প্রধানমন্ত্রীর একক অবদানে পদ্মা সেতু : সেতুমন্ত্রী

আগের সংবাদ

শনিবার বিসিসির ৯ কেন্দ্রে পুনরায় ভোট

পরের সংবাদ

‘নির্বাচন ভ্যাজাইলা কাম, তারপরও নির্বাচন করতে হয়’

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ১২, ২০১৮ , ৬:৫৫ অপরাহ্ণ | আপডেট: অক্টোবর ১২, ২০১৮, ৬:৫৫ অপরাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারকে সাংবাদিক বান্ধব উল্লেখ করে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন এমপি বলেছেন, হলুদ সাংবাদিকতা নয়, সমাজের সঠিক চিত্র তুলে ধরাই সংবাদপত্র ও সাংবাদিকদের কর্তব্য।

আজ শুক্রবার দুপুরে ফরিদপুর প্রেসক্লাবের নতুন ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. ইমতিয়াজ হাসান রুবেলের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এলজিআরডি মন্ত্রী আরও বলেন, সরকারের ইতিবাচক সমালোচনা করে ভুল-ক্রটি ধরিয়ে দিয়ে উন্নয়নের মহাযাত্রায় সাংবাদিকরাও অংশ নিতে পারেন। সাংবাদিকরা সমাজের সবচেয়ে সচেতন অংশ। তারা জাতি গঠনে অতীতে যেভাবে ভূমিকা রেখে এসেছেন তেমনি করে আগামীতেও আমাদের সকল শুভ উদ্যোগে অনুপ্রেরণা যোগাবেন এটিই প্রত্যাশা।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী আরও বলেন, সংবিধানের বাধ্য বাধকতার জন্য আগামী ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে কিংবা জানুয়ারির প্রথম দুই সপ্তাহের মধ্যে দেশে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

মন্ত্রী বলেন, নির্বাচন এলে এবং প্রার্থী হলে সবাই এমন ভাব দেখায় আমি যেন তাদের কাছে ঠ্যাকা। নির্বাচন একটা ভ্যাজাইলা কাম। তারপরও নির্বাচন করতে হয়। নির্বাচন করে সাংসদ এবং পরে মন্ত্রী হয়েছিলাম বলেই গত ১০ বছরে আমি ফরিদপুরের এত উন্নয়ন করতে পেরেছি।

তিনি বলেন, যেসব উন্নয়নের কাজ হাতে নেয়া হয়েছিল তার অনেকগুলো এখনও অসমাপ্ত রয়ে গেছে। তাই আমাকে নির্বাচন করতে হবে। তিনি বলেন, আমার যে বয়স হয়েছে এ অবস্থায় আপনাদের কাছে আমার চাওয়া ও পাওয়ার কিছু নেই। আমি আপনাদের দিতে চাই। আমার নির্বাচন করার মোটেও ইচ্ছে ছিল না কিন্তু কিছু কাজ বাকি থাকায় নির্বাচন করতে হচ্ছে।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, আপনারা আমার বিরোধীতা করুন, তবে বিরোধীতার স্বার্থে বিরোধীতা করবেন না। বিরোধীতা করতে হবে আমার দোষক্রুটি দূর করতে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া। এ সময় মঞ্চে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মো. মো. জাকির হোসেন খান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. লোকমান হোসেন মৃধা, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবল চন্দ্র সাহা, প্রবীণ সাংবাদিক জগদীশ চন্দ্র ঘোষ, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হাসানউজ্জামান, পৌর মেয়র শেখ মাহতাব আলী মেথু প্রমুখ।

এর আগে মন্ত্রী প্রেসক্লাবের নতুন ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।