ব্রিটেনেও ভাড়া করা লোক দিয়ে রাজনৈতিক সমাবেশ!

শনিবার, ২৭ জুন ২০১৫

কাগজ ডেস্ক : প্রায়ই অভিযোগ করা হয় যে, যুক্তরাজ্যের রাজনীতিবিদদের কারিশমা প্রদর্শন ও ভোটারদের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনে সক্ষমতার ঘাটতি রয়েছে। কিন্তু রাজনৈতিক সভা-সমাবেশে লোক-সমাগম বাড়াতে অর্থের বিনিময়ে ভাড়া করা সমর্থক পাওয়া গেলে ঘরে বসে টিভিতে ‘গেম অব থ্রোনস’ দেখার কোনো মানে হয় না। ‘রেন্ট অ্যা ক্রাউড’ নামে যুক্তরাজ্যের একটি কোম্পানি যে কোনো ধরনের সভা-সমাবেশে অর্থের বিনিময়ে ভাড়া করা লোক সরবরাহ করে। রাজনৈতিক প্রচার-প্রচারণাতেও অর্থের বিনিময়ে লোক সরবরাহ করে কোম্পানিটি।

যুক্তরাজ্যের জনপ্রিয় দৈনিক দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্টের অনলাইন সংস্করণে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, দেশটির রাজনৈতিক দলগুলোও ওই কোম্পানি থেকে লোক ভাড়া করে সভা-সমাবেশ ও নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজনৈতিক দলগুলোর পক্ষ হয়ে কর্মরত জনসংযোগ সংস্থাগুলো তাদের জন্য ওই কোম্পানি থেকে লোক ভাড়া করার কাজটি করে থাকে। তবে কোনো রাজনৈতিক দলের জন্য লোক সরবরাহ করা হয় তা কখনো প্রকাশ করে না কোম্পানিটি।

যুক্তরাজ্যের প্রধান তিন রাজনৈতিক দল রক্ষণশীল, লিবারেল ডেমোক্রেট ও লেবার পার্টিও ওই কোম্পানির সঙ্গে এমন কোনো লেনদেনের সম্পর্ক অস্বীকার করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান এবং ডেমোক্রেটরাও এভাবে লোক ভাড়া করে সভা-সমাবেশে জনসমাগম ও সমর্থকের উপস্থিতি বাড়ায় বলে দাবি করা হয় ওই প্রতিবেদনে। এমনকি ভাড়া করা লোকদের দিয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর জন্য ইতিবাচক স্লোগান ও প্রচারণা চালানো হয় বলেও কথিত আছে। অবশ্য, রেন্ট অ্যা ক্রাউড নামের ওই কোম্পানির দাবি তারা শুধু লোক সমাগম বাড়ানোর জন্যই মানুষ ভাড়া দেয়। রাজনৈতিক দলগুলোর পক্ষ হয়ে প্রচার-প্রচারণা চালানোর কোনো কাজ তারা করে না। রেন্ট অ্যা ক্রাউড আরো দাবি করেছে, তারা এমনকি শবযাত্রায় লোক সমাগম ও উপস্থিতি বাড়ানোর জন্যও মানুষ ভাড়া দিয়ে থাকে!

দূরের জানালা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj