একাধিক জার্মান মন্ত্রণালয়ে আড়ি পেতেছে এনএসএ

শনিবার, ৪ জুলাই ২০১৫

কাগজ ডেস্ক : উইকিলিক্সের ফাঁস করা নতুন তথ্য অনুযায়ী মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা যে শুধু জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের টেলিফোনের ওপর নজর রেখেছে, এমন নয়; অর্থ, অর্থনীতি এবং কৃষি মন্ত্রণালয়েও আড়ি পেতেছে এনএসএ।

মাত্র মাস খানেক আগে সরকারি কৌঁসুলি ম্যার্কেলের ফোনে আড়ি পাতা নিয়ে তদন্ত বাতিল করেন এই বলে যে, কোনো নতুন সাক্ষ্যপ্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে না। এবার জার্মানির স্যুডডয়েচে সাইটুং দৈনিক ২০১০ সাল থেকে ২০১২ সাল অবধি বিভিন্ন জার্মান মন্ত্রী ও মন্ত্রণালয়ের ওপর এনএসএর আড়ি পাতার খবর, ৬৯টি টেলিফোন নম্বরের তালিকা এবং অন্তত দুটি ইন্টারসেপ্টের অনুলিপি প্রকাশ করার পর, সবুজ দলের রাজনীতিক ক্রিস্টিয়ান স্ট্র্যোবেলে দাবি করেছেন যে, সরকারি কৌঁসুলির পুনরায় তদন্ত চালু করা উচিত।

প্রসঙ্গত, এই স্ট্র্যোবেলেই ২০১৩ সালের অক্টোবর মাসের শেষে মস্কোয় গিয়ে ‘হুইসলবেøায়ার’ এডওয়ার্ড স্নোডেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। এমনকি দাবি করেন যে, স্নোডেনকে জার্মানিতে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য জার্মান সরকারের তাকে নিরাপত্তার গ্যারান্টি দেয়া উচিত। অর্থাৎ স্যুডডয়েচে সাইটুং এবং সরকারি এআরডি টেলিভিশন সংস্থার ফাঁস করা এই সর্বাধুনিক কেলেঙ্কারি জার্মান অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে আবার ঝড় তোলার ক্ষমতা রাখে।

প্রথমে ম্যার্কেলের মোবাইলের ওপর আড়ি পাতার অভিযোগ; তার পর ইউরোপের অপরাপর দেশে। যেমন ফ্রান্সে এনএসএর আড়ি পাতায় জার্মান গুপ্তচর সংস্থা বিএনডির সহযোগিতার অভিযোগ; সবশেষে ওলঁদসহ একাধিক ফরাসি প্রেসিডেন্টের ওপর এনএসএর নজরদারির অভিযোগ। সব সত্ত্বেও বার্লিন কিংবা ওয়াশিংটন, কোনো পক্ষই জার্মান-মার্কিন মৈত্রী সুলভ সম্পর্কে আঁচড় পর্যন্ত পড়তে দেয়নি। কিন্তু এবার যে ধরনের ব্যাপক অর্থনৈতিক গুপ্তচরবৃত্তির আভাস দেয়া হয়েছে, তাতে সংসদ, সরকার এবং জার্মান জনমত, তিনটি ক্ষেত্রেই কোনো না কোনো প্রতিক্রিয়া প্রত্যাশা হবে। তা সে প্রীতিকর অথবা সুবিধাজনক হোক আর না-ই হোক। বিভিন্ন মন্ত্রী ও মন্ত্রণালয়ের ৬৯টি সরকারি টেলিফোনের ওপর আড়ি পেতেছে এনএসএ। তার মধ্যে ছিলেন বর্তমান অর্থনীতি মন্ত্রী ও ভাইস চ্যান্সেলর জিগমার গাব্রিয়েল। যদিও তিনি তখন বিরোধীপক্ষে ছিলেন; সাবেক অর্থমন্ত্রী অস্কার লাফন্টেইন অথবা হালের অর্থমন্ত্রী ভল্ফগাং শয়েবলেকেও পাওয়া যাবে সেই তালিকায়। তালিকার কিছু কিছু টেলিফোন নম্বর নাকি এখনো সচল!

দূরের জানালা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj