অবশেষে ভর্তির সুযোগ পাচ্ছেন সেই হৃদয়

আগের সংবাদ

দুই বাসের সংঘর্ষ জিম্বাবুয়েতে নিহত ৪৭

পরের সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্রে মধ্যবর্তী নির্বাচন

রিপাবলিকানের গভর্নর ২৬, ডেমোক্র্যাটের ২৩

প্রকাশিত হয়েছে: নভেম্বর ৮, ২০১৮ , ৬:৪৬ অপরাহ্ণ | আপডেট: নভেম্বর ৮, ২০১৮, ৬:৪৬ অপরাহ্ণ

গত মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত মধ্যবর্তী নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করেছে সে দেশের ক্ষমতাসীন ও বিরোধী দল। নির্বাচনে ২৬টি গর্ভনর পদ জিতে নিয়েছে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের দল।

অন্যদিকে ২৩টিতে জয় পেয়েছে বিরোধী ডেমোক্র্যাটরা।

গভর্নরদের দৌড়ের প্রসঙ্গ আসলে ডোনাল্ড ট্রাম্পের জন্য কিছু ভালো খবর, কিছু খারাপ খবর রয়েছে, যার প্রভাব পড়তে পারে ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ওপর।

২০১৬ সালে যেসব অঙ্গরাজ্য ট্রাম্পকে ভোট দিয়েছিল, তারা এবার তার দল থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। ইলিনয় স্টেট ও শিকাগোর নিয়ন্ত্রণ রিপাবলিকান গভর্নরের কাছ থেকে ডেমোক্রেটদের কাছে চলে গেছে। কানসাসের ফলাফলে কাছাকাছিও দাঁড়াতে পারেননি ট্রাম্পের সহযোগী ক্রিস কোবাচ।

কিন্তু ট্রাম্পের জন্য সুখবরও আছে। তার বিরোধিতাকারী হিসেবে পরিচিত জর্জিয়া আর ফ্লোরিডার গভর্নররা জয় পেয়েছেন। অথচ নির্বাচনে বিজয়ী এই দুই গভর্নরের বিরুদ্ধেই বর্ণবৈষম্যের নানা অভিযোগ তোলা হয়েছিল।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ বলে বিবেচিত আইওয়া এবং ওহাইয়োতেও জয় পেয়েছে রিপাবলিকানরা। এটা তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ, কারণ প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় এই গভর্নররা তহবিল সংগ্রহ এবং স্বেচ্ছাসেবী যোগান দেয়ার ক্ষমতা রাখেন।

আর গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গরাজ্য ফ্লোরিডায় হেরে যাওয়া ডেমোক্র্যাটদের জন্য বিরাট ক্ষতি হিসেবে দেখা হচ্ছে। কেননা এখানে তাদের প্রার্থী নিশ্চিত জয় পাবেন বলে ধরে নেয়া হয়েছিল।

এই নির্বাচনে কলোরাডো রাজ্যের গভর্নর নির্বাচিত হয়েছেন প্রকাশ্যে নিজেকে সমকামী ঘোষণাকারী ডেমোক্রেট দলের জারেড পোলিস। ফলে তিনিই হচ্ছেন দেশটির প্রথম সমকামী গভর্নর। জারেড পোলিস ওই রাজ্যে শতকরা ৫২ ভাগ ভোট পেয়েছেন। অন্যদিকে তার প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান দলের প্রার্থী ওয়াকার স্ট্যালেটন পেয়েছেন শতকরা ৪৫ ভাগ ভোট।

দীর্ঘ ৮ বছর পর আইনসভার নিম্নকক্ষ হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে বিরোধী দল ডেমোক্র্যাটরা। আট বছরে প্রথমবারের মত কংগ্রেসের নিম্নকক্ষের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার ফলে ডেমোক্র্যাটরা প্রেসিডেন্টের প্রস্তাবে বাঁধা দেয়ার ক্ষমতা অর্জন করলো।

অন্যদিকে মার্কিন সিনেটের নিয়ন্ত্রণ দখলে রেখেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের রিপাবলিকান দল।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান।