আলোচিত দশ ফিকশন

আগের সংবাদ

রোগ নিরাময়ে অব্যার্থ করলার জুস

পরের সংবাদ

চট্টগ্রামে নাগরিক শোকসভা

মুক্তিযুদ্ধে মাহাবুবের ভূমিকা স্মরণীয় হয়ে থাকবে

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮ , ৪:৫৮ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮, ১০:০৪ অপরাহ্ণ

মাহাবুব চেয়ারম্যান ছিলেন স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় শাণিত অকুতোভয় যোদ্ধা। অসাম্প্রদায়িকতার মননে মননশীল, বাঙালি সত্তার প্রতি নিবিষ্টচিত্ত দেশপ্রেমিক হিসেবে তিনি ছিলেন মৌলবাদ, জঙ্গিবাদ ও ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে সোচ্চার। উদারপ্রাণ চরিত্রের অধিকারী সর্বমহলে গ্রহণযোগ্য আলোকিত পুরুষ ছিলেন তিনি। একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে দেশের অভ্যন্তরে ট্রেনিং ক্যাম্প স্থাপন ও মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে নিয়ে সশস্ত্র প্রতিরোধ যুদ্ধে অংশ নেয়া ও শরণার্থীদের থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণসহ মাহাবুব চেয়ারম্যানের সাহসী ভূমিকা অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে। পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড পরবর্তী দুঃসময়ে আওয়ামী লীগের রাজনীতি এগিয়ে নিতে তিনি জীবনবাজি রেখে লড়াই করেছেন। নীতি ও আদর্শের প্রশ্নে আমৃত্যু আপসহীন ছিলেন তিনি। তার আদর্শিক পথেই নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের শোষণহীন, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গঠনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় এগিয়ে যেতে হবে। চট্টগ্রাম জেলা ও মহানগর সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের উদ্যোগে রাঙ্গুনিয়ার প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা, পদুয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক মাহাবুব আলম চৌধুরীর নাগরিক শোক সভায় বক্তারা এ অভিমত ব্যক্ত করেন।

গত শনিবার চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এ শোক সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এম এ সালাম, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সহসভাপতি অধ্যাপক মো. মঈনুদ্দিন, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র বিশ্বাস। সংগঠনের জেলা সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আলম মন্টুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম সিদ্দিকীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় মুক্তিযোদ্ধা, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নাগরিক ও প্রয়াতের সন্তান বেদারুল আলম চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।