দিুশ্চিন্তা যখন ব্রণের

রবিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৪

রূপচর্চার আর দশটা বিষয়ের চাইতে ব্রণের বিষয়টি সবসময়ই রূপসচেতন মানুষের কাছে একটু বাড়তি গুরুত্ব পেয়ে আসছে। কেননা এমনিতে কারো ত্বক উজ্জ্বল হোক কিংবা অনুজ্জ্বল যাই হোক না কেন ব্রণের সমস্যা যখন সেই ত্বকে যোগ হয় তখন রূপচর্চার চাইতে রূপের স্বাভাবিকতা ধরে রাখাটাই হয়ে ওঠে বড় একটি চ্যালেঞ্জ। এ কারণে রূপ বিশেষজ্ঞের চেম্বার থেকে শুরু করে পত্রিকার পাতা অবদি সবখানেই ব্রণ মোকাবেলার নানা দিক নিয়ে আলোচনা করা হয়। এর ফলে ব্রণ কেন হয় এবং কিভাবে কিছু কৌশল অবলম্বন করে ব্রণের সমস্যা থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রাখা যায় সেটি নিয়ে অনেকেই কমবেশি জানেন। তবে যারা এতোকাল জেনেও মানেননি কিংবা মানলেও সুফল পাননি তাদের জন্যই কিছু বিষয় এখানে তুলে ধরা হলো।

সাধারণত শুষ্ক এবং তৈলাক্ত দু’ধরনের ত্বকেই কমবেশি ব্রণের দেখা মেলে। তবে আনুপাতিক হারে তৈলাক্ত ত্বকের অধিকারীরাই ব্রণ সমস্যায় বেশি ভোগেন। এছাড়া ব্রণের হাত থেকে রক্ষা পেতে হলে সহজ-স্বাভাবিক আরো যেসব বিষয় মাথায় রাখতে হবে সেগুলো হলো-

০ বেশি করে পানি খাওয়া

০ চুলে খুশকি থাকলে তা দূর করা

০ খাবারের তালিকায় শাকসবজির পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়া

০ ভাজা-পোড়া খাবার এড়িয়ে চলা

০ নিয়মিত গোসল করা

০ পেটের সমস্যা থাকলে পেট পরিষ্কার রাখার উদ্যোগ নেয়া

০ ভিটামিন ও মিনারেল যুক্ত খাবার খাওয়া

০ পরিধেয় বস্ত্র ও তোয়ালে পরিষ্কার রাখা

০ দুশ্চিন্তা না করা

০ সম্ভব হলে মাসে একবার ফেসিয়াল এর মাধ্যমে ত্বকের উপরিভাগ পরিষ্কার রাখা এবং

০ তৈলাক্ত ত্বকের তৈলাক্ততা দূর করতে অ্যাস্ট্রিনজেন্ট লোশন ব্যবহার করা।

সাধারণত তৈলাক্ত বা অন্য যেকোনো ত্বকে লোমকূপ যখন ময়লা পড়ে বন্ধ হয়ে যায় তখন ত্বকের স্বাভাবিক নিঃসরণ বন্ধ হয়ে ব্রণের জন্ম হয়। এ কারণে ত্বকের উপরিভাগে যেন কোনো ধরনের ময়লা জমে লোমকূপ বন্ধ হয়ে না যায় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। সম্ভব হলে ফেসওয়াশ বা ময়েশ্চারাইজার যুক্ত সাবান দিয়ে দিনে কয়েকবার মুখ ধুতে হবে। বিশেষ করে যারা কাজের প্রয়োজনে বাইরে ঘোরাঘুরি করেন তারা অবশ্যই বাইরে থেকে এসে ভাল করে মুখ ধুয়ে ফেলবেন। এছাড়া গরমের সময় যারা অতিরিক্ত ঘামেন তারা সে সময়টায় একটু পর পর মুখে ঠান্ডা পানির ঝাপটা দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে ফেলতে পারেন। এতে করে অতিরিক্ত ঘাম এবং ঘামবাহিত ময়লা জমে লোমকূপ বন্ধ হওয়ার আশঙ্কা থাকবে না। অন্যদিকে যাদের ত্বক অতিমাত্রায় তৈলাক্ত তারা মুখ ভাল করে ধুয়ে তাতে বেট ক্রিম ও পাউডার লাগিয়ে বাইরে যেতে পারেন। এতে করে ত্বকের উপরিভাগে যে প্রলেপ সৃষ্টি হয় তা বাইরের ধূলো-ময়লা লোমক‚পে ঢুকতে বাধার সৃষ্টি করে। অন্যদিকে যাদের ত্বক শুস্ক তারা সাবানের পরিবর্তে ফেসওয়াশ ব্যবহার করবেন এবং অবশ্যই মুখ ধোবার পর ত্বকের সাথে মানানসই ময়েশ্চারাইজিং লোশন ব্যবহার করবেন। এছাড়া যারা মেকআপ করে বাইরে যান তারা অবশ্যই বাইরে থেকে ফিরবার পর ক্লিনজার বা মেকাপ রিমুভার দিয়ে ভাল করে ত্বক পরিষ্কার করবেন। একইভাবে যাদের ত্বকে ঘুম থেকে ওঠার পর সকালে অনেক তেল জমে থাকতে দেখা যায় তারাও সকালে ক্লিনজার দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে নেবেন। তবে এইসব প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থার পরেও যারা ব্রণের সমস্যায় ভোগেন তাদেরকে অবশ্যই ত্বক বিশেষজ্ঞের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ফেসিয়াল বা উপটান এর দ্বারস্থ হতে হবে।

মডেল : লাক্স তারকা নীলা

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj