তামাকবিরোধী জোটের মানববন্ধন : শাহজালালে ১১ লাখ টাকার সিগারেট ও ওষুধ উদ্ধার

রবিবার, ২১ ডিসেম্বর ২০১৪

কাগজ প্রতিবেদক : ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৩২০ কার্টন বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বিদেশি সিগারেটসহ বিপুল পরিমাণ ওষুধ উদ্ধার করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। গতকাল শনিবার দুপুরে এগুলো উদ্ধার করা হয়। গোয়েন্দা অধিদপ্তরের দাবি, উদ্ধার হওয়া সিগারেট ও ওষুধের দাম প্রায় ১১ লাখ টাকা।

শুল্ক ও গোয়েন্দা বিভাগের সহকারী পরিচালক উম্মে নাহিদা আক্তার জানান, কাস্টমস হলের ৪ নম্বর বেল্টের সামনে পরিত্যক্ত অবস্থায় দুটি ব্যাগের মধ্যে সিগারেট ও ওষুধ পাওয়া যায়। এগুলো পিআই-২৬৬-এর একটি ফ্লাইটে পাকিস্তান থেকে ঢাকা এসেছিল।

এদিকে, দেশে সমুদ্র ও বিমানপথে চোরাই সিগারেট আমদানি বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মানবিক, প্রত্যাশা, এনডিএফ, গ্রিন মাইন্ড সোসাইটি, বাদসা, ঘাসফুল, নদী ও ডব্লিউ বিবি ট্রাস্ট’ এর সমন্বয়ে গঠিত বাংলাদেশ তামাকবিরোধী জোট। গতকাল জাতীয় প্রেক্লাবের সামনে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন অনুযায়ী স্বাস্থ্য সতর্কবাণী প্রদান, আমদানিকৃত বিদেশি সিগারেট বাজেয়াপ্ত ও ধ্বংস করার দাবি’ শীর্ষক এক মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে এ উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়।

বক্তারা বলেন, বিদেশি চোরাই সিগারেটের কারণে দেশে ধূমপায়ীর সংখ্যা কমছে না। উচ্চমূল্যের কারণে যেসব তরুণের ধূমপান ছাড়ার কথা সেসব তরুণকে টার্গেট করেই দেশে ঢুকছে এসব চোরাই সিগারেট। এ কারণে শুল্কহার বাড়িয়ে তরুণ ধূমপায়ীদের নিরুৎসাহিত করার কৌশল মাঠে মারা যাচ্ছে। আমদানি শুল্কের বাইরে থাকায় চোরাই বিদেশি সিগারেট তরুণরা পাচ্ছে স্বল্পমূল্যে। এ কারণে সরকার প্রতি বছরে প্রায় ১১০ কোটি টাকা রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj