ছোট দলগুলোকে অনুদান দেয় জার্মান সরকার

আগের সংবাদ

ভিকারুননিসার শ্রেণি শিক্ষিকা হাসনা হেনা গ্রেপ্তার

পরের সংবাদ

২০১৯ সালে ৪ হাজার মহড়া চালাবে রাশিয়া

প্রকাশিত হয়েছে: ডিসেম্বর ৫, ২০১৮ , ১০:৫৫ অপরাহ্ণ | আপডেট: ডিসেম্বর ৫, ২০১৮, ১০:৫৫ অপরাহ্ণ

যুক্তরাষ্ট্র ক্ষেপণাস্ত্র চুক্তি বাতিল করার উদ্যোগ নেয়ায় রাশিয়া আগামী বছর চার হাজারেরও বেশি সামরিক মহড়ার আয়োজন করবে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রী।

রাশিয়ার সামরিক ও গোয়েন্দা সংস্থার নেতৃস্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলার সময় রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শয়গু জানান, তার দেশ ২০১৯ সালে বিভিন্ন আকারের চার হাজার সামরিক ও সাড়ে আট হাজার বাস্তব যুদ্ধ প্রশিক্ষণের আয়োজন করবে।

মঙ্গলবার সোচি শহরে আয়োজিত সম্মেলনে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বলেন, রাশিয়া অস্ত্র প্রতিযোগিতার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে, জানায় মার্কিন পত্রিকা নিউজউইক।

‘যুক্তরাষ্ট্র আইএনএফ চুক্তি ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করায় রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর যুদ্ধ সক্ষমতা বাড়ানোর বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে,’ সম্মেলনে বলেন শয়গু।

২১ অক্টোবর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মাঝারি পাল্লার পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র চুক্তি বা আইএনএফ বাতিল করার ঘোষণা দেন।

আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প জানান, ২০১৮ সালে যুক্তরাষ্ট্র সামরিক খাতে ৭১ হাজার ছয়শ’ কোটি ডলার ব্যয় করেছে।

‘আগামী বছর অত্যন্ত ব্যস্ততার মধ্যে কাটবে’ জানিয়ে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বলেন, এসব মহড়ার প্রধান লক্ষ্য হবে বর্তমানের সশস্ত্র যুদ্ধে সৈন্যদেরকে দক্ষতার সঙ্গে মোতায়েনের অনুশীলন করা। একই সঙ্গে অপ্রচলিত বিভিন্ন কাজে তাদের দক্ষ করে তোলাও হবে প্রশিক্ষণ ও মহড়ার উদ্দেশ্য।

চূড়ান্ত সামরিক মহড়া ‘সেন্টার’ আয়োজন করা হবে ২০১৯-এর সেপ্টেম্বর মাসে, বলেন শয়গু।

এদিকে আইএনএফ চুক্তি বাতিল করার আগে রাশিয়াকে এটি সম্পূর্ণ মেনে চলতে সম্মত করার জন্য ব্যাপক কূটনৈতিক তৎপরতা চালানোর কথা জানিয়েছে ন্যাটো। ন্যাটোর অনুরোধে যুক্তরাষ্ট্র এই চুক্তির শর্তগুলোর বিষয়ে স্বচ্ছ হতে রাশিয়াকে দুই মাসের আল্টিমেটাম দিয়েছে।