ইলিশ পাতুরি

আগের সংবাদ

চট্টগ্রামে অস্ত্র ও ২১ হাজার ইয়াবাসহ ৩ জন গ্রেপ্তার

পরের সংবাদ

টাইগাররা ঢাকা ছাড়ছে আজ

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮ , ৫:০৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮, ৫:০৯ অপরাহ্ণ

দরজায় কড়া নাড়ছে এশিয়া কাপের চতুর্দশ আসর। ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে শুরু হচ্ছে এ টুর্নামেন্ট। এবারের আসরে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও হংকং। উদ্বোধনী দিনেই মাঠে নামবে টাইগাররা। তাদের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা। গ্রুপ পর্বে আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের পরের ম্যাচটি ২০ সেপ্টেম্বর। ৬ জাতির এশিয়ার এই টুর্নামেন্টে অংশ নিতে আজ রবিবার সন্ধ্যায় সংযুক্ত আরব আমিরাতের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বে মাশরাফি বাহিনী। এবার এশিয়া কাপে ধারাভাষ্য প্যানেলে থাকছেন ১০ সদস্যের ধারাভাষ্যকার। যেখানে বাংলাদেশ থেকে প্রতিনিধি হিসেবে রয়েছেন সাবেক ক্রিকেটার ও দেশবরেণ্য ধারাভাষ্যকার আতহার আলী খান। দেশের আরেক প্রখ্যাত ধারাভাষ্যকার শামীম চৌধুরীর জায়গা হয়নি এশিয়া কাপে। ১০ জনের এই দলে ভারত থেকে রয়েছেন ২ জন, পাকিস্তান থেকে ২ জন, শ্রীলঙ্কা থেকে ২ জন, ইংল্যান্ড থেকে ২ জন ও অস্ট্রেলিয়া থেকে ১ জন ধারাভাষ্যকার রয়েছেন।
এশিয়া কাপের জন্য প্রথমে ১৫ সদস্যের চ‚ড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করা হয় কিন্তু পরে ১৬ সদ্যসের চ‚ড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়। যুক্ত করা হয় মুমিনুল হককে। কারণ শান্তর আঙুলে একটু ব্যথা আছে, তামিম ইকবালের পুরনো ব্যথা আছে, সেটাও আঙুলের। এ প্রসঙ্গে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, ব্যাকআপ হিসেবে বাড়তি প্লেয়ার লাগতে পারে। তাই মুমিনুলকে নেয়া হয়েছে। মোট ১৬ সদস্যের ১৫ জনই এক সঙ্গে আজ সন্ধ্যায় সংযুক্ত আরব আমিরাতের উদ্দেশে দেশ ছাড়বে। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (সিপিএল) শেষে দেশে ফিরেছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দলের সঙ্গে দেশ ছাড়বেন তিনিও। দলের সঙ্গে থাকছেন না সাকিব আল হাসান। বর্তমানে নিউইয়র্কে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোয় তাকে ছাড়াই রওনা দেবে টাইগাররা। টুর্নামেন্টে অংশ নিতে নিউইয়র্ক থেকে সরাসরি দুবাইয়ে তার দলের সঙ্গে যোগ দেয়ার কথা রয়েছে তার।
সাকিব সময়মতো দলের সঙ্গে মিলিত হবেন কিনা। নাকি বিশ্রাম কাটিয়ে চিকিৎসক ও টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে কথা বলে যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরব আমিরাত আসবেন। ভক্ত ও সমর্থকদের মনে সংশয় এবং প্রশ্ন উঁকি দিচ্ছে।
এমন নানা প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন বলেন, সাকিবের ফিটনেস নিয়ে যে খবর প্রচার হয়েছে এবং তাকে কেন্দ্র করে ভক্ত ও সমর্থকদের মনে যে সংশয়-সন্দেহ জন্মেছে, আমার জানা মতে তাও ভিত্তিহীন। সাকিব নিজে আমাদের কাছে তার ফিটনেস নিয়ে কোনো অভিযোগ করেননি। ফিজিও, ট্রেনার, কোচ এবং বিসিবির চিকিৎসক কারো কাছেই সাকিব বলেনি যে, তার ফিটনেসে ঘাটতি আছে। বলেনি সে মাত্র ২০-৩০ ভাগ ফিট। যেহেতু তার ফিটনেস নিয়ে সাকিব টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে কোনো অভিযোগ করেনি, তাই আমরা ধরেই নিয়েছি সে সম্পূর্ণ ফিট। আর যদি কোনো ঘাটতি থেকেও থাকে, সেটাও বড় কিছু নয়। তামিম ইকবালের ডান হাতের অনামিকায় ব্যথা প্রসঙ্গে প্রধান নির্বাচকের ব্যাখ্যা, আমরা জানি নাজমুল হোসেন শান্তর সঙ্গে তামিম ইকবালের হাতের আঙুলে ব্যথা আছে। তাই তো আমরা শেষ মুহূর্তে মুুমিনুলকে ব্যাকআপ হিসেবে দলে নিয়েছি। তারপরও আমার মনে হয় না, তামিমের সমস্যা তেমন গুরুতর কিছু না। আশা করছি তা কমে যাবে এবং তামিম ঠিক খেলতে পারবে।