নতুন বছরকে স্বাগত জানালেন ক্রিকেটাররা

আগের সংবাদ

জামানত হারালেন ব্যারিস্টার মওদুদ

পরের সংবাদ

নেপালে বিদ্যুৎ রফতানি করতে চায় সরকার

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ১, ২০১৯ , ৭:০৬ অপরাহ্ণ | আপডেট: জানুয়ারি ১, ২০১৯, ৭:০৬ অপরাহ্ণ

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ জানিয়েছেন, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছানোর পর আগামী ৫ বছরের মধ্যে নেপালে বিদ্যুৎ রফতানি করতে চায় সরকার।

তিনি বলেন, আমাদের এখন অনেক বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদন হয় যা শীতকালে আমাদের প্রয়োজন হয় না। কিন্তু খরচ ঠিকই থাকে। তাই আগামী শীতকালে বিদ্যুৎ রফতানির ইচ্ছা রয়েছে।

আজ মঙ্গলবার মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে নিবাচন পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এই সময় পিডিবির চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ এবং পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহম্মদ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, পাওয়ার সিস্টেম মাস্টার প্ল্যান আবারও সংশোধন করে কোন জ্বালানিতে কতটুকু বিদ্যুৎ নেবো তা ঠিক করতে হবে। সম্প্রতি ভারতের আন্তঃসীমান্ত বিদ্যুৎ বাণিজ্য নীতিমালা সংশোধন করে প্রতিবেশীদের তাদের ভুখণ্ড ব্যবহার করার সুযোগ দিয়েছে। এতে বাংলাদেশ আরও সাশ্রয়ী মূল্যে ভারতের বেসরকারি খাত থেকে বিদ্যুৎ আমদানি করতে পারবে। একইসঙ্গে নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে যে আন্তঃদেশীয় গ্রিডলাইন নির্মাণ করা হবে তা দিয়ে শুষ্ক মৌসুমে বাংলাদেশ ওই দুটি দেশে বিদ্যুৎ রফতানি করতে পারবে।

তিনি বলেন, গত দশ বছর আওয়ামী লীগ সরকারের সময় ৯৪ ভাগ মানুষের ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে। একইসঙ্গে এলপিজির ব্যাপক সম্প্রসারণ হয়েছে। এখন এই দুই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করলে বিদ্যুৎ ও জ্বালানিখাত স্বয়ংসম্পূর্ণ হবে বলে মনে করছি।

তিনি আরও বলেন, আগামী পাঁচ বছরে সরকারের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হবে প্রকল্পের জন্য অর্থের সংস্থান করা। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে প্রায় ৪০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ প্রয়োজন হবে। তবে আওয়ামী লীগ সরকারের এই বিপুল বিজয়ে বড় বড় দেশগুলো সরকারের প্রতি আস্থা রেখেছে। ফলে অর্থায়ন নিশ্চিত করা কঠিন বিষয় হবে না বলেই মনে করি।