এবার ব্যবস্থা নিতে র‌্যাব-পুলিশকে চিঠি

আগের সংবাদ

ভিকারুননিসার ৩ শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ৯ জানুয়ারি

পরের সংবাদ

এবার যুবরাজের দুই ঘনিষ্ঠ সহযোগীকে গ্রেপ্তারের দাবি

প্রকাশিত হয়েছে: ডিসেম্বর ৫, ২০১৮ , ৬:০৭ অপরাহ্ণ | আপডেট: ডিসেম্বর ৫, ২০১৮, ৬:০৭ অপরাহ্ণ

খাশোগি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের ঘনিষ্ঠ সহচর হিসেবে পরিচিত দুই সৌদি নাগরিকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির দাবি জানিয়েছেন তুরস্কের এক প্রসিকিউটর।

আজ বুধবার খাশোগি হত্যাকাণ্ডে তুরস্কের তদন্ত সংশ্লিষ্ট একটি সূত্রের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি।

সাংবাদিক ও ওয়াশিংটন পোস্টের কলাম লেখক ৫৯ বছর বয়সী জামাল খাশোগিকে গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে অবস্থিত সৌদি কনস্যুলেটে ঢোকার পর হত্যা করা হয়। সেখানে তিনি তার বিয়ে সংক্রান্ত কাগজপত্র আনতে গিয়েছিলেন।

মঙ্গলবার ইস্তাম্বুলে তুরস্কের প্রধান প্রসিকিউটরের কার্যালয়ে সৌদি নাগরিক আহমাদ আল আসিরি ও সৌদ আল কাহতানির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদন করা হয়। আদালতে দাখিল করা আবেদনপত্রে উল্লেখ করা হয়, খাশোগি হত্যায় জড়িত ও পরিকল্পনাকারীদের মধ্যে এই দু’জন হলেন অন্যতম।

আহমাদ আল আসিরিকে প্রায়ই সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে বিভিন্ন রুদ্ধদ্বার বৈঠকে দেখা যেত। তাছাড়া সালমানের বিদেশ সফরসঙ্গী হিসেবেও সবসময় দেখা যেত তাকে। আর সৌদ আল কাহতানি যুবরাজের অন্যতম প্রধান একজন পরামর্শক। খাশোগি হত্যাকাণ্ডের পর রিয়াদ স্বীকার করতে বাধ্য হয় তারাই কনস্যুলেটে খাশোগিকে হত্যা করেছে। এরপর এই দু’জনকে বহিস্কার করা হয়।

ঘটনার তদন্ত শেষে তুরস্কের পক্ষ থেকে জানানো হয়, সৌদি আরবের পাঠানো ১৫ সদস্যের একটি কিলিং স্কোয়াড ইস্তাম্বুলের কনস্যুলেটে খাশোগিকে হত্যা করে। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান বলেন, সৌদি রাজতন্ত্রের উপর মহল থেকে খাশোগিকে হত্যার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল।

এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সৌদি আরব ২১ জনকে গ্রেফতার করেছে। যদিও চারপাশ থেকে বলা হচ্ছে খাশোগিকে হত্যার নির্দেশ দেন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান কিন্তু সৌদি কর্তৃপক্ষ জোড়ালোভাবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।

তবে মার্কিন সিনেটের দু’জন রিপাবলিকান নেতা গত মঙ্গলবার দেশটির কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সিআইএর প্রধান গিনা হাস্পালের কাছ থেকে ঘটনার ব্রিফিং শোনার পর বলেন, ব্রিফিংয়ে তারা স্পষ্ট ইঙ্গিত পেয়েছেন, যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের নির্দেশনায় এই হত্যাকাণ্ড পরিচালিত হয়েছে।