শিল্পকলায় উদীচীর ‘বৌ-বসন্তি’ মঞ্চস্থ

আগের সংবাদ

মাত্র দুদিনেই জাম্বুরি পার্ক আবর্জনার ভাগাড়

পরের সংবাদ

ঘটনাস্থল পরিদর্শনে সরকারি তদন্ত টিম

গঞ্জেরাজের মালিক ও চালকের জামিন, ক্ষুব্ধ আকিফার বাবা

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮ , ১:২৭ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮, ১:২৭ অপরাহ্ণ

একদিকে সরকারি তদন্ত টিমের সদস্যরা যখন চৌড়হাস মোড়ে ঘটনাস্থল তদন্ত করছেন ঠিক একই সময়ে আকিফাকে ধাক্কা দেয়া সেই গঞ্জেরাজ পরিবহনের মালিক ও ড্রাইভারকে জামিন দিয়েছেন আদালত। গতকাল সোমবার সকালে কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল আদালতের বিচারক এম এম মোর্শেদ ওই দুই আসামিকে জামিন দেন। এদিকে এ রকম একটি আলোচিত ঘটনায় গাড়ির মালিক ও চালককে জামিন দেয়ায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন আকিফার বাবাসহ কুষ্টিয়ার বিভিন্ন মহল।
গত রবিবার ফরিদপুর থেকে বাসের মালিক জয়নালকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। পরে তাকে কুষ্টিয়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। আর ড্রাইভার মহিদ মিয়া ওরফে খোকন সকালে আদালতে এসে আত্মসমর্পণ করে জামিন চান।
আদালত সূত্র জানিয়েছে, আকিফার বাবার দায়ের করা মামলায় গঞ্জেরাজ পরিবহনের মালিক জয়নাল মিয়াকে ফরিদপুর থেকে আটক করেন র‌্যাব সদস্যরা। বিকেলে তাকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। সোমবার সকালে মালিকের পক্ষে তার আইনজীবীরা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এম এম মোর্শেদের আদালতে জামিন আবেদন করেন। একই সময় আদালতে আত্মসমর্পণ করেন ড্রাইভার মহিদ মিয়া ওরফে খোকন। পরে আদালত ২ জনকেই জামিন দেন।
এদিকে আকিফা হত্যার ঘটনায় গঠিত সরকারি একটি তদন্ত টিমের সদস্যরা সকালে কুষ্টিয়ায় আসেন। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কুষ্টিয়ার চৌড়হাস মোড়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যায় ১০ সদস্যের একটি দল। এর মধ্যে ঢাকার ৬ জন এবং বাকিরা স্থানীয়। তদন্ত টিমের সদস্যরা আকিফার বাড়িতে গিয়ে তার বাবা ও মায়ের সঙ্গে কথা বলেন। এ ছাড়া স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গেও কথা বলেন তারা।
তদন্ত টিমে ছিলেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব শফিকুল ইসলাম, বিআরটিএ পরিচালক (অপারেশন) সীতাংশু শেখর বিশ্বাস, বুয়েটের সহযোগী অধ্যাপক ও দুর্ঘটনা গবেষণা প্রতিষ্ঠানের সদস্য কাজী মোহাম্মদ সাইফুন নেওয়াজ, নিরাপদ সড়ক চাইয়ের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম আজাদ হোসেন, সাংবাদিক অশোক চৌধুরী। স্থানীয় জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের প্রতিনিধি ছাড়াও বিআরটিএ বিভাগীয় পরিচালক উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে এ রকম একটি আলোচিত ঘটনায় গাড়ির মালিক ও চালককে জামিন দেয়ায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে কুষ্টিয়ার বিভিন্ন মহল।