একদিন আগেও হবে না নির্বাচন। সেই নির্বাচন হবে শেখ হাসিনার অধীনে। অন্য কোনোভাবে হবে না। দীর্ঘ প্রায় ৯ বছর পর গত শনিবার ভোলা জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ সময় ভোলাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবির পরিপ্রেক্ষিত ভোলায় একটি মেডিকেল কলেজ স্থাপন করা হবে বলে উল্লেখ করেন।

বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, জ্বালাও-পোড়াও বন্ধ করেছেন। এখন ঠাণ্ডা আছেন ভালো কথা। ২০১৯ সালের নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হন। নির্বাচনের মাঠে খেলা হবে।

শনিবার দুপুর ১২টায় শহরের সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করে এবং পাঁয়রা ও বেলুন উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। জেলার ৭ উপজেলা থেকে প্রায় ২০ হাজার নেতাকর্মী সম্মেলনে অংশ নেন।

অপরদিকে ফুল নিয়ে আওয়ামী লীগের এ সম্মেলনে বিএনপির প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত হন বিএনপি নেতা সাবেক ধর্মপ্রতিমন্ত্রী মোশারেফ হোসেনের জ্যেষ্ঠ পুত্র আসিফ আলতাফ ও দৌলতখান বিএনপি নেতা এডভোকেট জহুরুল ইসলাম খুশবু। সম্মেলনের শেষ পর্বে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ফজলুল কাদের মজনু মোল্লাকে সভাপতি ও আবদুল মমিন টুলুকে সাধারণ সম্পাদক করে নতুন কমিটি ঘোষণা করেন।

এদিকে সম্মেলনে বিএনপিপন্থী ভোলা জেলা আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ফিরোজ কিবরিয়াসহ ৪০ জন আইনজীবী আওয়ামী লীগে যোগ দেন।

ভোলা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুল কাদের মজনু মোল্লার সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান বক্তা জনপ্রশাসনমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ

আশরাফুল আলম এমপি বলেন, আগামী নির্বাচনে ভোলার প্রতিটি সংসদীয় আসনে নির্বাচিত হতে হবে। তাই প্রতিটি আসনে সংগঠনকে শক্তিশালী করতে হবে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য এডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, যুগ্ম০ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি, জাতীয় সংসদের হুইপ আ স ম ফিরোজ এমপি, বীর বাহাদুর এমপি, বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক হাসান মাহমুদ, সাবেক খাদ্যমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক এমপি, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এডভোকেট আফজাল হোসেন, বন ও পরিবেশ উপমন্ত্রী ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব, ভোলা-৩ আসনের সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন, ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল এমপি, ভোলা জেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক আবদুল মমিন টুলু, সদর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন, ভোলা পৌর মেয়র আলহাজ মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশারেফ হোসেন প্রমুখ।

এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন- কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মাহাবুবুর রহমান হিরণ, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপকমিটির সহসম্পাদক হেমায়েত উদ্দিন, মিজানুর রহমান শাহিন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাইনুল হোসেন বিপ্লবসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় এক ডজনের বেশি নেতা এবং জেলার ৭ উপজেলার চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানরা।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj