উখিয়ায় বিজয়মেলার নামে চলছে অনৈতিক কর্মকাণ্ড

রবিবার, ২১ ডিসেম্বর ২০১৪

উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি : উখিয়ার পালং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে বিজয়ের মাসকে সামনে রেখে চলছে জুয়ার আসরসহ নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ড। এখানে চলছে জুয়া, পুতুল নাচ-গান, র‌্যাফেল ড্র, সাবান খেলা, চাকতি খেলাসহ বিভিন্ন খেলা। এতে সাধারণ মানুষ, ব্যবসায়ী, যুবকরাসহ স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীরা এসব খেলা খেলে সর্বস্বান্ত হচ্ছে। এতে নৈতিক অবক্ষয়ের পাশাপাশি পারিবারিক ও সামাজিক পরিবেশ বিনষ্ট হচ্ছে। সরজমিন গিয়ে দেখা গেছে, গত ১৬ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া এ বিজয়মেলায় রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির থেকে আওয়ামী লীগের কতিপয় নেতারা টাকার বিনিময়ে উঠতি বয়সের রোহিঙ্গা তরুণী ভাড়া করে নৃত্যের আসর বসিয়েছে। এসব অবৈধ বাণিজ্যের নেপথ্যে রাজাপালং এলাকার উত্তর পুকুরিয়া গ্রামের পেশাদার জুয়াড়ি এস কামাল নামের এক ব্যক্তি কাজ করছেন বলে জানা গেছে। অভিযোগ উঠেছে গত বৃহস্পতিবার রাতে বেলাল নামের এক যুবক ইয়াবা সেবন ও মদ্যপ অবস্থায় এক প্রবাসীর স্ত্রীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এ ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মেলা বন্ধের কোনো উদ্যোগ নিচ্ছে না।

বিজয়মেলায় মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানের কথা বলা হলেও গত শুক্রবার রাতে দেখা যায়, ওখানে স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান হয়নি। প্যান্ডেলের ভেতরে পূর্বপাশে পুতুল নাচের নামে জ্যান্ত পুতুল নাচিয়ে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। পাশে সাবান ও চাক্কা খেলায় স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসাপড়–য়া ছাত্ররা লাইনে দাঁড়িয়ে এ খেলায় অংশ নিচ্ছে। উত্তর পাশে মৃত্যুক‚পে মোটরসাইকেল খেলার নামে হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। মধ্যবর্তী স্থানে লোভনীয় পুরস্কারের কথা বলে র‌্যাফেল ড্র চলছে। পশ্চিম ও দক্ষিণ পাশে ৬টি জুয়ার আসর বসিয়ে নির্বিঘ্নে চালিয়ে যাচ্ছে অনৈতিক কর্মকাণ্ড। শতাধিক লাঠিয়াল বাহিনী এ মেলায় সার্বক্ষণিক পাহারা দিচ্ছে। তাদের রয়েছে স্বেচ্ছাসেবক কার্ডও।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিজয়মেলার আয়োজক পরিষদের সভাপতি আদিল উদ্দিন চৌধুরী মেলা পরিষদের ব্যবস্থাপনা কমিটির কার্যক্রমে অসন্তোষ প্রকাশ করেন এবং তিনি ওই কমিটি থেকে সরে দাঁড়াবেন বলেও জানান। পরে রাতের দেখা যায়, তিনিই নৃত্যের মঞ্চে উঠে টিকেটবিহীন প্রবেশকারীদের বেরিয়ে যাওয়ার কথা বলে আয়োজকদের সহযোগিতার জন্য দর্শনার্থীদের আহ্বান জানান।

বিজয়মেলা উদযাপন কমিটির মহাসচিব পরিমল বড়–য়া অসুস্থ থাকার অজুহাত দেখিয়ে কোনো মন্তব্য করতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj