তারেকের মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত ছিল

আগের সংবাদ

জজ মিয়া উপাখ্যান

পরের সংবাদ

খালেদা জিয়াও হামলার দায় এড়াতে পারেন না

তারেকের ফাঁসি চায় আওয়ামী লীগ

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ১১, ২০১৮ , ১২:৩৭ অপরাহ্ণ | আপডেট: অক্টোবর ১১, ২০১৮, ১২:৩৭ অপরাহ্ণ

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাধ্যমে আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করার মাস্টার মাইন্ড তারেক রহমানের ফাঁসির দাবি জানিয়েছে আওয়ামী লীগ। দলটির সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের গতকাল বুধবার বিকেলে ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে রায় পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান। সে সময় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পূর্ণ দায়িত্বে থাকায় খালেদা জিয়াও এর দায় এড়াতে পারেন না বলে মন্তব্য করেন তিনি।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, ডা. দীপু মনি, এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, একেএম এনামুল হক শামীম, কৃষি ও সমবায় সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ প্রমুখ।
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় হয়েছে। আমরা ন্যায়বিচার চেয়েছি। আদালত বিলম্ব হলেও রায়টি দিয়েছেন। কিন্তু রায়ে আমরা পুরোপুরি সন্তুষ্ট হতে পারিনি। কারণ এ ঘটনার মাস্টার মাইন্ড, প্ল্যানার, বিকল্প পাওয়ার হাউস তারেক রহমান যা করেছেন তার প্রাপ্য শাস্তিটুকু পেতে পারতেন। কিন্তু তিনি সেটা পাননি। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আমরা তারেক রহমানের ফাঁসি দাবি করছি। তিনি যে বর্বর তাণ্ডব করেছিলেন ওই দিন, মুফতি হান্নানের জবানবন্দিতে তা বেরিয়ে এসেছে।
ওবায়দুল কাদের বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পূর্ণমন্ত্রী না থাকায় তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন। রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান জানতেন, আর তিনি জানতেন না, এটা হতে পারে না। এটা কেউ বিশ্বাসও করবে না। তাই তিনিও এই ঘটনার দায় এড়াতে পারেন না।
এই মামলায় আপিল করা হবে কিনা জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা সরকারের কাছে আপিলের আবেদন জানাব।
এর আগে সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মিলন কেন্দ্রে একটি অনুষ্ঠানে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন ওবায়দুল কাদের। এ সময় তিনি বলেন, বিলম্বিত এ রায়ে আমরা অখুশি নই। তবে পুরোপুরি সন্তুষ্টও নই। এই হামলার যে প্ল্যানার বা মাস্টার মাইন্ড, তার শাস্তি হওয়া উচিত ছিল মৃত্যুদণ্ড।