টু ক রো খ ব র

রবিবার, ৯ নভেম্বর ২০১৪

বিলাসিতার নাম মার্সিডিজ সি-ক্লাস

ভারতের বাজারে আসছে মার্সিডিজের নয়া গাড়ি মার্সিডিজ সি ক্লাস। এ মাসের শেষের দিকে দিল্লি ও মুম্বইয়ে বাজারে আসতে চলেছে তাদের নতুন বিলাসবহুল গাড়িটি। মাস ছয়েক আগেই ইউরোপ ও আমেরিকার বাজারে মার্সিডিজ তাদের এই নতুন গাড়িটি লঞ্চ করেছে। সি-ক্লাসের এই সেডান গাড়িটির ভারতের বাজারে দাম পড়বে ৪০ থেকে ৪৫ লাখ টাকার মধ্যে। ভারতের বাজারে প্রথম গাড়িটির পেট্রোল মডেলটি লঞ্চ করা হবে। তার কিছুদিন পর আসবে ডিজেল চালিত মডেলটি। মার্সিডিজের বিলাসবহুল এই নতুন গাড়িটিতে যাত্রী স্বাচ্ছন্দ্য ও সুরক্ষার দিকে বিশেষ জোর দেয়া হয়েছে। বিলাসবহুল এই গাড়ি ২.০ লিটার পেট্রোল এবং ২.২ ডিজেল-এই দুটি ইঞ্জিন মডেলে পাওয়া যাবে। গাড়িটিতে থাকবে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ইঞ্জিন। আছে ৭টি ট্রনিক অটোমেটিক গিয়ার বক্স গাড়িটি পেট্রোল ডিজেল দুটি মডেলেই পাওয়া যাবে। ভারতীয় বাজারে গাড়িটি জনপ্রিয় হবে বলেই মাসিডিজ কতৃপক্ষের আশা।

নাগালের মধ্যেই স্বয়ংক্রিয় গাড়ি!

দশ বছরের মধ্যেই বাজারে আসতে পারে স্বয়ংক্রিয় গাড়ি এবং তা সাশ্রয়ী মূল্যে। অস্ট্রেলিয়ার পার্থের কারটিন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা স¤প্রতি এমন আশার বাণী শুনিয়েছেন। তারা গাড়িকে স্বয়ংক্রিয় বুদ্ধিমান করে তোলার লক্ষ্যে গাড়িতে যুক্ত করা বিভিন্ন সেন্সর থেকে সংগৃহীত তথ্য বিশ্লেষণ করে তা বিশেষ একটি অ্যালগরিদমের মাধ্যমে কাজে লাগানোর পদ্ধতি নিয়ে কাজ করছেন।

গবেষকরা জানান, তাদের উদ্ভাবিত ‘আইস অ্যান্ড এয়ারস’ প্রযুক্তির কল্যাণেই কম দামে চালকবিহীন গাড়ি শিগগিরই বাজারে আসবে। তারা জানান, উদ্ভাবিত পদ্ধতিতে প্রয়োজনীয় অর্থবহ তথ্য কাজে লাগাতে পারবে চালকবিহীন গাড়ি, যা পরিবেশ-পরিস্থিতি বুঝতে এবং রাস্তায় যেসব বাধার মুখে পড়তে হয় সেগুলোকেও অতিক্রম করে যেতে পারবে। কারটিন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক বা টুয়োং ভো জানান, স্বয়ংক্রিয় এই গাড়ি বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন করা যাবে। এমনকি কম খরচেই গাড়ি তৈরি করা যাবে।

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj