বিদ্যুতে নতুন রেকর্ড উদযাপন আলোকোৎসবে

আগের সংবাদ

ভোটের মাঠে প্রস্তুতির ঘটা

পরের সংবাদ

গুলিবিদ্ধ লাশটি বনদস্যু জসিমের

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮ , ১০:৩৫ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮, ১০:৩৫ অপরাহ্ণ

গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলা থেকে উদ্ধার যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশের পরিচয় পাওয়া গেছে। তার নাম জসিম উদ্দিন। তিনি গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রা এলাকায় থাকতেন।

কাপাসিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু বকর সিদ্দিক এ তথ্য জানিয়ে বলেন, শুক্রবার নিহতের স্ত্রী ছায়া বেগম গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে গিয়ে লাশ সনাক্ত করেছেন।

এর আগে গাজীপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে ওই এলাকায় গুলির শব্দ শুনতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে জানায়। পুলিশ সেখানে গেলে টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এ সময় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ওই যুবককে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে কাপাসিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, দুই দল সন্ত্রাসীর মধ্যে গুলি-পাল্টা গুলি হয়েছে।

কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর গ্রামের মৃত তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে জসিম উদ্দিন। তিনি ১৫/১৬ বছর আগে কালিয়াকৈরের চন্দ্রা এলাকায় এসে জুতা তৈরির কারখানায় পিয়নের চাকরি নিয়ে বসবাস শুরু করেন। পরবর্তীতে চাকরি ছেড়ে দিয়ে নিজে জুতা বানিয়ে ওই কোম্পানিতে সরবরাহ করতেন। এ জন্য এলাকার মানুষের কাছে মুচি জসিম হিসেবে পরিচিতি ছিলেন।

এক পর্যায়ে জসিম নিজস্ব সন্ত্রাসী বাহিনী তৈরি করে বনের সরকারি জমি দখল শুরু করেন। এভাবে বন বিভাগের প্রায় ৩০০ বিঘা জায়গা দখল করে বন কেটে সেখানে বস্তি ও দোকান তৈরি করে ভাড়া দেন। পাশাপাশি পুলিশের সোর্স হিসেবে কাজ করতেন। মামলার আসামি করার ভয় দেখিয়ে এলাকার নিরীহ মানুষকে জিম্মি করে টাকা আদায় করতেন জসিম। এভাবে জসিম ওই এলাকায় তার রাজত্ব গড়ে তুলে হয়ে যান কোটি কোটি টাকার মালিক। বনে যান কালিয়াকৈরে এক মূর্তিমান আতঙ্ক।

তার বিরুদ্ধে বনের জায়গা দখল ও গাছ কাটাসহ বিভিন্ন অপরাধে ১৮টি মামলা রয়েছে।