শুরুতে মুস্তাফিজের আঘাত

আগের সংবাদ

১ লাখ ১৫ হাজার পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার এক

পরের সংবাদ

চর্মরোগ নিয়ে বিএসএমএমইউর বৈজ্ঞানিক সেমিনার

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৮ , ১০:২৭ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৮, ১০:২৭ অপরাহ্ণ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের চর্ম ও যৌনব্যাধি বিভাগের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো চর্মরোগ বিষয়ে সর্বশেষ অগ্রগতি নিয়ে বৈজ্ঞানিক সেমিনার।

রবিবার দুপুর ১২টায় ঢাকা ক্লাবের স্যামসন এইচ চৌধুরী লাউঞ্জে এ সেমিনার হয়।
সেমিনার প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী এ কে এম মোজাম্মেল হক। তিনি বলেন, চিকিৎসার ক্ষেত্রে বর্তমান সরকারের আমলে ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে। স্বাস্থ্যখাতের উন্নয়নে বর্তমান সরকার ১২ হাজার চিকিৎসক, ১৫ হাজার নার্স ও প্রয়োজনীয় সংখ্যক স্বাস্থ্য সহকারী নিয়োগ দিয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, দেশের মানুষকে আরো উন্নত সেবা দিতে গত ১৩ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে “সুপার স্পেশালাইজড হাসপাতালের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেছেন। গণমানুষকে সেবা দিতে বর্তমান সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। তৃণমূলে স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতেই বর্তমান সরকার গ্রামেগঞ্জে আবারো কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করেছে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, বাংলাদেশ ডার্মাটোলজিক্যাল সোসাইটির সভাপতি অধ্যাপক এ কিউ এম সেরাজুল ইসলাম, মহাসচিব অধ্যাপক এহসানুল কবির জগলুল। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) ও চর্ম ও যৌনব্যাধি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহযোগী অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়া। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ইউনিমেড ইউনিহেলথের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম মোসাদ্দেক হোসেন।

অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে ছিল বৈজ্ঞানিক সেশন। বৈজ্ঞানিক সেকশন প্যানেল এক্সপার্ট হিসেবে ছিলেন অধ্যাপক এজেডএম মাইদুল ইসলাম, অধ্যাপক এম এ ওয়াদুদ, অধ্যাপক এম ইউ কবির চৌধুরী, অধ্যাপক আগা মাসুদ চৌধুরী, অধ্যাপক মো. আকরাম উল্লাহ সিকদার, অধ্যাপক এম এ রউফ। গুরুত্বপূর্ণ প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক এম এ ওয়াহাব, সহযোগী অধ্যাপক ডা. অসিম কুমার নন্দী, ডা. দীপক কুমার দাস, সহযোগী অধ্যাপক ডা. মো. রফিকুর মওলা, সহকারী অধ্যাপক ডা. তুষার কান্তি সিকদার।

সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, চিকিৎসার বিষয়ে রোগী বা তাঁদের স্বজনদের কোনো অভিযোগ থাকলে বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) অথবা বাংলাদেশ মেডিক্যাল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল (বিএমডিসি)কে জানাতে অনুরোধ করেন।