আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে মাছ রপ্তানি বন্ধ

আগের সংবাদ

আ.লীগে অর্ধডজন সম্ভাব্য প্রার্থী, সুবিধাজনক অবস্থানে বিএনপি

পরের সংবাদ

কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২

ছয় উপজেলায় ১০ বছরে গ্রাহক বেড়ে দ্বিগুণ

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮ , ১:৫০ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮, ১:৫০ অপরাহ্ণ

বর্তমান সরকারের আমলে গত ১০ বছরে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর অধীন জেলার ৬টি উপজেলায় গ্রাহক বেড়ে হয়েছে দ্বিগুণেরও বেশি। এসব উপজেলার প্রায় প্রতিটি গ্রাম শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। এ ছাড়া গ্রাহকসেবা প্রদানের লক্ষ্যে প্রতিটি এলাকায় রয়েছে অভিযোগ কেন্দ্র। ওই কার্যালয়ের অধীন ১৪টি অভিযোগ কেন্দ্রে সার্বক্ষণিক মোবাইল নম্বর খোলা রেখে গ্রাহকদের বিদ্যুৎসেবা প্রদান করা হচ্ছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ বর্তমান সরকারের আমলে গত ১০ বছরে ১ লাখ ৯৪ হাজার গ্রাহককে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করেছে। আর বিগত ১৬ বছরে সংযোগ দেয়া হয়েছে ১ লাখ ৪৮ হাজার গ্রাহককে। এ নিয়ে গত ২৬ বছরে ৩ লাখ ৪২ হাজার গ্রাহককে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করা হয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পল্লী অঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহের ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেছিলেন, বিদ্যুৎ ছাড়া কোনো কাজ হয় না। কিন্তু দেশের জনসংখ্যার শতকরা ১৫ ভাগ লোক যে শহরের অধিবাসী সেখানে বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থা থাকলেও শতকরা ৮৫ জনের বাসস্থান গ্রামে বিদ্যুৎ নেই। তাই গ্রামে গ্রামে বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে হবে। গ্রামে গ্রামে বিদ্যুৎ চালু করতে পারলে কয়েক বছরের মধ্যে আর বিদেশ থেকে খাদ্য আমদানি করতে হবে না।
১৯৯২ সালের ১৯ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ শুরু করে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২। ৬টি উপজেলা নিয়ে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ গঠিত। উপজেলাগুলো হচ্ছেÑ কুমিল্লা সদর দক্ষিণ, আদর্শ সদর, চৌদ্দগ্রাম, ব্রাহ্মণপাড়া, বুড়িচং ও লালমাই। ৬টি উপজেলার ৫০টি ইউনিয়নের ১ হাজার ৪২১টি গ্রামের মধ্যে সব গ্রাম বিদ্যুতায়িত হয়েছে। এর মধ্যে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ ও আদর্শ সদর উপজেলা শতভাগ বিদ্যুতায়িত। বাকি ৪টি উপজেলাও শতভাগ বিদ্যুতায়িত করা হয়েছে। এখন শুধু ঘোষণার অপেক্ষা। ‘শেখ হাসিনার উদ্যোগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ এ স্লোগান নিয়ে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা রাত-দিন নিরলস পরিশ্রম করায় এখন কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এ লোডশেডিং নেই। তবে লাইন রক্ষণাবেক্ষণ কাজ করার স্বার্থে মাঝেমধ্যে বিদ্যুৎ বন্ধ রেখে কাজ করতে হয়।[
এ ব্যাপারে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার মো. জাহাঙ্গীর আলম এ প্রতিনিধিকে জানান, কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর অধীন ৬টি উপজেলার ২টি উপজেলা শতভাগ বিদ্যুতায়িত ঘোষণা করা হয়েছে। বাকি ৪টি উপজেলাও শতভাগ বিদ্যুতায়িত করা হয়েছে, এখন শুধু ঘোষণার অপেক্ষা। তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসার পর কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর সাফল্য অর্জিত হয়েছে অনেক। বর্তমান পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এমপি, রেলপথমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক এমপি, সাবেক আইনমন্ত্রী আবদুল মতিন খসরু এমপি, আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপি ও বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যানের দিকনির্দেশনা ও সহযোগিতায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে আমাদের এ সফলতা। নতুন মিটার সংযোগের ব্যাপারে তিনি বলেন, আমরা সমিতিতে আসার সঙ্গে সঙ্গে মিটার সংযোগ দিয়ে থাকি। মিটারের জন্য আমাদের পেছনে ঘুরতে হয় না। গ্রাহকসেবা প্রদান করার লক্ষ্যে প্রতিটি এলাকায় অভিযোগ কেন্দ্র রয়েছে। বিদ্যুৎসেবা প্রদানের লক্ষ্যে আমার ব্যবহৃত অফিসে মোবাইল নাম্বারটি ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকে। এ ছাড়া ১৪টি অভিযোগ কেন্দ্রেও ২৪ ঘণ্টা মোবাইল চালু থাকে।