গ্রেনেডের উৎস পাকিস্তান

আগের সংবাদ

২১ আগস্ট থেকেই বাড়তে থাকে  আওয়ামী লীগ ও বিএনপির দূরত্ব

পরের সংবাদ

রায়ে সন্তুষ্ট নন নিহতদের স্বজন ও আহতরা

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ১১, ২০১৮ , ১:১০ অপরাহ্ণ | আপডেট: অক্টোবর ১১, ২০১৮, ১:১০ অপরাহ্ণ

রায়ে অসন্তুষ্ট প্রকাশ করেছেন ওই ঘটনায় আহত ও নিহতদের স্বজনরা। রায়ের পর রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে কথা হয় তাদের বেশ কয়েকজনের সঙ্গে। সেদিনের ঘটনায় আহত বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি খুরশিদা বেবী হেনা বলেন, আমার সারা শরীরে স্পিøন্টার। এখনও আমি রাতে ঠিকমতো ঘুমাতে পারি না। তাই এই রায়ে আমরা খুশি নই। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মূল নায়ক তারেক রহমানকে তো ফাঁসি দেয়া হয়নি। তাকে ফাঁসি দিলে বেশি খুশি হতাম। তবে আমরা আদালতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আশা করছি, উচ্চ আদালত তাকে ফাঁসি দেবেন। আহত হেনা বেগম বলেন, আমরা এই রায় মানি না। এই রায়ে আমরা সন্তুষ্ট না। গ্রেনেড হামলার মূল হোতা তারেকের ফাঁসি চাই। আমি দীর্ঘদিন হাসপাতালে থেকেছি। এখনও মাঝে মাঝে শরীরে ব্যথা হয়।
আওয়ামী লীগের আরেক কর্মী আয়েশা খানম। তার মামি সেদিন নিহত হয়েছিলেন। তিনি বলেন, আমার মামি ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় শহিদ হন। কিন্তু এই হামলার মূল পরিকল্পনাকারী তারেক রহমানের ফাঁসি হয়নি। এটা আমরা মানতে পারি না।
এ ছাড়াও ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে এসেছিলেন সেদিনের আহত সেতারা বেগম পুতুল, আওয়ামী লীগের কর্মী সেলিম পাটোয়ারী, তাসলিমা, আফরোজা, মুক্তিযোদ্ধা নিজাম, শেফালী, হারিস হাসানসহ অনেকে। এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তারাও জানালেন তাদের দুর্বিসহ জীবনের কথা। একই সঙ্গে এই হামলার মূল পরিকল্পনাকারী তারেক রহমানের সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির দাবিও জানান তারা।