বাহুবলে ৪ শিশু হত্যায় আরো ২ জন রিমান্ডে একজনের স্বীকারোক্তি

মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

শফিকুল আলম চৌধুরী, হবিগঞ্জ থেকে : জেলার বাহুবল উপজেলার সুন্দ্রাটিকি গ্রামে চাঞ্চল্যকর ৪ শিশু হত্যার ঘটনায় আটক আরো দুইজনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কৌশিক আহমেদের আদালতে গ্রেপ্তারকৃত আসামি হাবিবুর রহমান আরজু ও বশিরপক রিমান্ড শুনানির জন্য হাজির করা হয়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবির ইন্সপেক্টর তাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড প্রার্থনা করলে আদালত শুনানি শেষে হাবিবুর রহমান আরজুকে ৭ দিনের এবং বশিরকে ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিকে ১০ দিনের রিমান্ডে থাকা আসামি জুয়েল গত রোববার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কৌশিক আহমেদের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে। ইতোপূর্বে তার ভাই রুবেলও একই ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। এ সময় তারা হত্যার লোমহর্ষক বর্ণনা দেয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামি রুবেল ও জুয়েলের বাবা আবদুল আলী বাগালকে ১০ দিনের রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এদিকে জানা যায়, এ ঘটনায় পুলিশের কোনো ধরনের গাফিলতি রয়েছে কিনা এ ব্যাপারে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলামকে প্রধান করে ৩ সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদের আজ মঙ্গলবার তদন্ত প্রতিবেদন দেয়ার জন্য তারিখ ধার্য রয়েছে।

উল্লেখ্য, ৪টি শিশু নিখোঁজ হওয়ার পাঁচ দিন পর গত বুধবার বেলা ১১টার দিকে বাড়ির পাশে মাটি চাপা অবস্থায় তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

অপরদিকে ৪ শিশু হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবিতে মানববন্ধন করেছে হবিগঞ্জ ছাত্র সমন্বয় ফোরাম। গতকাল সোমবার সকালে সাইফুর রহমান টাউন হলের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে জেলার সব স্তরের মানুষ অংশগ্রহণ করেন। সংগঠনের সভাপতি সুলতান মাহমুদ কাউসারের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন- জেলা রেডক্রিসেন্ট ইউনিট সেক্রেটারি আতাউর রহমান সেলিম, চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালক মিজানুর রহমান মিজান, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ডা. ইশতিয়াক রাজ চৌধুরী প্রমুখ। বক্তারা এ বর্বর ঘটনায় জড়িত সবার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন। পরে সংগঠনের পক্ষ থেকে নিহতদের পরিবারের জন্য মানবিক সাহায্য তোলা হয়।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj