দুবাইয়ে অর্থ পাচার : ফালুর ভাতিজার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

আগের সংবাদ

বাংলাদেশের জনগণের সঙ্গে ভারত ছিল, ভবিষ্যতেও থাকবে

পরের সংবাদ

আখাউড়া-আগরতলা রেলপথের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন সোমবার

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮ , ১০:০৬ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮, ১০:০৬ অপরাহ্ণ

ব্রাক্ষণবাড়িয়ার আখাউড়া থেকে ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলা পর্যন্ত ডুয়েলগেজ রেলপথ নির্মাণ করা হবে। পুনর্বাসন করা হবে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া থেকে আখাউড়া সংলগ্ন শাহবাজপুর পর্যন্ত রেলপথ।

সোমবার এই দুই প্রকল্পের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

এদিন বিকেল ৫টায় দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী নিজ নিজ কার্যালয় থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করবেন। ভারতের ঋণে (এলওসি) প্রকল্প দুটি নির্মিত হচ্ছে। প্রকল্প দুটি বাস্তবায়ন হলে উত্তর-পূর্ব ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সরাসরি রেল যোগাযোগ স্থাপিত হবে।

রেলপথ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ব্রিটিশ ভারত সরকার ১৮৯৬ সালে কুলাউড়া থেকে শাহবাজপুর পর্যন্ত মিটারগেজ রেলপথ নির্মাণ করে। এ পথে আসাম থেকে সরাসরি চট্টগ্রাম বন্দর পর্যন্ত ট্রেন চলত। ২০০২ সালে রেলপথটি বন্ধ হয়ে যায় রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে।

প্রকল্প সূত্র জানায়, কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেল সেকশন পুনর্বাসনে ৬৭৮ কোটি টাকায় রেলপথটি আবারও সচল করা হচ্ছে। এতে ভারত ঋণ দিচ্ছে প্রায় ৫৫৬ কোটি টাকা। বাকি ১২২ কোটি টাকার জোগান দেবে বাংলাদেশ। বিদ্যমান মিটারগেজ এমব্যাংকমেন্ট সংস্কারসহ ৫৩ কিলোমিটার ডুয়েলগেজ রেলপথ নির্মাণ করা হবে। পুরনো সেতু, কালভার্ট এবং স্টেশন পুনর্নির্মাণ করা হবে। প্রকল্প পরিকল্পনা অনুযায়ী আগামী দুই বছরে কাজ শেষ হবে।

উত্তর-পূর্ব ভারতের সঙ্গে সরাসরি রেল যোগাযোগে আখাউড়া থেকে আগরতলা পর্যন্ত ১৫ কিলোমিটার রেলপথ নির্মাণ করছে দুই দেশ। ভারত অংশে পাঁচ কিলোমিটার ব্রডগেজ রেলপথ নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে গত বছর। বাংলাদেশ অংশে ১০ কিলোমিটার ডুয়েলগেজ রেলপথ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন হবে সোমবার। প্রায় ২৪১ কোটি টাকা ব্যয়ে আগামী দেড় বছরে এ প্রকল্পের কাজ শেষ করার পরিকল্পনা রয়েছে।