নর্থ ক্যারোলিনায় ফ্লোরেন্সের আঘাত

আগের সংবাদ

মেডিকেল বোর্ডে ব্যক্তিগত চিকিৎসক অন্তর্ভুক্তির দাবি বিএনপির

পরের সংবাদ

খালেদার জন্য মেডিকেল বোর্ড অশুভ পরিকল্পনা

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮ , ৮:৫৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮, ৮:৫৩ অপরাহ্ণ

খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডে তার কোনো ব্যক্তিগত চিকিৎসক না রাখায় বিষয়টিকে ‘অশুভ পরিকল্পনা’ হিসেবে অভিহিত করেছে বিএনপি।

শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, ‘কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউ (পিজি হাসপাতাল) একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। গণমাধ্যমের প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী মেডিকেল বোর্ডে বিএসএমএমইউ-এর চিকিৎসকরাই রয়েছেন। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের মেডিকেল বোর্ডে রাখা হয়নি, যা বিদ্বেষপ্রসূত মনোভাবেরই বহি:প্রকাশ।’

রিজভী বলেন, ‘কারা কর্তৃপক্ষের মৌখিক বার্তা অনুযায়ী মেডিকেল বোর্ডে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য দেশনেত্রীর ব্যক্তিগত পাঁচজন চিকিৎসকের নাম দলের পক্ষ থেকে প্রেরণ করা হয়েছিল। কিন্তু বেগম জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের বোর্ডে অন্তর্ভুক্ত না করায় বিএনপি শুধু উদ্বিগ্নই নয়, বরং দেশনেত্রীকে চিকিৎসা না দিয়ে তাকে গুরুতর শারীরিক ক্ষতির দিকে ঠেলে দেওয়ার জন্য এটি সরকারের অশুভ পরিকল্পনারই অংশ বলে দল মনে করে।’

খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের বোর্ডে রাখার পক্ষে যুক্তি তুলে ধরে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘যে সকল চিকিৎসকের নাম বিএনপি সুপারিশ করেছিল তারা চিকিৎসা শাস্ত্রের স্ব স্ব ক্ষেত্রে প্রথিতযশা এবং চিকিৎসাঙ্গনের সিনিয়র অভিজ্ঞ চিকিৎসক। দেশজুড়ে তাদের খ্যাতিও রয়েছে। দীর্ঘদিন থেকে চিকিৎসা দেওয়ায় তারা বেগম জিয়ার যে শারীরিক অসুস্থতা সে সম্পর্কে অবগত রয়েছেন।’

খালেদার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চিকিৎসক সংগঠন স্বাচিপের চিকিৎসক রয়েছেন জানিয়ে খালেদা জিয়ার সঠিক চিকিৎসা পাবেন না বলেও মনে করেন রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, ‘সরকার গঠিত মেডিকেল বোর্ডে অন্যতম সদস্য ডা. আবু জাফর চৌধুরী নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি প্রার্থী, তিনি দলীয় প্রার্থী হিসেবে সংশ্লিষ্ট এলাকায় ব্যাপক নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। অপর সদস্য অধ্যাপক ডা. হারিসুল হক আওয়ামী লীগ সমর্থিত চিকিৎসক সংগঠন স্বাচিপ (স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ) বিএসএমএমইউ এর ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক। এছাড়া অধ্যাপক ডা. তারেক রেজা আলী আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য।’

‘সুতরাং সরকারের গঠিত বোর্ডে মনোনীত চিকিৎসকগণকে বাছাইয়ের ক্ষেত্রে পেশাগত দক্ষতার চেয়ে সরকারদলীয় আনুগত্যের ক্ষেত্রকেই অধিক গুরুত্ব প্রদান করা হয়েছে। অতএব আওয়ামী লীগের প্রতি অনুগত চিকিৎসকদের অন্তর্ভুক্তকৃত মেডিকেল বোর্ডের মাধ্যমে যথাযথ চিকিৎসা এবং তার শারীরিক পর্যবেক্ষণ সঠিকভাবে প্রতিফলিত হবে না। কারণ সরকার গঠিত মেডিকেল বোর্ড সরকারের নির্দেশ মতোই কাজ করবে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাস স্বত্ত্বেও মেডিক্যেল বোর্ডে খালেদার ব্যক্তিগত চিকিৎসক না থাকায় বিষয়টির সমালোচনা করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিএনপি প্রতিনিধি দলকে আশ্বাস দিয়েছিলেন বেগম জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদেরকে মেডিকেল বোর্ডে অন্তর্ভুক্ত করার, কিন্তু কার্যত: সেটির প্রতিফলন ঘটেনি। কর্তৃপক্ষ বিষয়টি আমলে না নেয়ায় এটাই প্রমান হয় যে, সরকার বেগম জিয়াকে সুচিকিৎসা না দিয়ে তিলে তিলে নি:শেষ করতে চায়। এটি সরকারের অশুভ পরিকল্পনারই ইঙ্গিতবাহী।’

বিএনপি নেত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের মেডিকেল বোর্ডে অন্তর্ভুক্তির দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘কর্তৃপক্ষের অবহেলায় যদি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কোনো ক্ষতি হয়, সেজন্য এর সম্পূর্ণ দায় বর্তাবে সরকারের ওপর।’