রিটার্নিং অফিসারকে বিএনপির চিঠি : চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচন ও ফলাফল বাতিলের দাবি

শুক্রবার, ১ মে ২০১৫

চট্টগ্রাম অফিস : চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ও ফলাফল বাতিল এবং পুনর্নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানিয়েছে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী মনজুর আলমের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী। গতকাল বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসারের কাছে তিনি এ-সংক্রান্ত একটি চিঠি দেন।

চিঠিতে বলা হয়, জনগণের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার তাগিদে নির্বাচন কমিশনের সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে আমরা চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিলাম। কিন্তু নির্বাচনের দিন ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের নেতাকর্মী, নির্বাচনী কাজে সম্পৃক্ত আহ্বায়কসহ নির্বাচন পরিচালনা কমিটির লোকজন ও এজেন্টদের বাসায় বাসায় পুলিশ তল্লাশি ও হয়রানি এবং অনেককে গ্রেপ্তার করে। এমনকি বিভিন্ন স্থানে পুলিশের কিছু কর্মকর্তা প্রকাশ্যে মেয়রপ্রার্থী মনজুর আলমের পক্ষে এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন না করার জন্য হুমকি প্রদান করেন।

এ ছাড়াও নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর সময় বিভিন্ন এলাকায় সরকারদলীয় প্রার্থীর সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়।

ভোটের দুদিন আগে থেকে হাজার হাজার বহিরাগত সন্ত্রাসীদের চট্টগ্রামের বিভিন্ন হোটেল, কটেজ, ডরমেটরিসহ বিভিন্ন জায়গায় জড়ো করা হয়। এসব বিষয়ে অভিযোগ জানানোর পরেও কার্যকর ও দৃশ্যমান কোনো ব্যবস্থাই গ্রহণ করা হয়নি। তার পরও জনগণের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা ও গণতন্ত্রকে সুসংগঠিত করার লক্ষ্যে আমরা নির্বাচন থেকে সরে আসিনি।

কিন্তু ২৮ এপ্রিল ভোটগ্রহণ শুরুর পর মুহ‚র্ত থেকে যা ঘটেছে তা নগরবাসী, দেশি-বিদেশি পর্যবেক্ষক ও গণমাধ্যমকর্মীরা অবাক বিস্ময়ে প্রত্যক্ষ করেছে।

চিঠিতে আরো বলা হয়, বেলা ১১টার আগেই সরকারদলীয় সন্ত্রাসীরা প্রায় ৮০ শতাংশ কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বের করে দিয়ে প্রতিটি কেন্দ্র নিজেদের দখলে নেয়। এমতাবস্থায় জনগণের মৌলিক, মানবিক ও শাসনতান্ত্রিক অধিকারের প্রতি সম্মান দেখিয়ে অবিলম্বে আমরা ২৮ এপ্রিলের নির্বাচন ও ফলাফল বাতিল করে পুনর্নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানাচ্ছি।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj