খাগড়াছড়িতে পার্বত্য ছাত্রপরিষদের ডাকে অবরোধ পালিত

মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

কাগজ প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি : পার্বত্য চট্টগ্রাম বাঙালি ছাত্রপরিষদের (পিবিসিপি) অবরোধ চলাকালে খাগড়াছড়ি জেলা সদরে পুলিশ ও পাহাড়ি সাধারণ জনগণের সঙ্গে পিকেটারদের পৃথক পৃথকভাবে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আদালত সড়ক এলাকায় পার্বত্য বাঙালি ছাত্রপরিষদের নেতাকর্মীদের অবরোধের সমর্থনে পিকেটিংয়ের সময় পুলিশ বাধা দেয়। বাধা উপেক্ষা করে পিকেটিং করতে চাইলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। এতে পিবিসিপির ৮ সমর্থক আহত হয়।

পরে তারা ছত্রভঙ্গ হয়ে শাপলা চত্বর এলাকায় আবারো জড়ো হয়। সেখানে কিছুক্ষণ পিকেটিং করে খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ অভিমুখে যাওয়ার পথে মহাজনপাড়া সূর্য শিখা এলাকায় ব্যাটারিচালিত একটি অটোরিকশাকে ধাওয়া দিলে অটোরিকশাচালক দ্রুতগতিতে গাড়ি নিয়ে সরে যেতে গিয়ে উল্টে যায়। এতে অটোরিকশায় থাকা দুই যাত্রী আহত হয়। তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের নাম জানা যায়নি। এর আগে সকালে সড়ক অবরোধের সমর্থনে জেলা সদর ও মাটিরাঙাসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে মিছিল নিয়ে পিকেটিং করে পিবিসিপির সমর্থকরা। খাগড়াছড়ির আলুটিলায় মোটরসাইকেল চালককে অপহরণ করে হত্যা ও পানছড়িতে চাঁদার জন্য অপহৃত সড়ক উন্নয়ন কাজে নিয়োজিত ঠিকাদার সাইফুউদ্দিন শাহীন গাজী ও ম্যানেজার রুহুল আমীনকে উদ্ধারের দাবিতে সংগঠনটি এ সড়ক অবরোধের ডাক দেয়।

অবরোধের কারণে জেলায় দূরপাল্লা ও অভ্যন্তরীণ সড়কে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। অবরোধের সমর্থনে সকাল থেকে পার্বত্য বাঙালি ছাত্রপরিষদের নেতাকর্মীরা বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থায় নিয়ে রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে।

পুলিশের সদর সার্কেল এএসপি রইছ উদ্দিন জানান, বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ছাড়া পিবিসিপির ডাকা সড়ক অবরোধ চলেছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ সদস্যরা সজাগ রয়েছে। হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত গত বৃহস্পতিবার খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙায় মোটরসাইকেল চালক আজিজুল হাকিম শান্ত নিখোঁজ হন। চারদিন পর গত রোববার খাগড়াছড়ি পর্যটন কেন্দ্র রিছাং ঝর্ণা এলাকা থেকে তার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। অপরদিকে, গত ১৪ ফ্রেব্রুয়ারি খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ির তালতলা এলাকা থেকে সড়ক উন্নয়ন কাজে নিয়োজিত ঠিকাদার সাইফুউদ্দিন শাহীন গাজী ও ম্যানেজার রহুল আমীনকে সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে এবং পরে ৫০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

খাগড়াছড়ির পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মজিদ আলী জানান, আজিজুল হাকিম শান্ত হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। অপহৃত দুই ঠিকাদারকে উদ্ধারে প্রশাসন সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj